চুয়াডাঙ্গা শুক্রবার , ২৫ ডিসেম্বর ২০২০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ফাঁকা গুলিবর্ষণ : কৃষকের স্ত্রী-ছেলে আহত

সমীকরণ প্রতিবেদন
ডিসেম্বর ২৫, ২০২০ ১১:৫৭ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

কালীগঞ্জে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে উত্তেজনা, বাড়ি-ঘর ভাঙচুর
প্রতিবেদক, কালীগঞ্জ:
ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে নলকূপের পানি ইটভাটায় প্রবেশ করে ইট ভিজে যাওয়াকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের বাড়ি ভাঙচুর ও ফাঁকা গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কালীগঞ্জ উপজেলার দূর্গাপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
জানা যায়, গতকাল সকালে ধানের বীজতলায় পানি দিচ্ছিলেন দূর্গাপুর গ্রামের হোসেন আলী। ধানের বীজতলার পানি ইদঁরের গর্ত দিয়ে ইটের ভাটায় প্রবেশ করে ইট ভিজে যায়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইটভাটার মালিক আব্দুল মতিন বিশ^াস ও হোসেন আলীর মধ্যে বাগবিতণ্ডার সৃষ্টি হয়। এ সময় হোসেন আলীর ছেলে রবিউল ইসলাম বাবুকে মারধর করে আব্দুল মতিন বিশ^াস ও তাঁর পক্ষের লোকজন। এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে চরম উত্তেজনা দেখা দেয়। কিছুক্ষণ পরেই গুলিবর্ষণের শব্দ শোনা যায়। ভাটার মালিকের ছেলে ইমদাদুল হক সোহাগ ঘটনাস্থলে এসে এক রাউন্ড ফাঁকা গুলি করে এবং ভাটার পাশে হোসেন আলীর বাড়িতে প্রবেশ করে ঘরের জিনিসপত্র ভাঙচুর করেন।
এ বিষয়ে হোসেন আলীর শ্যালক সেলিম উদ্দিন ওলি জানান, ইদুঁরের গর্ত দিয়ে ভাটায় পানি প্রবেশ করাকে কেন্দ্র করে ভাটার ম্যানেজার রহিম হোসেনের সাথে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে রবিউল ইসলাম বাবুকে মারধর করেন। ভাটার মালিক আব্দুল মতিন বিশ^াস (পাতা মিয়া) ও পুলিশ এসে দুলাভাই হোসেন আলীকে ডেকে নিয়ে বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টা করেন। এ সময় ভাটা মালিকের ছেলে ইমদাদুল হক সোহাগ ভাটায় এসে ফাঁকা গুলি করে এবং ২০-২৫ জনের একটি দল নিয়ে বাড়িতে প্রবেশ করে দুলাভাই ও বোনকে মারধর করে। টিভি, ফ্রিজসহ বিভিন্ন আসবাবপত্র ভাঙচুর করে।
ইটভাটা মালিকের ছেলে ইমদাদুল হক সোহাগ মুঠোফোনে বলেন, ‘আমার বাবাকে মারধর করে পাঞ্জাবি ছিড়ে দিয়েছে জানতে পেরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিতে আমার লাইসেন্সকৃত শর্টগান দিয়ে এক রাউন্ড ফাঁকা গুলি করি।’
কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহা. মাহফুজুর রহমান মিয়া জানান, বিষয়টি শুনে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছিলাম। স্থানীয়রা বলছে, ভাটার মালিকের ছেলে এক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুঁড়েছে। এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ভাটার মালিকের ছেলে ইমদাদুল হক সোহাগের একটি লাইসেন্স করা অস্ত্র আছে। তবে আইনজ্ঞরা বলছেন, গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটলে কারো অভিযোগের ওপর পুলিশ ভরসা না করে তদন্ত করে ব্যবস্থা নিতে পারে।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।