চুয়াডাঙ্গা বুধবার , ৯ মার্চ ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বেজির গলায় শিকল পরিয়ে বেকায়দায় শ্রাবন্তী

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
মার্চ ৯, ২০২২ ৯:১৬ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

Girl in a jacket

বিনোদন প্রতিবেদন:

বন্যপ্রাণীকে শিকলে বেঁধে ভালবাসার যে এই ফল ফলবে দুঃস্বপ্নেও টের পাননি শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। বেজির গলায় শিকল পরিয়ে আদর। সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ফাঁস। আপাতত ভারতের বন দপ্তরের লাগাতার জেরার সম্মুখীন তিনি। ১৫ জানুয়ারি এ বিষয়ে প্রথম তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সমন পাঠায় ভারতের বন্যপ্রাণী বিরোধী অপরাধ নিয়ন্ত্রণ শাখা। সোমবার তিনি প্রথম পা রাখেন অরণ্য ভবনে। বন দপ্তর সূত্রে জানা যায়, এই একদিনেই বিষয়টির নিষ্পত্তি হয়নি। মঙ্গলবার ফের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে পাঠানো হয় তাকে। নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক এক আধিকারিকের দাবি, পুরো ঘটনা প্রকাশ্যে না আসা পর্যন্ত শ্রাবন্তীকে দফায় দফায় ডেকে পাঠানো হবে। জিজ্ঞাসাবাদ থেকে কী তথ্য উঠে এসেছে? ভারতের দপ্তর সূত্রে প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, শ্রাবন্তী না বুঝেই ব্যাপারটি ঘটিয়ে ফেলেছেন। বেআইনি ভাবে তিনি কোনও বন্যপ্রাণী বাড়িতে লুকিয়ে রাখেননি বা পুষছেন না। শ্যুটিংয়ের জন্যই গলায় শিকল জড়ানো বেজি তার হাতে পৌঁছোয়। ছোট্টখাট্টো প্রাণীটিকে তার ভীষণ ভাল লেগে যায়। তিনি বেজির সঙ্গে ছবি তুলে ভাগ করে নেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। যা দেখে হইহই করে ওঠেন পশুপ্রেমীরা। তাদের দাবি, এই ধরনের অমানবিক আচরণ কী করে সমর্থন করলেন শ্রাবন্তী? আপাতত প্রশ্ন, প্রাণীটি কী করে অভিনেত্রীর হাতে এসে পৌঁছোল? তা জানার চেষ্টায় দপ্তর। যত দিন সদুত্তর না মিলছে, তত দিন দপ্তর ডাকবে শ্রাবন্তীকে। তাকেও হাজিরা দিতে হবে। জানা গেছে, সম্ভবত শ্রাবন্তীর কোনও গাড়ির চালকের মারফত বেজিটি তার হাতে এসে পৌঁছয়। যদি অভিনেত্রীর সঙ্গে অপরাধের কোনও প্রত্যক্ষ যোগ না থাকে তা হলেও কি শাস্তি পাবেন তিনি? এ বিষয়ে এখনই মুখ খুলতে নারাজ দপ্তর। বক্তব্য, আগে প্রকৃত সত্য প্রকাশ্যে আসুক। তার পর বিবেচ্য, কী হবে। সূত্র: আনন্দবাজার

Girl in a jacket

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।