চুয়াডাঙ্গা মঙ্গলবার , ১৬ নভেম্বর ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ফাতেমার উদ্দেশ্যে রসুলের অসিয়ত

ধর্ম প্রতিবেদন:
নভেম্বর ১৬, ২০২১ ৮:২০ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

রসুলেপাক তার কলিজার টুকরা ফাতেমাকে অসিয়ত করেছিলেন, হে ফাতেমা! যদি তোমার কোনো কিছু চাওয়ার থাকে, আমার কাছে চেয়ে নাও, আর নিজেকে জাহান্নামের আগুন থেকে রক্ষা করার আমল কর! কারণ আমি তোমাকে আল্লাহর আজাব থেকে বাঁচাতে পারব না! আজ আমরা আখেরাতের ব্যাপারে অত্যন্ত উদাসীন, নেক আমলের প্রতি আমাদের আকর্ষণ নেই।

অনেকের মুখে শোনা যায়, আমার কোনো ভয় নেই, আমার পীর আমাকে ত্বরায়ে নিবেন। অথবা নবীর শাফায়াতে আমার মুক্তি সুনিশ্চিত। বন্ধুগণ! সজাগ হোন! সতর্ক হোন! জাহান্নাম থেকে মুক্তির ত্বরিত ব্যবস্থা গ্রহণ করে তৈরি হয়ে থাকুন, কখন ডাক আসে জানা নেই এবং জানার কোনো উপায়ও নেই। গভীরভাবে চিন্তা করুন! যদি প্রিয়নবী তাঁর কলিজার টুকরা ফাতেমাকে এরূপ বলতে পারেন, তাহলে আপনার আমার কী দুরবস্থা হতে পারে! আপনারা আমার জন্য দোয়া করুন, আমি আপনাদের জন্য দোয়া করি, আল্লাহপাক আমাদের সবাইকে নেক আমলের তাওফিক দিন। নাজাতের একটি অন্যতম উপায় হচ্ছে অন্তরে আল্লাহর ভয় বিদ্যমান থাকা। কেননা, অন্তরে আল্লাহর ভয় বিদ্যমান থাকলে পাপাচারিতা থেকে মুক্ত হয়ে মানুষ নেক কাজ করতে সক্ষম হয় এবং জান্নাতি হতে পারে। অন্তরের ভয়ের কারণে মানুষ অতি সহজে নফসে আম্মারা এবং প্রবৃত্তির ফাঁদ থেকে মুক্তি লাভে সমর্থ হয়। আল্লাহপাক ইরশাদ করেন। যাদের অন্তরে আল্লাহর দরবারে দাঁড়ানোর ভয় আছে, তারাই নিজকে খাহেশাত থেকে বিরত রাখে, তাদের ঠিকানা অবশ্যই জান্নাত হবে। আর যারা বস্তুজীবনকেই মনে করে আসল জীবন এবং একে আখেরাতের ওপর প্রাধান্য দিয়ে পাপাচারিতায় লিপ্ত হয়, তার ঠিকানা অবশ্যই জাহান্নাম। আল্লাহপাক ইরশাদ করেন, যে ব্যক্তি সীমালঙ্ঘন করেছে এবং পার্থিব জীবনকে অগ্রাধিকার দিয়েছে, তার ঠিকানা হবে জাহান্নাম। সুতরাং অন্তরের ভয় বড় নেয়ামত; তাই মেহনত-মুজাহাদা করে অন্তরে আল্লাহর ভয় সৃষ্টি করা উচিত। যাদের অন্তরে আল্লাহপাকের ভয় বিদ্যমান রয়েছে, এমন আল্লাহ্ওয়ালাদের সংশ্রব অবলম্বন করা বাঞ্ছনীয়।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।