চুয়াডাঙ্গা বৃহস্পতিবার , ২৫ আগস্ট ২০১৬
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বিশ্বজুড়ে ভূমিকম্প ইতালিতে নিহত ৭৩ : সারাদেশে আতঙ্কের কম্পন

সমীকরণ প্রতিবেদন
আগস্ট ২৫, ২০১৬ ১০:৫১ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

সমীকরণ ডেস্ক: টানা দ্বিতীয় দিনের মতো ভূমিকম্পে কেঁপে উঠলো রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশ। মঙ্গলবার সকালে মাঝারি পাল্লার ভূমিকম্পের পর বুধবার বিকালে শক্তিশালী আরেকটি ভূমিকম্প আঘাত হানে। এর মাত্রা ছিল রিকটার স্কেলে ৬ দশমিক ৮। এর উৎপত্তিস্থল ছিল মিয়ানমারের মধ্যাঞ্চলে। যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা ইউএসজিএস জানায়, বুধবার বিকাল ৪টা ৩৪ মিনিট ৫৫ সেকেন্ডে উত্তর-মধ্য মিয়ানমারের বন্দরনগরী (নদীবন্দর) চাউক থেকে ২৪ কিলোমিটার দূরে ভূমিকম্পটি অনুভূত হয়। রিখটার স্কেলে ৬ দশমিক ৮ মাত্রার এ ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল ছিল ভূপৃষ্ঠের ৮৪ কিলোমিটার গভীরে। ঢাকা থেকে এটির উৎপত্তিস্থলের দূরত্ব ৩৩২ কিলোমিটার। ঢাকা ছাড়াও বন্দরনগরী চট্টগ্রাম, খুলনা, রাজশাহী, নেত্রকোনা, ফরিদপুর, ফেনী, সাতক্ষীরা, যশোরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে এ ভূমিকম্প অনুভূত হওয়ার খবর দেন আমাদের প্রতিবেদকরা। তবে দেশের কোথাও কোনো ধরনের ক্ষয়ক্ষতির খবর পাননি বলেও জানান তারা। বিভিন্ন দেশের সংবাদমাধ্যম জানায়, ভূমিকম্পে ভারতের বিহার, আসাম, পশ্চিমবঙ্গ, ছত্তিশগড়সহ উত্তর-পূর্বাঞ্চলের বিভিন্ন এলাকা কেঁপে ওঠে। কেঁপে ওঠে জাপান, আফগানিস্তান, ইন্দোনেশিয়া, পাপুয়া নিউগিনি, ইতালি, যুক্তরাষ্ট্রের আলাস্কা, ফিজি, ফিলিপাইন, ভানুয়াতু, লাওস, চীন ও থাইল্যান্ডের ব্যাংককসহ সংলগ্ন অনেক অঞ্চল। কম্পনের ফলে কর্মস্থল থেকে খোলা ময়দান বা রাস্তায় নেমে আসে আতঙ্কিত মানুষ। মিয়ানমারের সংবাদমাধ্যম জানায়, ভূমিকম্পে দেশটির একটি প্রাচীন মন্দিরের অনেকখানি ধসে পড়ে। চাউক এলাকায় মানুষের মধ্যে হুড়োহুড়ি শুরু হয়। তবে তৎক্ষণাৎ কোনো হতাহতের খবর মেলেনি। এর আগে মঙ্গলবার সকাল ৮টা ১৫ মিনিটে ৫ দশমিক ৩ মাত্রার একটি ভূমিকম্প অনুভূত হয় মিয়ানমারে। ঢাকা থেকে ৪০৯ কিলোমিটার পূর্বে দেশটির মাওলায়েকের ৪০ কিলোমিটার উত্তর-পূর্বে আঘাত হানা ওই ভূমিকম্পে কেঁপে ওঠে ঢাকাসহ দেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চল। ভূমিকম্পে সবচেয়ে বেশি প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে ইতালিতে। সেখানে অন্তত ৭৩ জন মারা গেছে। জাপানে ৪.৮ মাত্রার, আফগানিস্তান ৪.৫, ইতালিতে ৬.২, ফিজিতে ৪.৪, ফিলিপাইনে ৪.৬, ভানুয়াতুতে ৪.৭, পাপুয়া নিউগিনিতে ৫.২, ইন্দোনেশিয়ায় ৬.২, চিলিতে ৪.৬ মাত্রার ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে। মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ জানিয়েছে ইতালির রাজধানী রোমের ১৭০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে উমব্রিয়া প্রদেশের পেরুজিয়া শহরের নোরসিকা টাউনে ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। এর উৎপত্তিস্থল ছিল ভূপৃষ্ঠের ১০ কিলোমিটার গভীরে। ভূমিকম্পটি অনুভূত হওয়ার ঘণ্টা পর একই এলাকায় কয়েকটি আফটার শক হয়। যার মধ্যে তীব্রতর শকটি ছিল ৫ দশমিক ৫ মাত্রার। ইতালির ফায়ার সার্ভিসের মুখপাত্র লুকা কারির বরাতে রয়টার্স জানিয়েছে, ভূমিকম্পে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে অ্যাকুমোলি, আমাত্রিসি, পোস্তা এবং আরকুয়াটা দেল টরোনটো এলাকা। এসব এলাকার ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণে প্রাথমিকভাবে হেলিকপ্টার ব্যবহার করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। আমাত্রিসি টাউনের মেয়র সের্গিও পিরোজ্জি রাষ্ট্রীয় আরএআই টেলিভিশনকে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির বর্ণনা দিয়ে বলেন, টাউনের অর্ধেকই ধ্বংস হয়ে গেছে। অনেক ঐতিহাসিক নিদর্শনও ধ্বংস হয়ে গেছে। ভূমিকম্পে ভূমিধসের ঘটনা ঘটেছে এবং সম্ভব একটি সেতু ধসে পড়েছে। অনেক মানুষ ধ্বংসস্তূপে আটকা পড়ে আছেন। তাদের উদ্ধারের চেষ্টা করা হচ্ছে। শহরের বিদ্যুৎ সংযোগ ধসে পড়ায় জরুরি উদ্ধার কাজ ব্যাহত হচ্ছে বলে জানান মেয়র পিরোজ্জি। ইতালির সংবাদপত্র লা রিপাবলিকার বরাতে বিবিসি জানিয়েছে, শক্তিশালী ভূমিকম্পটির তীব্রতায় রাজধানী রোমের কিছু ভবন ২০ সেকেন্ড ধরে কেঁপেছিল। বিবিসি জানিয়েছে, ভূমিকম্পের কারণে এ পর্যন্ত অন্তত ৭৩ জন মারা গেছে। এর মধ্যে একই অ্যাকুমোলি শহরে পরিবারের চার সদস্য একটি দেয়ালের নিচে চাপা পড়েছিল বলে জানিয়েছেন শহরটির মেয়র স্টেফানো পেত্রোসি। অন্যদিকে পেসকারা দেল টরেন্টো গ্রামের কাছে দুজন মারা গেছেন।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।