চুয়াডাঙ্গা সোমবার , ১৮ অক্টোবর ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

নেদারল্যান্ডসকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে আয়ারল্যান্ড

খেলাধুলা ডেস্ক
অক্টোবর ১৮, ২০২১ ১০:০৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নেদারল্যান্ডসকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে আয়ারল্যান্ড। আবুধাবিতে ডাবল হ্যাটট্রিকে আলো কাড়েন আইরিশ পেইসার কার্টিস ক্যামফার। ১০৭ রানের টার্গেট ২৯ বল আগে টপকে যায় আয়ারল্যান্ড। পাওয়ার প্লেতে দুই উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে নেদারল্যান্ডস। চাপ আরো বাড়িয়ে দেন কার্টিস ক্যামফার। ম্যাচের দশম ওভারে টানা চার বলে উইকেট নিয়েছেন এই পেইসার। টি-টোয়েন্টিতে রাশিদ খান ও লাসিথ মালিঙ্গার পর তৃতীয় বোলার হিসেবে ডাবল হ্যাটট্রিকের কীর্তি ক্যামফারের

ওপেনার ম্যাক্সের ফিফটি আর অধিনায়ক সিলারের অবদানে একশো পার করে নেদারল্যান্ডস। জবাবে কেভিন ও-ব্রায়ান আর অ্যান্ডু বালবির্নি ফেরেন এক অঙ্কে। তবে ওপেনার পল স্টার্লিংয়ের সাথে গ্যারেথ ডেলানির কল্যাণে সহজেই ম্যাচ জিতে নেয় আয়ারল্যান্ড। ডেলানি করেন ৪৪ রান, স্টার্লিং অপরাজিত থাকেন ৩০ রান করে।
বিশ্বমঞ্চে সেভাবে পরিচিতি ছিলো না কার্টিস ক্যামফারের। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সেই আক্ষেপ ঘুচিয়েছেন। দুটি সফল রিভিউয়ের উইকেট সহ- স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ডাবল হ্যাটট্রিকে ইতিহাস গড়লেন আইরিশ পেইসার। টি-টোয়েন্টিতে রাশিদ-মালিঙ্গার পর তৃতীয় বোলার হিসেবে এই কীর্তি ক্যামফারের।

বিশ্বকাপের তৃতীয় ম্যাচ, আয়ারল্যান্ডের প্রথম কার্টিস ক্যামফার হঠাৎ-ই সব আলো নিয়ে গেলেন নিজের দিকে। দশম ওভারে ওয়াইড দিয়ে শুরু, পরের চার বলেই উইকেট।রেকর্ড বুকে আইরিশ পেইসার।

আকারম্যান, ডেসকাটে, এডওয়াডর্স ও মারওয়েকে ফিরিয়েছেন একের পর এক। ক্রিকেটীয় ভাষায় যাকে বলা হয় ডাবল হ্যাটট্রিক, বিশ্বকাপে এটাই প্রথম। এই কীর্তিতে রাশিদ খান ও লাসিথ মালিঙ্গার সাথে এলিট ক্লাবে যুক্ত হলেন ক্যামফার। টি-টোয়েন্টিতে রাশিদ-মালিঙ্গার ডাবল হ্যাটট্রিক ২০১৯ সালে, যথাক্রমে আয়াল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের সাথে। বিশ্বকাপে হ্যাটট্রিক ছিলো ব্রেট লির, ২০০৭ এ বাংলাদেশের বিপক্ষে। পাঁচ আসর পর এই আনন্দ ক্যামফারের।

ম্যাচ শেষে কার্টিস ক্যামফার বলেন, প্রথম ওভার ভালো যায়নি, তবে ওই এক ওভার সব পাল্টে দিয়েছে। দারুন ছিলো। আমিরাতের কন্ডিশন তুলনামূলক স্লো, অধিনায়ক আমাকে স্বাধীনতা দিয়েছে। আমি আমার মতো চেষ্টা করে সফল হয়েছি।

বাকি তিন ওভারে কোন সাফল্য নেই, তাই ফাইভ ফারের আক্ষেপ থেকে গেছে। তারপরও এই রেকর্ড ক্যামফারকে মনে করিয়ে দিবে প্রতি বিশ্বকাপে হয়তো এই কীর্তি অটুট থাকবে বহুদিন।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।