চুয়াডাঙ্গা শনিবার , ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

নৌপথে কমছে পণ্য ও যাত্রী পরিবহন, বেড়েছে সড়কে

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২২ ৪:৫৯ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

Girl in a jacket

সমীকরণ প্রতিবেদন: সারা বিশ্বে বেশিরভাগ পণ্য পরিবহন নৌপথে করা হলেও দেশের চিত্রটা ভিন্ন। দেশে নৌপথে প্রতিনিয়ত পণ্য ও যাত্রী পরিবহন কমছে। সড়কের প্রতি আগ্রহ বাড়ছে মানুষের। আবার সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় এবং রেলপথ মন্ত্রণালয়ের তুলনায় অনেক কম বাজেট বরাদ্দ পায় নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়। সেদিক থেকেও নৌ পরিবহন খাত অনেকটা অবহেলিত। প্রকৃতি সংরক্ষণবিষয়ক সংস্থাগুলোর জোট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন ফর কনজারভেশন অব নেচার (আইইউসিএন) তথ্য বলছে, ১৯৬০ সালে প্রায় ১২ হাজার কিলোমিটার নৌপথ দেশে ছিল। সেখানে সমপ্রতি বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) তথ্য অনুযায়ী, দেশে মোট নদ-নদীর দৈর্ঘ্য ২৪ হাজার কিলোমিটার। বর্ষা মৌসুমে বর্তমানে প্রায় ছয় হাজার কিলোমিটার পথ নৌযান চলাচলের উপযোগী রয়েছে। যদিও ১০ হাজার কিলোমিটার পথে নৌযান চলাচলের উপোযোগী করতে চাইছে সরকার।

সবচেয়ে বেশি যাত্রী সব সময় সড়ক পথেই চলাচল করে। তবে সড়কপথ ব্যবহারকারীর সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলছে। উল্টো দিকে বেশি কমছে নৌপথ ব্যবহারকারীর সংখ্যা। বিশ্বব্যাংকের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ১৯৭৫ সালে ৫৪ শতাংশ যাত্রী সড়কপথ ব্যবহার করত। ২০০৫ সালে সড়কপথ ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৮৮ শতাংশে এসে ঠেকেছে। আর এই সময়ের মধ্যে নৌপথে যাত্রীর সংখ্যা ১৬ থেকে ৮ শতাংশে নেমে এসেছে। তবে ধীরে ধীরে অবস্থার পরিবর্তন আনতে কাজ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। তিনি বলেন, একটা সময় দেশের নৌপথকে ধ্বংস করে দেওয়া হয়েছিল। বর্তমান সরকার দেশের নৌপথ বাড়াতে নানা উদ্যোগ নিয়েছে। গত ১০ বছরে বিভিন্ন ক্যাটাগরির ৪০টি ড্রেজার সংগ্রহ করা হয়েছে এবং আরো ৩৫টি ড্রেজার সংগ্রহ করার প্রক্রিয়ায় আছে। নদীর প্রবাহ নিশ্চিত করার জন্য আমরা কাজ করছি। এখনও ঢাকার চারপাশে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ নৌপথে পারাপার হয়।

নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী বলেন, দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের নৌপথের জন্য নতুন একটা পরিকল্পনা করা হয়েছে। দেশের নৌপথগুলো সচল রাখতে চাই। এখন শুধু দেশীয় নৌপথ নয়। আমরা নৌপথে আঞ্চলিক (আন্তদেশীয়) যোগাযোগ বৃদ্ধির উদ্যোগ নিয়েছি। একটা সময় দেশের পুরো পরিবহনটা সড়কে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল কিন্তু সড়ক তৈরি করা হয়নি। এখন চার লেন ছয় লেনের সড়কও তৈরি হচ্ছে। চলতি অর্থবছরে জাতীয় বাজেটে নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে ৭ হাজার ২২৪ কোটি টাকা। অথচ সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় বরাদ্দ পেয়েছে ৩৬ হাজার ৬৪৮ কোটি টাকা আর রেলপথ মন্ত্রণালয়ের জন্য বরাদ্দ হয়েছে ১৮ হাজার ৮৫২ কোটি টাকা।

নৌপথকে অবহেলিত ভাবে রাখা হয়েছে বলে মনে করছেন যোগাযোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক মো. হাদিউজ্জামান। তিনি বলেন, শুধু নদী ড্রেজিং করে তো আর পণ্য পরিবহন করা যাবে না। আমাদের নৌ নেটওয়ার্ক এবং সমন্বিত নেটওয়ার্ক নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। অথচ পণ্য পরিবহনের জন্য নৌপথ হচ্ছে সবচেয়ে সাশ্রয়ী। কিন্তু নৌপথের সঙ্গে সড়কের যে পরিমাণ সংযোগ বাড়ানোর দরকার ছিল সেটা আমরা করিনি।

Girl in a jacket

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।