চুয়াডাঙ্গা মঙ্গলবার , ১৬ নভেম্বর ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ফের বিপাকে শিল্পা শেঠি

বিনোদন ডেস্ক:
নভেম্বর ১৬, ২০২১ ৮:০৯ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

পর্নোকাণ্ডের পর ফের আইনি জটিলতায় শিল্পা শেঠি। সঙ্গে অভিযোগ রয়েছে রাজ কুন্দ্রার বিরুদ্ধেও। তারকা দম্পতির বিরুদ্ধে এবার উঠেছে আর্থিক প্রতারণার অভিযোগ। মুম্বইয়ের বান্দ্রা থানায় তাদের বিরুদ্ধে নীকিন বারাই নামে এক ব্যবসায়ী অভিযোগ দায়ের করেছেন। ওই ব্যবসায়ীর অভিযোগ, অতিরিক্ত লাভের আশা দেখিয়ে ২০১৪ সালের জুলাই মাসে শিল্পা শেঠি এবং রাজ কুন্দ্রার ফিটনেস সংস্থায় প্রায় দেড় কোটি টাকা বিনিয়োগ করানো হয় তাকে। তবে দিনের পর দিন কেটে গেলেও লাভের মুখ দেখতে পাননি ওই ব্যবসায়ী। তাই টাকা ফেরত চান তিনি। অভিযোগ, টাকা ফেরত চাওয়ায় অভিনেত্রী শিল্পা শেঠি ও তার স্বামী রাজ কুন্দ্রা ওই ব্যবসায়ীকে হুমকি দেন।

সে কারণেই শিল্পা ও রাজের বিরুদ্ধে বান্দ্রা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ব্যবসায়ী। তারকা দম্পতির বিরুদ্ধে প্রতারণাসহ একাধিক ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে। যার ফলে বিপাকে পড়েছেন তারা। উল্লেখ্য, চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে আইনি ঝামেলায় জড়ান শিল্পার স্বামী রাজ কুন্দ্রা। শোনা যায়, সেই সময় নারীদের দিয়ে পর্নো ফিল্ম শুট করানোর অভিযোগে পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করে মুম্বই পুলিশ। সেই সূত্র ধরেই অভিনেত্রী গেহনা বশিষ্ঠকে গ্রেপ্তার করা হয়। গেহনার সূত্র ধরেই নাকি রাজের পর্নো ফিল্মের ব্যবসায় জড়িত থাকার হদিস পায় পুলিশ। গত ১৯শে জুলাই গ্রেপ্তার করা হয়েছিল শিল্পা শেঠির স্বামীকে। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে, হটশট অ্যাপের মাধ্যমে নাকি এই পর্নোগ্রাফির ব্যবসা রমরমিয়ে চালাচ্ছিলেন রাজ কুন্দ্রা ও তার সঙ্গীরা। অ্যাপের যে স্ক্রিনশট ভাইরাল হয়েছে তাতে মিসিং কনডম, গেট ডার্টি, বিকিনি যোগার মতো কনটেন্ট দেখা যায়। সূত্রের খবর, শর্ট ফিল্ম, ফটোশুটের ভিডিওসহ নানা ধরনের ভিডিও আপলোড করা হতো এখানে। আবার লাস্যময়ী মডেলদের সঙ্গে নাকি লাইভ কমিউনিকেশন করার সুযোগও থাকতো। তবে শিল্পার দাবি স্বামী কী করতেন সে বিষয়ে কিছুই জানতেন না তিনি। বলিউডে জোর গুঞ্জনও ওঠে, পর্নোকাণ্ডের পরই নাকি সন্তানদের নিয়ে আলাদা থাকতে শুরু করেন শিল্পা। তবে সম্প্রতি ধর্মশালার এক মন্দিরে একসঙ্গে দেখা যায় তাদের।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।