পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষ্যে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

311

Jhenidah-islamic-faundation

নিজস্ব প্রতিবেদক: চুয়াডাঙ্গা ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে গতকাল সেমিনার, ওয়াজ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।  অনুষ্ঠানে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক এবিএম রবিউল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক সায়মা ইউনুস। বিশেষ অতিথি ছিলেন ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন। অনুষ্ঠানে মাওলানা ইবাদত হোসেন ওয়াজ পরিবেশন করেন।
দামুড়হুদা প্রতিনিধি জানিয়েছেন,  দামুড়হুদায় ইসলামী ফাউন্ডেশনের আয়োজনে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা:) অনুষ্ঠিত হয়েছে।
জানা গেছে, গত মঙ্গলবার সকাল ৯ ঘটিকার সময় দামুড়হুদায় ইসলামী ফাউন্ডেশনের ফিল্ড সুপারভাইজার আ: হাকিমের সভাপতিত্বে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে লম্বা  র‌্যালী বের হয়ে উপজেলায় প্রাধান প্রাধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে  দামুড়হুদা দশমী সরকারী প্রাথমিক বালিকা বিদ্যালয়ের হল রুমে আলোচনা ও দোয়া মাহাফিল অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে  প্রধান অতিথি ছিলেন দামুড়হুদা উপজেলা নিবাহী’ অফিসার মো:রফিকুল ইসলাম, বিশেষ অতিথি ছিলেন দামুড়হুদা সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো: শহিদুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন জেলা ইমাম সমিতির সভাপতি হাজী মাও. মো: শফিকুল ইসলাম প্রমূখ। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন ইসলামী ফাউন্ডেশনের দামুড়হুদা শাখার মডেল কেয়ার টেকার মো: আসাদুজ্জামান ।
ঝিনাইদহ অফিস জানিয়েছে, পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষ্যে ঝিনাইদহে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। মঙ্গলবার সকালে ঝিনাইদহ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে শহরের পুরাতন ডিসি কোর্ট চত্ত্বর থেকে র‌্যালী বের করা হয়। র‌্যালীটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে এসে শেষ হয়। পরে ইসলামিক ফাউন্ডেশন মিলনায়তনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক সুলতান আহমদের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন ঝিনাইদহ-১ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই। বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আব্দুর রউফ মন্ডল, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার এসএম সাহাবউদ্দীন আহমেদ ও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আল-হাদীস এন্ড ইসলামিক ষ্টাডিচ বিভাগের অধ্যপক ড. মুহাম্মদ আশরাফুল আলম। আলোচনা সভায় বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন। বক্তারা হযরত মোহাম্মদ (স:) মহান জীবন দর্শন নিয়ে আলোচনা করেন। এছাড়া জেলার বিভিন্ন স্থানে যথাযথ মর্যাদা ও ভাবগাম্ভির্য্য পরিবেশে উদযাপিত পালিত হয়।