বিনামূল্যে পাওয়া যাবে অক্সিজেন, ওষুধ সামগ্রী ও টিকার নিবন্ধন

22

করোনাকালে চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির কার্যালয়কে কোভিড-১৯ হেল্প সেন্টার ঘোষণা
বাবু খান ও শরীফুজ্জামান বললেন, বিএনপির নেতা-কর্মীরা সবসময় সাধারণ মানুষের পাশে ছিল এবং আছে
নিজস্ব প্রতিবেদক:
করোনা মহামারিতে চুয়াডাঙ্গাবাসীর জন্য বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার কার্যালয়কে কোভিড-১৯ হেল্প সেন্টার ঘোষণা করা হয়েছে। গতকাল সোমবার বেলা ১১টায় চুয়াডাঙ্গা রজব আলী সুপার মার্কেটস্থ জেলা বিএনপির কার্যালয়ে ‘আপনার সেবায় পাশে আছি আমরা’ স্লোগানে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে এ কোভিড হেল্প সেন্টারের উদ্বোধন করা হয়। হেল্প সেন্টার থেকে ২৪ ঘণ্টা করোনা রোগীদের জন্য বিনামূল্যে অক্সিজেন সেবা প্রদান, জরুরি ওষুধ সামগ্রী প্রদান, মাস্ক প্রদান, টিকার জন্য নিবন্ধন করাসহ করোনাকালে বিভিন্ন সেবামূলক কাজ করবেন জেলা বিএনপির নেতা-কর্মীরা।
ভার্চুয়ালভাবে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন কেন্দ্রীয় বিএনপির উপ-কোষাধ্যক্ষ, জেলা বিএনপির আহ্বায়ক ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনে বিএনপি মনোনীত ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী মাহমুদ হাসান খান বাবু।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, করোনা মহামারির শুরু থেকেই আমরা মানুষকে সেবা দিয়ে যাচ্ছি। সবসময় বিএনপির নেতা-কর্মীরা সাধারণ মানুষের পাশে ছিল এবং আছে। বিএনপির নেতা-কর্মীরা জিয়াউর রহমানের আদর্শে রাজনীতি করে। আর জিয়াউর রহমানের আদর্শ আমাদেরকে শেখায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে। আমরা মানুষের পাশে সবসময় ছিলাম এবং আছি। তিনি আরও বলেন, করোনা আক্রান্ত রোগীদের পরিবার এখানে যোগাযোগ করলে তাদের স্বাস্থ্যসেবাসহ প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করা হবে। বিনামূল্যে অক্সিজেন সিলিন্ডার, অক্সি মিটার, মাস্ক ও টিকার রেজিস্ট্রেশনের বিষয়েও সহযোগিতা করা হবে।
বিশেষ অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালভাবে বক্তব্য দেন জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চুয়াডাঙ্গা-১ আসনে বিএনপি মনোনীত ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী শরীফুজ্জামান শরীফ।
তিনি বলেন, চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপি সবসময় মানুষের পাশে ছিল। বিএনপির নেতা-কর্মীরা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের আদর্শ মেনে চলে। যে আদর্শ আমাদেরকে সবসময় জনগণের কথা ভাবতে শিখিয়েছে। তাই তো করোনা মহামারির শুরু থেকেই চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপিসহ বিভিন্ন শাখার নেতা-কর্মীরা মানুষের জন্য স্বেচ্ছাশ্রম দিয়ে যাচ্ছে। আমরা যে যা পারি, সীমিত সামর্থের মধ্যে হলেও মানুষজনকে সহযোগিতার ব্যবস্থা করেছি। একটা বিরোধী দল হিসেবে এত কষ্টের মধ্যেও আমরা করোনা রোগীদের পাশে আছি এবং কাজ করে যাচ্ছি। এবার জেলা বিএনপির কার্যালয়কেই কোভিড-১৯ হেল্প সেন্টার ঘোষণা করে চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপি আবারও প্রমাণ করল বিএনপি মানুষের কথা ভাবে, জনগণের সেবার কথা ভাবে।


উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটি সভাপতিত্ব করেন জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ও পৌর নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম মণি। জেলা জাসাসের সাধারণ সম্পাদক সেলিমুল হাবিব সেলিমের পরিচালনায় বক্তব্য দেন চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আবুবক্কর সিদ্দিক আবু, আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ও ডাউকি ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল জব্বার বাবলু, আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ও আলমডাঙ্গা পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আজিজুর রহমান পিণ্টু, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা বিএনপির সাবেক সিনিয়র সহসভাপতি ও কুতুবপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম নজু, আলমডাঙ্গা উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি ও জেহালা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আমিনুল হক রোকন, সহসভাপতি আখতারুজ্জামান আখতার, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিকুল ইসলাম পিটু, জেলা যুবদলের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও চিৎলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম বিপ্লব, মহিলা দলের নেত্রী ও চুয়াডাঙ্গা পৌর কাউন্সিলর শেফালী বেগম, চুয়াডাঙ্গা পৌর বিএনপির সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি ইন্তাজ আলী, সহসভাপতি খাইরুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, আলমডাঙ্গা পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি আনিসুর রহমান, সহসভাপতি জিল্লুর রহমান ওল্টু ও জেলা যুবদলের সাংগাঠনিক সম্পাদক জাহেদ মোহাম্মদ রাজিব খান। এছাড়া অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক আমানুল্লাহ আমান।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জেলা নাগরিক সমাজের সভাপতি মনিরুজ্জামান লিপটন, জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি হাবিবুর রহমান সাদিদ, যুগ্ম আহ্বায়ক আশাদুল হক বটুল, বাড়াদী ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ও ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান তোবারক হোসেন, আইলহাঁস ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান মিনহাজ মাস্টার, সাধারণ সম্পাদক হারুন, কালিদাস ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ও শ্রমিক নেতা আইনাল হোসেন, বেলগাছি ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ঝণ্টু বিশ্বাস, খাসকররা ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি মানোয়ার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক রাজা, গাংনী ইউনিয়ন বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি সেলিমউদ্দিন সেলিম, হামিদুল ইসলাম, খাদিমপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি শেরেকুল ইসলাম বিশ্বাস, ভাঙবাড়িয়া ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি টিপু সুলতান টিপু, জান মোহাম্মদ, জামজামি ইউনিয়ন বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি আলম শাহ, সদর উপজেলার পদ্মবিলা ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি সালাউদ্দিন, হিমু জোয়াদ্দার, মোমিনপুর ইউনিয়ন বিএনপির নেতা সানোয়ার মেম্বার, দিননাথপুর-মাখালডাঙ্গা ইউনিয়ন বিএনপি নেতা মাহিবুল রহমান মাহাবুব, শংকরচন্দ্র ইউনিয়নের জামান মনি, আশারাফুল রুবেল, জেলা যুবদলের অর্ধ সম্পাদক মোমিনুল ইসলাম মমিন, জেলা যুবদলের গ্রাম বিষয়ক সম্পদক ইকরামুল হক ইকরা, জেলা যুবদলের সদস্য খাইরুল ইসলাম খাইরুল, চুয়াডাঙ্গা পৌর যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক অপু মালিক, আলমডাঙ্গা পৌর যুবদলের সদস্য সচিব সাইফুল আলম কনক, আবিদ হাসান, শাহীন আহমেদ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগাঠনিক সম্পাদক শামিম হাসান টুটুল, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের দপ্তর সম্পাদক মাবুদ মালিক, শিল্প বিষয়ক সম্পাদক শাহাজামাল, তাতীবিষয়ক সম্পাদক মহাসিন আলী, রুবেল হাসান, আব্দুর রশিদ, বিল্লাল হোসেন, জাভেদ, তুহিন ইসলাম, জেলা ছাত্রদলের সহ-সভাপতি এ এইস এম মোস্তফা, মতিউর রহমান মিশর, আরিফ আহমেদ শিপলব, রাসিব আহমেদ, জেলা ছাত্রদলের আইনবিষয়ক সম্পাদক কাউসার আহমেদ জীবন, পৌর ছাত্রদলের আহবায়ক কৌশিক আহমেদ রানা, সদস্য মাজেদুল আলম মেহেদী, সরকারি কলেজ ছাত্রদলের সদস্যসচিব সাইমুম সাইমুম, শাহারুক আহমেদ, সম্পদ হোসেন সম্পদ, আকাশ, সংগীত, অন্তর। পবিত্র কোরআন থেকে তিলাওয়াত করেন জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা তুহিন হোসেন।