চুয়াডাঙ্গা শনিবার , ১৯ আগস্ট ২০১৭
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বন্যায় বিধ্বস্ত বাড়িঘর সড়ক ব্রিজ: ৬ দিনে ৭৫ জনের মৃত্যু

সমীকরণ প্রতিবেদন
আগস্ট ১৯, ২০১৭ ৫:৫৬ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

বন্যায় বিধ্বস্ত বাড়িঘর সড়ক ব্রিজ: ৬ দিনে ৭৫ জনের মৃত্যু
কয়েকটি স্থানে রেল চলাচলও বন্ধ : খাদ্য সংকট : ত্রাণের গাড়িতে কাড়াকাড়ি
2_149214সমীকরণ ডেস্ক: দেশের উত্তরাঞ্চলের কয়েকটি জেলায় বন্যার পানি কিছুটা কমতে শুরু করেছে। এতে এসব এলাকায় বেরিয়ে আসছে বন্যার ক্ষত। পানির তোড়ে ভেঙেচুরে একাকার হয়ে গেছে কাঁচা-পাকা সড়ক। কোথাও ভেঙে পড়েছে ব্রিজ, কোথাও বা দেবে গেছে। ফলে বন্যাকবলিত জেলাগুলোতে অভ্যন্তরীণ যোগাযোগ ব্যবস্থা একেবারেই বিপর্যস্ত। এমনও অনেক উপজেলা রয়েছে, যেখান থেকে জেলা সদরে চলাচলের একমাত্র মাধ্যম নৌকা। রাজবাড়ীতে অভ্যন্তরীণ এবং দিনাজপুরের সঙ্গে ঢাকার রেল যোগাযোগও বন্ধ রয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন এলাকায় বাড়িঘর পানিতে ডুবে বা ভেঙে পড়ে থাকতে দেখা গেছে। পানি উঠেছে স্কুল-কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে। এতে বন্ধ রয়েছে পাঠদান। বন্যাকবলিত লাখো মানুষ আশ্রয় নিয়েছেন বাঁধ, সড়ক বা কোনো আশ্রয় কেন্দ্রে। অনেকেই খোলা আকাশের নিচে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। বিভিন্ন এলাকায় গবাদিপশুর খাদ্য সংকট দেখা দিয়েছে। পচা ঘাস-খড় খেয়ে এগুলো অসুস্থ হয়ে মারাও যাচ্ছে। এতে দুর্গত মানুষের কষ্ট আরও বাড়ছে। পাশাপাশি কোথাও কোথাও দেখা দিয়েছে পানিবাহিত নানা রোগবালাই। শুক্রবার বন্যার পানিতে ডুবে আরও ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে চলমান বন্যার ৬ দিনে মারা গেছে ৭৫ জন। জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে ত্রাণ দিতে গিয়ে বন্যার্তদের কাড়াকাড়ির কবলে পড়ে ত্রাণ বিতরণ বন্ধ করে ফিরে আসেন মেয়র রুকুনুজ্জামান।
এছাড়া, কুড়িগ্রাম, ভুরুঙ্গামারী, উলিপুর ও নাগেশ্বরীতে পানি কমতে শুরু করলেও বন্যার্ত মানুষের দুর্ভোগ বাড়ছে। বাড়িঘর ভেসে যাওয়ায় এখনও খোলা আকাশের নিচে পরিবার-পরিজন নিয়ে রাত কাটাচ্ছে অনেকে। দুর্গম এলাকায় মিলছে না সরকারি-বেসরকারি ত্রাণ। এদিকে বন্যায় রাস্তা ভেঙে যাওয়ায় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে ও বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন রয়েছে।
তাছাড়া, জামালপুর, সরিষাবাড়ী, মেলান্দহ, মাদারগঞ্জ ও বকশীগঞ্জে গতকাল শুক্রবার দুপুরে বন্যার্ত মানুষের মধ্যে শুকনো খাবার দেয়ার প্রস্তুতি নেয়া হয়। এর মধ্যে ছিল চিঁড়া, মুড়ি, গুড়, স্যালাইন, পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট। এ সময় ঝালুপাড়া এলাকায় সহস াধিক ক্ষুধার্ত মানুষ ত্রাণের জন্য ভিড় জমায়। এদের মধ্যে মেয়র রুকুনুজ্জামান লুঙ্গি পরে ত্রাণ বিতরণ শুরু করেন। এ সময় বন্যার্ত মানুষ ত্রাণের গাড়ি ঘিরে কাড়াকাড়ি শুরু করে। এতে তোপের মুখে পড়ে মেয়র রুকুনুজ্জামান ত্রাণ বিতরণ বন্ধ করে ফিরে যান। এদিকে বকশীগঞ্জে পানি কমতে শুরু করলেও এখনও তলিয়ে আছে ফসলি জমি ও রাস্তাঘাট। অনেক জায়গায় কাঁচা সড়ক ভেঙে গেছে। পানির তীব্র স্রোতে রাস্তার দুই পাশের মাটি সরে যাওয়ায় বগারচর গাজীরপাড়া-আলিরপাড়া শহীদ মুক্তিযোদ্ধা আহাদুজ্জামান সড়কের ব্রিজসহ তিনটি ব্রিজ ভেঙেছে। ঝুঁকিপূর্ণ আরও কয়েকটি ব্রিজ।
অন্যদিকে, রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। দুর্গত হাজার হাজার পরিবারের মাঝে কোনো সহযোগিতা পৌঁছেনি। বন্যার পানিতে রেললাইন ডুবে যাওয়ায় শুক্রবার সকাল থেকে বন্ধ হয়ে গেছে গোয়ালন্দ বাজার থেকে দৌলতদিয়া ঘাটের রেল যোগাযোগ। এছাড়া সিংড়া-টু-বলিয়াবাড়ি ৩ কিলোমিটার মূল পাকা সড়ক ডুবে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এতে ওই এলাকার ১৫ গ্রামের প্রায় ৫০ হাজার লোকের চরম দুর্ভোগ দেখা দিয়েছে। উপজেলা প্রশাসন এবং নাটোর সড়ক ও জনপথ বিভাগ বালির বস্তার বাঁধ দিয়ে রাস্তা রক্ষার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। ফরিদপুর ও চরভদ্রাসনে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়ে নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। পাবনা ও ফরিদপুরে জেলার নতুন নতুন এলাকা বন্যাকবলিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে বন্যায় পারফরিদপুর পশ্চিমপাড়া পাকা রাস্তা ভেঙে ১শ’ একর জমির স্বর্ণা ধান, গরুর ঘাস, বাড়িঘর ডুবে গেছে। এতে ২০টি গ্রামের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। রাজশাহী বাগমারা উপজেলায় বন্যার পানিতে ভেসে যাওয়া এক নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত জয়নব বিবি (৪২) ইউনিয়নের রমজানপাড়া গ্রামের আবু সাঈদের স্ত্রী। জেলার ৩২০টি বাণিজ্যিক পুকুরের মাছ বন্যার পানিতে ভেসে গেছে।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।