বিজিবি ডিজি’র বক্তব্য বিকৃত করে প্রচার ॥ ডালিম ও পিপুলসহ ৬ সাংবাদিককে তলব ভুল স্বীকার করে সংশোধনী প্রচারের শর্তে নিষ্পত্তি

405

বিজিবি ডিজি’র বক্তব্য বিকৃত করে প্রচার ॥ ডালিম ও পিপুলসহ ৬ সাংবাদিককে তলব
ভুল স্বীকার করে সংশোধনী প্রচারের শর্তে নিষ্পত্তি
নিজস্ব প্রতিবেদক: বিজিবি মহাপরিচালকের বক্তব্য বিকৃতভাবে প্রচার ও প্রকাশের ব্যাখ্যা চাইতে যমুনা টিভির চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রতিনিধি আরিফুল ইসলাম ডালিম যুগান্তর প্রতিনিধি একরামুল হক পিপুলসহ ৬ সাংবাদিককে তলব করে বিজিবি। গতকাল সন্ধ্যার পরপরই এদের দর্শনা চেকপোস্টে অবস্থিত আন্তজার্তিক সম্মেলন কেন্দ্রে ডেকে পাঠানো হয়।  এসময় সেখানে বিজিবি’র পদস্থ কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন বলে জানা যায়।
গত ১ ফেব্রুয়ারী দর্শনা বিওপির একটি নতুন ভবনের উদ্বোধন ও রুটিন সফরে এসে ছিলেন বিজিবি’র মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আবুল হোসেন। ওই অনুষ্ঠানে কোন সাংবাদিককে আমন্ত্রণ না জানানো হলেও বেশ ক’জন সাংবাদিক স্বেচ্ছায় সেখানে উপস্থিত হয়ে বিজিবি’র মহাপরিচালককে প্রশ্ন করার সুযোগ চান। প্রথমে তিনি সাংবাদিকদের এই আবদারে রাজি না হলেও তাদের পীড়াপিড়ির এক পর্যায়ে প্রশ্নের সুযোগ দেন। এসময় একজন সাংবাদিক তাঁর কাছে সীমান্ত হত্যা সম্পর্কে প্রশ্ন করলে বিজিবি ডিজি বলেছিলেন, বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত সংক্রান্ত দু’দেশের আলোচনায় সীমান্ত হত্যা বন্ধে বাংলাদেশের দাবীর প্রেক্ষিতে  ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ’র মহাপরিচালক বলেছেন, ‘আত্মরক্ষার প্রয়োজনেই বিএসএফ সীমান্তে গুলি করতে বাধ্য হয়’। কিন্তু বিএসএফ’র এই বক্তব্যের সাথে আমরা কোনভাবেই একমত নই। সীমান্ত হত্যা বন্ধে বিজিবি বদ্ধ পরিকর এবং এব্যাপারে আমাদের অবস্থান জিরো টলারেন্স। অথচ বিজিবি মহাপরিচালকের এই বক্তব্যকে বিকৃত আকারে ওইদিনই একটি টিভি চ্যানেলসহ কয়েকটি অনলাইন সংবাদপত্রে প্রকাশ ও প্রচার করা হয়। যা শুধু একটি বাহিনীরই নয়, দেশেরও ভাবমূর্তি ক্ষুন্নের সামিল। ফলে বিজিবি ওই সাংবাদিকদের ডেকে তাদের কাছে বিজিবি মহাপরিচালককে উদ্ধৃত করে বিভিন্ন মাধ্যমে প্রকাশিত ও প্রচারিত সংবাদের সত্যতা নিশ্চিতে তথ্য দাবী করেন এবং ডিজি’র বক্তব্যের ভিডিও ফুটেজ দেখতে চান। ভিডিও ফুটেজে দেখা যায় বিজিবি ডিজিকে উদ্ধৃত করে তাঁর যে বক্তব্য প্রচার করা হয়েছে তা বিকৃতির সামিল ও জাতীয় স্বার্থের পরিপন্থী। এসময় সেখানে উপস্থিত সাংবাদিকদের একজন নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান ওই সাংবাদিকেরা নিজেদের ভুল স্বীকার করে বলেন তারা যমুনা টিভির জেলা প্রতিনিধি ডালিমের প্রেরিত সংবাদ তাদের অনলাইন সংবাদপত্রে প্রেরণ করেছেন- যা ভুল হয়েছে। পরে আরিফুল ইসলাম ডালিম ও একরামুল হক পিপুলসহ ৬ সাংবাদিক নিজ নিজ মিডিয়ায় ভুল সংশোধনী আকারে প্রচার ও প্রকাশের অঙ্গীকারে বিষয়টির নিষ্পত্তি হয়।