চুয়াডাঙ্গা রবিবার , ১৩ নভেম্বর ২০১৬

প্রতি কদমে সওয়াব

সমীকরণ প্রতিবেদন
নভেম্বর ১৩, ২০১৬ ১১:৫০ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ধর্ম ডেস্ক: মসজিদে গিয়ে জামাতে নামাজের সওয়াব অনেক বেশি। ঘরে এক রাকাত নামাজের যে সওয়াব এর ২৭ গুণ সওয়াব হলো মসজিদে গিয়ে জামাতে নামাজ আদায় করা। আল্লাহর রাসুল (সা.) জামাতের নামাজের ব্যাপারে অনেক হাদিসে তাগিদ দিয়েছেন। এমনকি তিনি বলেছেন, আমার মন চায় যারা আজান শুনেও মসজিদে যায় না তাদের বাড়িঘর আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দিই। বিশেষ কিছু কারণে শরিয়ত জামাতে শরিক না হওয়ার সুযোগ রেখেছে। তবে স্বাভাবিকভাবে প্রত্যেক পুরুষকে মসজিদে গিয়েই জামাতে নামাজ আদায় করা উচিত। আর এই নামাজে যেতে যতবার কদম ফেলা হবে প্রতি কদমে আল্লাহ সওয়াব দেবেন। হাদিসে সুস্পষ্টভাবে সে কথার উল্লেখ আছে। সুতরাং মসজিদ যত দূরে হবে সওয়াব তত বেশি হবে। আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুল (সা.) বলেছেন, যে ব্যক্তি সকালে অথবা বিকেলে মসজিদের দিকে যায় আল্লাহ তায়ালা জান্নাতে তার মেহমানদারির উপকরণ তৈরি করতে থাকেন। [বুখারি ও মুসলিম] এটা কত বড় ফজিলত! একজন মানুষ যতবার মসজিদের দিকে নামাজের জন্য যায় ততবার জান্নাতে তার মেহমানদারির প্রস্তুতি চলতে থাকে। সেই উপকরণ কত মহান হবে! দুনিয়ার যত বড় নেয়ামতই হোক জান্নাতের সামান্য নেয়ামতের ছিটেফোঁটার পরিমাণও হবে না। হাদিসে কুদসিতে আল্লাহ বলেন, ‘আমি আমার নেক বান্দাদের জন্য এমন নিয়ামত তৈরি করে রেখেছি যা কোনো চোখ কোনোদিন দেখেনি, কোনো কান কোনোদিন শোনেনি, কোনো অন্তর কোনোদিন কল্পনাও করতে পারেনি।’ এসব নেয়ামত মসজিদে গমনকারীর জন্য আল্লাহ প্রস্তুত করে রেখেছেন। মসজিদে যেতে যত কদম ফেলানো হয় এর প্রত্যেকটির বিনিময়ে সদকার সওয়াব হবে। সেখানে যাওয়ার পর আল্লাহর পক্ষ থেকে জান্নাতে মেহমানদারির সব উপকরণ তৈরি হয়। যেদিন আমরা জান্নাতে পৌঁছব সেদিন তা ভোগ করতে পারব। এ জন্য জামাতে নামাজের ব্যাপারে আন্তরিক হওয়া দরকার। অনেক সময় আমরা অলসতা করে ঘরেই নামাজ সেরে ফেলি। এটা শয়তানের কুমন্ত্রণা। মসজিদে গিয়ে জামাতে নামাজ আদায় করলে পরিতৃপ্তি পাওয়া যায় তা কখনো ঘরে একা একা নামাজ পড়ে পাওয়া যাবে না। নামাজের পুরোপুরি সওয়াব পেতে হলে মসজিদে যেতেই হবে। যদিও আল্লাহ সবখানে বিরাজমান, তবুও মসজিদ আল্লাহর ঘর, আর তাকে খুঁজতে যেতে হবে মসজিদেই।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।