চুয়াডাঙ্গা মঙ্গলবার , ৫ জুলাই ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

পদ্মায় জয়-পুতুলের সঙ্গে উচ্ছ্বসিত প্রধানমন্ত্রী

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
জুলাই ৫, ২০২২ ১১:৫০ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

সমীকরণ প্রতিবেদন: উদ্বোধনের পর দ্বিতীয়বার পদ্মা সেতু পাড়ি দিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এবার গন্তব্য নিজের জন্মস্থান টুঙ্গিপাড়া। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন তার পুত্র ও আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় ও প্রধানমন্ত্রীর কন্যা সায়মা ওয়াজেদ পুতুল। পদ্মা সেতু হয়ে সড়কপথে প্রধানমন্ত্রী টুঙ্গিপাড়া যাওয়া আসা করেন। ঢাকা থেকে যাওয়ার পথে পদ্মা সেতুতে নেমে কিছু সময় কাটান। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তার দুই সন্তান সেলফি তোলেন। এ সময় তাদের উচ্ছ্বসিত দেখা যায়। তাদের একটি ছবি নিজের ফেসবুক পেজে শেয়ার করেন সজীব ওয়াজেদ হয়। এর আগে গত ২৫ শে জুন পদ্মা সেতু উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ওইদিন মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ পুতুল প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন। ছেলে সজিব ওয়াজেদ জয় সেদিন দেশে ছিলেন না।

গতকাল প্রধানমন্ত্রী পরিবারের সদস্যদের নিয়ে জাজিরা পয়েন্টের সার্ভিস এলাকায় কিছুক্ষণ বিশ্রাম নেন। পরে সকাল ১১টা ৪০ মিনিটে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় পৌঁছান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয় এবং কন্যা সায়মা ওয়াজেদকে সঙ্গে নিয়ে তার পৈতৃক নিবাস পরিদর্শন করেন এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিসৌধে মোনাজাত করেন। এর আগে প্রধানমন্ত্রী জাতির পিতার সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে তার প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এদিকে বিকাল সাড়ে ৩টায় টুঙ্গিপাড়া থেকে প্রধানমন্ত্রীর গাড়ির বহরটি ঢাকার উদ্দেশে যাত্রা করে। প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী ও সহকারী প্রেস সচিব ইমরুল কায়েস গণমাধ্যমকে বলেন, পথে কোনো যাত্রাবিরতি ছাড়াই বিকাল ৪টা ৫০ মিনিটে টোল দিয়ে পদ্মা সেতু পার হন প্রধানমন্ত্রী। বিকাল সাড়ে ৫টায় গণভবনে পৌঁছায় প্রধানমন্ত্রীর গাড়ির বহর। টুঙ্গিপাড়ায় অবস্থানকালে প্রধানমন্ত্রী স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। এ সময় তিনি বলেন, তৃণমূলের নেতাকর্মীরাই আওয়ামী লীগকে ধরে রেখেছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ ধারণ করে নেতাকর্মীদের কাজ করার পরামর্শ দেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।