চুয়াডাঙ্গা রবিবার , ১৪ নভেম্বর ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বিশ্বকাপের নতুন চ্যাম্পিয়ন কে?

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
নভেম্বর ১৪, ২০২১ ৭:৪১ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনাল যে এশিয়ার বাইরের দুটি দল নিয়ে হবে, এ কথা হয়তো অনেকেই ভাবেননি। ফাইনাল হচ্ছে, অথচ ‘ঘরের মাঠে’ নেই পাকিস্তান, ভারত, শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ। সংযুক্ত আরব আমিরাত তো ঘরের মাঠই। পাকিস্তান, ভারত ও শ্রীলঙ্কার এসব মাঠে খেলার অনেক অভিজ্ঞতা। আর পাকিস্তানের কথা তো বলাই বাহুল্য। গত কয়েক বছর ধরে তাদের প্রায় সব খেলাই গড়িয়েছে আরব আমিরাতের মাঠে। কিন্তু ফাইনাল হচ্ছে, অথচ এশিয়ার কোনো দল থাকছে না। খেলা হবে নিউজিল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে। কে জিতবে- এ ভবিষ্যদ্বানী করা খুবই দুরুহ। কারণ, এবার বিশ্বকাপের মঞ্চ থেকে ফেবারিটরাই আগে বিদায় নিয়েছে। যে দুই দলের মধ্যে ফাইনাল হচ্ছে, তাদেরকে ফেবারিটের তালিকায় রাখা হয়নি শুরুতে। তারা ফেবারিটদের হারিয়ে ফাইনালের মাঠে নামছে। দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজ রোববার বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় শুরু হবে ম্যাচটি। এর আগে বিশ্বকাপের ছয়টি আসর অনুষ্ঠিত হয়েছিল। কোনবারই শিরোপার স্বাদ নিতে পারেনি দুই ফাইনালিষ্ট। এ কারণে প্রথমবারের মত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শিরোপা জিততে মরিয়া নিউজিল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া উভয় দলই। তবে অস্ট্রেলিয়ার জন্য এটা দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনাল। এর আগে ২০১০ সালে ফাইনালে উঠলেও শিরোপার স্বাদ পায়নি অজিরা। ইংল্যান্ডের কাছে ৭ উইকেটে হেরে গিয়েছিল তারা। সুপার টুয়েলভে ৫ ম্যাচের চারটিতে জিতে ৮ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ রানার্স-আপ হয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছিল অস্ট্রেলিয়া। সেমিতে অস্ট্রেলিয়ার প্রতিপক্ষ ছিলো শক্তিশালী পাকিস্তান। বেশিরভাগ সময়ই সেমির ম্যাচে আধিপত্য বিস্তার করে খেলেছে পাকিস্তান। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। অস্ট্রেলিয়ার দুই ব্যাটার মার্কাস স্টয়নিস ও ম্যাথু ওয়েড জয় ছিনিয়ে নেন। ষষ্ঠ উইকেটে ৪১ বলে অবিচ্ছিন্ন ৮১ রানের জুটি গড়ে সেমির লড়াইয়ে অস্ট্রেলিয়ার জয় নিশ্চিত করেন এ দুই অজি ব্যাটার। সেমিফাইনালে স্টয়নিস ও ওয়েডের পাশাপাশি হেসেছে ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নারের ব্যাটও। ৩০ বলে তিনটি করে চার-ছক্কায় ৪৯ রান করেছিলেন ওয়ার্নার। এ ইনিংসের মাধ্যমে এবারের আসরে এ পর্যন্ত ৬ ইনিংসে ২৩৬ রান করেন ওয়ার্নার। ফাইনালের মঞ্চে আরও একবার ওয়ার্নারের জ্বলে উঠার অপেক্ষায় থাকবে অস্ট্রেলিয়া। অপরদিকে নিউজিল্যান্ডও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জিততে মরিয়া। তারা শক্তিশালী ইংল্যান্ডকে সেমিতে হারিয়েছে। সুপার টুয়েলভে তারা ভারতকেও হারিয়েছে। সেমিতে ওপেনার ড্যারিল মিচেল ও জেমস নিশামের ব্যাটিং দৃঢ়তায় ইংল্যান্ডকে ৫ উইকেটে হারায় নিউজিল্যান্ড। প্রথমে ব্যাট করে ২০ ওভারে ৪ উইকেটে ১৬৬ রান করেছিলো ইংল্যান্ড। ইংলিশদের রানকে টপকে যেতে গিয়ে শুরুতেই ব্যাকফুটে চলে যায় নিউজিল্যান্ড। ১৩ রানের মধ্যে মার্টিন গাপটিল ও উইলিয়ামসনের উইকেট হারায় কিউইরা। শুরুর ধাক্কাটা পরবর্তীতে কাটিয়ে উঠেন মিচেল ও ডেভন কনওয়ে। ৬৭ বলে ৮২ রানের জুটি গড়েন তারা। ৩৮ বলে ৪৬ রান করে থামেন কনওয়ে। এরপর ব্যাট হাতে দ্রুত রান তুলে নিউজিল্যান্ডকে লড়াইয়ে ফেরান ১১ বলে ২৭ রান করে নিশাম। আর ১৯তম ওভার পর্যন্ত ক্রিজে থেকে নিউজিল্যান্ডের জয় নিশ্চিত করেন মিচেল। শেষ চারে অপরাজিত ৭২ রান করে নিউজিল্যান্ডকে প্রথমবারের মত ফাইনালে তোলেন তিনি। নিউজিল্যান্ড: কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), টড অ্যাস্টল, ট্রেন্ট বোল্ট, মার্ক চ্যাপম্যান, এডাম মিলনে, মার্টিন গাপটিল, কাইল জেমিসন, ড্যারিল মিচেল, জেমস নিশাম, গ্লেন ফিলিপস, মিচেল স্যান্টনার, টিম সেইফার্ট, ইশ সোধি ও টিম সাউদি। অস্ট্রেলিয়া: অ্যারন ফিঞ্চ (অধিনায়ক), অ্যাস্টন অ্যাগার, প্যাট কামিন্স, জস হ্যাজেলউড, জস ইংলিস, মিচেল মার্শ, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, কেন রিচার্ডসন, স্টিভেন স্মিথ, মিচেল স্টার্ক, মার্কুস স্টয়নিস, মিচেল সুয়েপসন, ম্যাথু ওয়েড, ডেভিড ওয়ার্নার এবং এডাম জাম্পা।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।