পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউনিয়নে ভিক্ষুক পূণর্বাসন অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক সায়মা ইউনুস ভিক্ষা বৃত্তি সমাজের খুবই জঘন্যতম কাজ

279

RUvদর্শনা অফিস:  দামুড়হুদা উপজেলা পারকৃষ্ণপুর মদনা ইউনিয়নে জনসচেতনামূলক ও ভিক্ষুক মুক্ত পূণর্বাসনের জন্য উপকরণ বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল দুপুর দেড়টার দিকে পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এস এ এম জাকারিয়া আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থেকে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক সায়মা ইউনুস। তিনি বলেন, ভিক্ষা বৃত্তি সমাজের খুবই জঘন্যতম কাজ। এ কাজ সমাজের মানুষ ভাল চোখে দেখে না। ভিক্ষুক মুক্ত করতে সরকারের পক্ষে একক ভাবে ভিক্ষুক মুক্ত করা সম্ভব নয়। তাই সমাজ থেকে ভিক্ষুক মুক্ত করতে বিত্তবানসহ সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। তাহলে সমাজ থেকে ভিক্ষুক মুক্ত করা সম্ভব হবে। দামুড়হুদা উপজেলার নাজির হামিদুল ইসলামের প্রানবন্ত উপস্থপনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার রফিকুল হাসান। অনুষ্ঠানের শুরুতেই ইউনিয়নের উন্নয়ন ও কিছু সমস্যা সমাধানের কথা তুলে ধরে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইউপি চেয়ারম্যান এস এ এম জাকারিয়া আলম। এছাড়াও অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা সহকারী ভূমি অফিসার সৈয়দা নাফিস সুলতানা, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা রাজকুমার পাল, কুড়ালগাছি ইউপি চেয়ারম্যান এনামুল কবীর ইনু, নতিপোতা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল আজিজ, পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি বরকত আলি, সেক্রেটারী মুনতাজ হোসেন, মদনা বিজিবি কম্পানী কমান্ডার শফিউদ্দিন, বিজিবি ক্যাম্প কমান্ডার তোতা মিয়া, বড়বলদিয়া কলেজের অধ্যক্ষ ইইসুফ আলি, মদনা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শামসুর হক, নাস্তিপুর সরকারি প্রথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইসমাইল, কামারপাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিজানুর রহমান, পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার তমছের আলি। আলোচনা শেষে প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথিগণ ৩১ জন নারী-পুরুষ ভিক্ষুকদের মধ্যে ভ্যান, ছাগল, মুরগীসহ বিভিন্ন উপকরণ বিতরণ করা হয়। এসময় ইউনিয়নের সকল ইউপি সদস্যসহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তি বর্গ উপস্থিত ছিলেন।