পরিবেশ সুস্থ ও নির্মল রাখতে গাছের ভূমিকা অপরিহার্য

302

জীবননগরে তিন দিনব্যাপী ফলদ বৃক্ষমেলার উদ্বোধনকালে এমপি টগর
জীবননগর অফিস:
‘পরিকল্পিত ফল চাষ, যোগাবে পুষ্টিসম্মত খাবার’ প্রতিপাদ্যে জীবননগরে তিন দিনব্যাপী ফলদ বৃক্ষমেলার উদ্বোধন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসন ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের যৌথ আয়োজনে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল বুধবার বেলা ১১টায় উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে একটি র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিটি উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে একই স্থানে এসে শেষ হয়। পরে উপজেলা পরিষদের অডিটরিয়ামে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বৃক্ষমেলার উদ্বোধন করেন চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজি আলী আজগর টগর।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি টগর বলেন, প্রাকৃতিক সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে গাছের কোনো বিকল্প নেই। পরিবেশ সুস্থ ও নির্মল রাখতে গাছের ভূমিকা অপরিহার্য। তিনি বলেন, খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, আসবাব, যানবাহন, কৃষি যন্ত্রপাতি, ওষুধ, প্রাকৃতিক সৌন্দর্য, ছায়া, জ্বালানি কাঠ প্রভৃতির যোগান দিয়ে থাকে গাছ। কৃষির উন্নয়নে কৃষিপ্রযুক্তির বিস্তার হচ্ছে মূল হাতিয়ার। তাই ফলদ বৃক্ষমেলার পাশাপাশি কৃষিপ্রযুক্তি প্রদর্শন অত্যন্ত যুগান্তকারী পদক্ষেপ বলে তিনি উল্লেখ করেন। বিগত কয়েক বছর যাবৎ বৈশ্বিক উষ্ণতায় জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে প্রাকৃতিক পরিবেশের ওপর বিরূপ প্রভাব সৃষ্টি হচ্ছে। যার ফলে বন্যা ও খরা বৃদ্ধি পাচ্ছে। তিনি আরও বলেন, এক শ্রেণির মানুষ ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চাচ্ছে। তারা চারদিকে গলাকাটা গুজব ছড়াছে। এ পরিস্থিতি মোকাবিলায় সত্যিকারের দেশপ্রেমের মনোভাব নিয়ে জাতীয় স্বার্থে ও দেশের কল্যাণে জনগণকে বেশি বেশি সচেতন করতে হবে এবং বর্ষা মৌসুমে বেশি করে বৃক্ষরোপণ ও সংরক্ষণে আন্তরিক হতে হবে। এমপি টগর বলেন, শুধু গাছ লাগালেই হবে না, এর যত্ম-পরিচর্যা করে বড় করে তুলতে হবে এবং সবাইকে বৃক্ষনিধন করা থেকে বিরত থাকতে হবে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য দেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শারমিন সুলতানা। আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জীবননগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাজি হাফিজুর রহমান, চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মোশারফ হোসেন মিয়া, জীবননগর থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, জীবননগর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আবু মো. আব্দুল লতিফ অমল, জীবননগর পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর আলম, জীবননগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ গনি মিয়া, জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. রফিকুল ইসলাম ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মাহমুদা খাতুন।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন মনোহরপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন খান, হাসাদহ ইউপি চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম রবি বিশ্বাস, রায়পুর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ শাহ্, আওয়ামী লীগের নেতা মুন্সি নাসির উদ্দিন, সাবেক কাউন্সিল রফিকুল ইসলাম, সীমান্ত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল মালেক মোল্লা, জাকির বিশ্বাস, মীর মোকলেচুর রহমান টজো, জীবননগর উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মাসুদুর রহমানসহ উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।
আলোচনা সভা শেষে অতিথিরা বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে আগত শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিনা মূল্যে ফলদ বৃক্ষের চারা তুলে দেন। সমগ্র অনুষ্ঠানটি সার্বিক পরিচালনা করেন উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা শাহ-আলম।