চুয়াডাঙ্গা বুধবার , ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বিনা টেন্ডারে কেনা হচ্ছে ১৬৫ কোটি টাকার মসুর ডাল

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২২ ৯:০৩ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

Girl in a jacket

সমীকরণ প্রতিবেদন: বিনা টেন্ডারে ১৬৫ কোটি টাকার মসুর ডাল কেনা হচ্ছে। ১৫ হাজার টন ডাল কেনা হবে। ঢাকা ও চট্টগ্রামের তিন ব্যবসায়ী গ্রুপের কাছ থেকে এই ডাল প্রতি কেজি ১১০ টাকা দরে কিনতে হবে। বাংলাদেশ ট্রেডিং করপোরেশনের (টিসিবি) জন্য এই ডাল কেনা হবে। ডাল কেনার এই প্রস্তাব আজ বুধবার সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে অনুমোদনের জন্য উত্থাপন করা হচ্ছে বলে জানা গেছে। অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে সভাটি ভার্চুয়াল ফরমেটে অনুষ্ঠিত হবে সচিবালয়ে।

এ বিষয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, টিসিবির ফ্যামিলি কার্ডধারী সারা দেশে নিম্নআয়ের এক কোটি পরিবারের মাঝে প্রতি মাসে ভর্তুকি দামে টিসিবির পণ্য বিক্রির সরকারি নির্দেশনা রয়েছে। এই নির্দেশনার আলোকে অনুমোদিত ক্রয় পরিকল্পনার বিপরীতে সাধারণত উন্মুক্ত দরপত্র আহ্বানের মাধ্যমে পণ্য কেনা হয়ে থাকে। উন্মুক্ত দরপত্রে কেনার ক্ষেত্রে নির্ধারিত সময়ের আগে পণ্য সরবরাহ পাওয়া যায় না। প্রতি মাসে পণ্য বিক্রির নিশ্চয়তার লক্ষ্যে সময় স্বল্পতা এবং জরুরি প্রয়োজন বিবেচনায় উন্মুক্ত দরপত্রের পরিবর্তে সরাসরি ক্রয় পদ্ধতিতে টিসিবি কর্তৃক স্থানীয়ভাবে তিনটি সরবরাহকারীর কাছ থেকে এই ডাল সংগ্রহ করা হবে।

জানা গেছে, প্রথম প্যাকেজে সরাসরি দরপত্রে অংশ নিয়ে চট্টগ্রামভিত্তিক ‘রুবি ফুড প্রডাক্টস’ পাঁচ হাজার টন মসুর ডাল সরবরাহ করবে। দরপত্রে প্রতিষ্ঠানটি প্রতি কেজি ডালের দাম ১১১ দশমিক ৫০ টাকা উল্লেখ করে। তবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ নেগোসিয়েশনের মাধ্যমে প্রতি কেজি ১১০ টাকা নির্ধারণ করে। সে হিসাবে পাঁচ হাজার টন মসুর ডালে ব্যয় হবে ৫৫ কোটি টাকা।

দ্বিতীয় প্যাকেজে সরাসরি দরপত্রে অংশ নিয়ে চট্টগ্রামভিত্তিক মেসার্স মাসুদ অ্যান্ড ব্রাদার্স পাঁচ হাজার টন মসুর ডাল সরবরাহ করবে। দরপত্রে প্রতিষ্ঠানটি প্রতি কেজি ডালের দাম ১১১ দশমিক ৫০ টাকা উল্লেখ করে। তবে নেগোসিয়েশনের মাধ্যমে প্রতি কেজি ১১০ টাকা নির্ধারণ করা হয়। সে হিসাবে পাঁচ হাজার টন মসুর ডালে ব্যয় হবে ৫৫ কোটি টাকা।

সূত্র জানায়, সরাসরি দরপত্রে অংশ নিয়ে ঢাকার ব্লু স্কাই এন্টারপ্রাইজ পাঁচ হাজার টন মসুর ডাল সরবরাহ করবে। দরপত্রে প্রতিষ্ঠানটি প্রতি কেজির দাম ১১১ দশমিক ৫০ টাকা উল্লেখ করে। তবে নেগোসিয়েশনের মাধ্যমে প্রতি কেজি ১১০ টাকা নির্ধারণ করা হয়। সে হিসাবে পাঁচ হাজার টন মসুর ডালেও ব্যয় হবে ৫৫ কোটি টাকা।

সূত্র জানায়, সরকারি ক্রয় বিধি-১৬(৫ক) অনুযায়ী অফিসিয়াল কস্ট এস্টিমেট করা হয়েছে। দরপ্রস্তাব খোলার সময় সব সদস্যের স্বাক্ষরিত অফিসিয়াল কস্ট এস্টিমেট খোলা হয়। মূল্যায়ন কমিটি কর্তৃক নির্ধারিত মূল্য ১১০ টাকা। অফিসিয়াল কস্ট এস্টিমেট দুই কেজি প্যাকেটে প্রতি কেজি মসুর ডালের দাফতরিক প্রাক্কলিত মূল্য ১৩১ দশমিক ৮১ টাকা। দরপ্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি কর্তৃক নির্ধারিত প্রতি কেজি মসুর ডালের দর ও দাফতরিক প্রাক্কলিত দরে প্রতি কেজির পার্থক্য (১৩১.৮১-১১০.০০) বা ২১ দশমিক ৮১ টাকা কম দামে দুই কেজির প্যাকেটে ২০ কেজির বস্তায় ১৫ হাজার টন মসুর ডাল কেনা হবে। এতে খরচ হবে ১৬৫ কোটি টাকা।

Girl in a jacket

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।