চুয়াডাঙ্গা বৃহস্পতিবার , ১২ জানুয়ারি ২০২৩
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বিএনপি ক্ষমতায় গেলে দেশ ধ্বংস হয়ে যাবে: ওবায়দুল কাদের

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
জানুয়ারি ১২, ২০২৩ ১২:০৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

Girl in a jacket

সমীকরণ প্রতিবেদন:

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি রাষ্ট্রকে মেরামত করবে? আবার ক্ষমতা পেলে তারা রাষ্ট্রকে ধ্বংস করবে। এ দেশের গণতন্ত্র বাঁচবে না। তারা ক্ষমতায় এলে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাঁচবে না। তারা ক্ষমতায় এলে স্বাধীনতার আদর্শ বাঁচবে না। তারা ক্ষমতায় এলে গণতন্ত্রের বস্ত্রহানি ঘটবে। আগুন সন্ত্রাসী, জঙ্গিবাদের পৃষ্ঠপোষক, সাম্প্রদায়িকতার পৃষ্ঠপোষক বিএনপির হাতে আমরা ক্ষমতা তুলে দিতে পারি না। গতকাল বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ এই আলোচনা সভার আয়োজন করে। গতকাল ছিল বিএনপির সারা দেশে গণ-অবস্থান কর্মসূচি। আওয়ামী লীগ মূলত রাজনৈতিক শক্তি প্রদর্শনের জন্য এই পাল্টা কর্মসূচির মাধ্যমে রাজপথে সক্রিয় ভূমিকা পালন করে। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ ছাড়াও রাজধানীর ফার্মগেটে যুবলীগ, শাহবাগে ছাত্রলীগ, শাহআলী থানার চিড়িয়াখানা রোডের ঈদগাহ মাঠে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ সভা সমাবেশ পালন করে। এ ছাড়াও যাত্রাবাড়ী, ওয়ারী, উত্তরাসহ রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে সরকারি দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা সতর্ক পাহারায় অবস্থান করেন। বিএনপিকে উদ্দেশ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, খেলা হবে দুর্নীতি, লুটপাট, দুঃশাসনের বিরুদ্ধে খেলা হবে। যারা সহস্র জননীর বুক খালি করেছে তাদের বিরুদ্ধে খেলা হবে। আপনারা ক্ষমতায় থাকতে যতটুকু ধ্বংস করেছেন তা মেরামত করেছেন শেখ হাসিনা। এক দিনে শত সেতু, শত রাস্তা উদ্বোধন করেছেন শেখ হাসিনা। শেখ হাসিনা পারে, শেখ হাসিনাই পারবে। আসুন তার হাতকে শক্তিশালী করি। ১০ জানুয়ারি বিজয়ী বাংলাদেশের শুভ যাত্রা হয়েছিল- এ কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাংলাদেশের আরেক নাম বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। এই জনপদ যত দিন থাকবে তত দিন বঙ্গবন্ধু থাকবেন। ইতিহাসের এই দিনে স্বাধীনতা অপূর্ণতা থেকে পূর্ণতা পেয়েছিল। বিএনপির গণ-অবস্থান কর্মসূচিকে ইঙ্গিত করে ওবায়দুল কাদের বলেন, পল্টনে মোটামুটি একটা সমাবেশ হয়েছে। ১২ দলীয় জোট সমাবেশ করছে বিজয়নগরে সব মিলিয়ে ২৪ জন। সাত দলীয় জোট চেয়ার পেতে প্রেস ক্লাবে বসেছে। মঞ্চে ২০ জন আর সামনে সাংবাদিকসহ ১৫ জন। তিনি আরো বলেন, শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে ৫৪ দল এক হয়েছে। ৫৪ দল কি করবে, ঘোড়ার ডিম পাড়বে? ৫৪টি বিরোধী রাজনৈতিক দল ৫৪টি ডিম পাড়বে। পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, গতকাল আমাদের কেন্দ্র করেছে, আজকে মহানগর এবং অন্যান্য সংগঠন করছে। এটা আমাদের কর্মসূচি। এখানে পাল্টাপাল্টির কোনো বিষয় নেই। কার সাথে পাল্টাপাল্টি করব, কিসের পাল্টাপাল্টি করব। ১০ ডিসেম্বর তো এই নগরীতে বিজয় মিছিল হবে। ১০ জানুয়ারি তো এমনও কথা ছিল তারেক রহমান এসে নেতৃত্ব দেবেন। ১০ ডিসেম্বর এমনও কথা ছিল, খালেদা জিয়া জেল থেকে এসে বিজয় মিছিলের নেতৃত্ব দেবেন। সরকারের পতন অনিবার্য। কী হলো? ১০ ডিসেম্বর ভুয়া, ৩০ ডিসেম্বর ভুয়া। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমেদ মন্নাফীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম ও আব্দুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ ও ডা: দীপু মনি, সাংগঠনিক সম্পাদক আফজাল হোসেন, দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মেহের আফরোজ চুমকী প্রমুখ।

Girl in a jacket

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।