প্রভাবশালী তিন সমর্থক গ্রেপ্তার, উত্তেজনা!

24

আলমডাঙ্গার বেলগাছিতে প্রতিদ্বন্দ্বী দুই গ্রুপের মধ্যে দ্বন্দ্ব
আলমডাঙ্গা অফিস:
আলমডাঙ্গা উপজেলার বেলগাছি ইউনিয়নে মণ্টু চেয়ারম্যান ও তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী চঞ্চল গ্রুপের দুইপক্ষের প্রভাবশালী ৩ সমর্থক গ্রেপ্তার হয়েছেন। এ ঘটনায় উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে এলাকা। প্রতিদ্বন্দ্বী দুই নেতার গ্রুপেই চলছে এনিয়ে চরম উত্তেজনা।
জানা গেছে, গত ৯ জুলাই বেলগাছি গ্রামের বোমা কালামের গ্রেপ্তারের এক দিন পর প্রতিপক্ষের সমর্থক একই গ্রামের রবিউল ইসলাম মেম্বার ও আবুল কাশেমকে শ্লীলতহানী ও ভাঙচুর মামলায় পুলিশ গ্রেপ্তার করে। কালামের বিরুদ্ধে এলাকায় ডাকাতি, অপহরণ, বোমাবাজী, মুক্তিপণ আদায়, মাদক ব্যবসাসহ বহু মামলা রয়েছে। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি উত্তরা ফিলিং-এর অদূরে ছিনতাই সংঘটিত হয়। সেই মামলায় কালামকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। বেলগাছি ইউনিয়ন পরিষদের একাধিকবারের চেয়াম্যান আমিরুল ইসলাম মণ্টুর ছত্রছায়ায় থেকে তিনি এসব অপকর্ম করেছেন বলে এলাকায় অভিযোগ রয়েছে। সম্প্রতি মণ্টু চেয়ারম্যানের সাথে তাঁর সম্পর্কের টানাপোড়েন শুরু হলে বোমা কালাম মণ্টু চেয়ারম্যানের প্রতিপক্ষ মাহমুদুল হাসান চঞ্চলের সাথে ঘনিষ্ঠ হওয়ার চেষ্টা করছিলেন।
কালামের স্ত্রী পারভীনা খাতুন অভিযোগ করেন, মণ্টু চেয়ারম্যানের সাথে তাঁর স্বামী অর্থাৎ কালামের সম্পর্কের অবনতি হওয়ার কারণে চেয়ারম্যান তাঁকে গ্রেপ্তার করিয়েছে। তাঁর স্বামী (কালাম) খারাপ হলে তো মণ্টু চেয়ারম্যানই খারাপ করেছে বলে দাবি করেন। তাঁর বিরুদ্ধে যত মামলা হয়েছে, তার প্রায় সবই মণ্টু চেয়ারম্যানের পক্ষে কাজ করতে গিয়ে হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি। তিনি বলেন, ‘সেই সব মামলা থেকে আমার স্বামীকে বাঁচাতে সবকিছুই চেয়ারম্যান করেছে এতকাল। চেয়ারম্যান তার নিজের স্বার্থে আমার সরল সোজা স্বামীকে ব্যবহার করেছে।’
ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক বেলগাছি গ্রামের মাহবুব মালিথা বলেন, বোমা কালাম অত্যন্ত জঘন্য ব্যক্তি। তাঁকে সাপোর্ট করার প্রশ্নই ওঠে না। তবে তাঁকে খারাপ তৈরি করেছে মণ্টু চেয়ারম্যান।
অন্যদিকে, বোমা কালামের গ্রেপ্তারের এক দিন পর গত ১০ জুলাই রাতে পুলিশ বেলগাছি গ্রামের রবিউল ইসলাম মেম্বার ও একই গ্রামের আবুল কাশেমকে গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেপ্তার কালামের স্ত্রীকে লাঞ্ছিত ও কালামের মোটরসাইকেল ভাঙচুর মামলায় পুলিশ তাঁদেরকে গ্রেপ্তার করেছে। রবিউল ইসলাম মণ্টু চেয়ারম্যানের ডানহাত হিসেবে পরিচিত। গত দুই দিনে দুপক্ষের ৩ জন প্রভাবশালী ব্যক্তি গ্রেপ্তার হওয়ার ঘটনায় বেলগাছি ইউনিয়নজুড়ে চাপা উত্তেজনা বিরাজ করছে। মোড়ে মোড়ে ও চায়ের দোকানে দোকানে চলছে প্রতিদ্বন্দ্বী গ্রুপের ৩ ব্যক্তির গ্রেপ্তার নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা।