চুয়াডাঙ্গা রবিবার , ২৭ ডিসেম্বর ২০২০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বিএনপির একক প্রার্থী মনি, ধানের শীষে ভোট দিয়ে তাকে বিজয়ী করুন

সমীকরণ প্রতিবেদন
ডিসেম্বর ২৭, ২০২০ ১০:২৫ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

চুয়াডাঙ্গা পৌর নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীকের পক্ষে গণসংযোগ ও পথসভায় বিএনপি নেতা শরীফ
সমীকরণ প্রতিবেদক:
চুয়াডাঙ্গা পৌরসভা নির্বাচনে (২৮ ডিসেম্বর) বিএনপি মনোনীত প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম মনির ধানের শীষ প্রতীককে জয়যুক্ত করতে ব্যাপক গণসংযোগ ও পথসভা করেছেন জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চুয়াডাঙ্গা-১ আসনে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী শরীফুজ্জামান শরীফ। গতকাল শনিবার বেলা ১১টায় জেলা শিল্পকলা একডেমি প্রাঙ্গণ থেকে বের হয়ে মেইন রোডের দু’পাশে, ফাতেমা প্লাজা, প্রিন্স প্লাজা, নিউ মার্কেট, বড় বাজার, নিচের বাজার, সোনাপট্টি হয়ে কোর্ট মোড় পর্যন্ত দোকানদার, পথচারী ও সাধারণ জনগণের হাতে লিফলেট বিতরণ ও ধানের শীষ প্রতীকের জন্য ভোট চান তিনি।
এসময় বিএনপি নেতা শরীফুজ্জামান শরীফ বলেন, ‘গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের লড়াইয়ে বিএনপির নেতা-কর্মীরা যে সংগ্রাম করে চলেছেন, ধানের শীষ হচ্ছে সেই সংগ্রামের প্রতীক। কোনো অপচেষ্টা করে বিএনপিকে থামানো যাবে না। বিএনপির নেতা-কর্মীরা জনগণকে উদ্বুদ্ধ করতে মানুষের দ্বারে দ্বারে যাবে, কেউ বাধা দিয়ে আটকাতে পারবে না। শহীদ জিয়াউর রহমানের আদর্শে আমরা যারা বিশ্বাস করি, সকলেই নিজ নিজ দায়িত্বে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ধানের শীষের দলীয় প্রার্থীকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করতে হবে।’ সিরাজুল ইসলাম মনি বিএনপির একক প্রার্থী, তাই বিভ্রান্ত না হয়ে ধানের শীষকে বিজয়ী করতে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।
পথসভায় জেলা বিএনপির সদস্য ও পৌর নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম মনি বলেন, ‘ধানের শীষ দলের প্রতীক, শহীদ জিয়াউর রহমান, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও আগামীর রাষ্ট্রনায়ক তারেক রহমানের প্রতীক। তাই ধানের শীষকে বিজয়ী করতে সকল পর্যায়ের নেতা-কর্মীদেরকে দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি।’
নির্বাচনী পথসভা ও নির্বাচনী প্রচারণায় অংশগ্রহণ করেন চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক খন্দকার আব্দুল জব্বার সোনা, পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি ও জেলা বিএনপির সদস্য শহিদুল ইসলাম রতন, জেলা বিএনপির সাবেক সহসভাপতি হাবিবুর রহমান মঙ্গল, জেলা বিএনপির সদস্য আব্দুল জব্বার বাবলু, আবু বকর সিদ্দিক আবু, শ্রী সুশীল কুমার দাস, বিএনপি নেতা মাহমুদুল হক পল্টু, রাফাতুল্লাহ মহলদার, সাবেক চেয়ারম্যান, কুদ্দুস মহলদার, হাসানুজ্জামান হাসান, ফিরোজ সরোয়ার রোমান, পৌর বিএনপির সাবেক সহসভাপতি খায়রুল ইসলাম, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, বিএনপি নেতা মনিরুজ্জামান লিপ্টন, বেলগাছি ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সভাপতি ঝন্টু মালিতা, আলুকদিয়া ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান, খাদিমপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সভাপতি সেরেগুল ইসলাম, টটন মেম্বার, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিকুল ইসলাম পিটু, সহসভাপতি হামিদুল হক টুটুল, ইসানুল হক স্বরাজ, হাফিজুর রহমান মুক্ত, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক মুনজুরুল জাহিদ, যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল হামিদ বাবু, শাহ জামাল, মহাসিন আলী, রুবেল হোসেন, জেলা যুবদলের সহসভাপতি তরিকুল ইসাম সোহেল, সাংগঠনিক সম্পাদক জাহেদ মো. রাজীব খান, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক আব্দুস সালাম বিপ্লব চেয়ারম্যান, যুগ্ম সম্পাদক হাফিজ উদ্দীন হাবলু, জেলা যুবদল নেতা শফিউল হক সালাম, মোকলেছুর রহমান মুকুল, মহাবুল হক, খায়রুল ইসলাম, রুবেল হোসেন, জেলা জাসাসের সাধারণ সম্পাদক সেলিমুল হাবীব সেলিম, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক মোমিন মালিতা, যুগ্ম সম্পাদক জুয়েল মাহমুদ, যুগ্ম সম্পাদক আমানউল্লাহ আমান, যুগ্ম সম্পাদক আরিফ আহমেদ শিপ্লব, চুয়াডাঙ্গা পৌর ছাত্রদলের আহ্বায়ক কৌশিক আহমেদ রানা, সদস্যসচিব মাজেদুল আলম মেহেদী, সদর উপজেলা ছাত্রদলের সদস্যসচিব মাহবুবুর রহমান, সরকারি কলেজ ছাত্রদলের সদস্যসচিব সাইমুম আরাফাত, জেলা ছাত্রদল নেতা এইচএম মোস্তফা, সাইমুজ্জামান মিশা, সাইমুম আহমেদ ইকবাল, আব্দুল হাদিদ জিতু, সাহাবুদ্দিন বুদ্দীন, সদর উপজেলা ছাত্রদলের ১নং যুগ্ম আহ্বায়ক আমির সোহেল, পৌর ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক সাহেদ সিদ্দিকী সোহেল, মোস্তাফিজুর রহমান কনক, আমিনুল ইসলাম সৌরভ, মাহফুজ আহমেদ, আলমডাঙ্গা উপজেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক জাহিদ হাসান শুভ, সদস্যসচিব আল ইমরান রাসেল, আলমডাঙ্গা পৌর ছাত্রদলের আহ্বায়ক আতিক হাসনাত রিংকু, সদস্যসচিব মাহমুদুল হক তন্ময়, আলমডাঙ্গা উপজেলা ছাত্রদলের ১নং যুগ্ম আহ্বায়ক মাসুদ রানা, যুগ্ম আহ্বায়ক বকুল হোসেন, রকিবুল হাসান টগর, পৌর ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান রাজু, আলমডাঙ্গা সরকারি কলেজ ছাত্রদলের সদস্যসচিব জাহাঙ্গীর আলম লিমন, চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজ ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক আরিফুল ইসলাম ও যুগ্ম আহ্বায়ক ইয়াসির আরাফাতসহ বিএনপি, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল ও ছাত্রদলের নেতা-কর্মীরা।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।