চুয়াডাঙ্গা শনিবার , ২৩ অক্টোবর ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

নুরের সংগঠনের নেতা-কর্মীসহ ৭ জন রিমান্ডে

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
অক্টোবর ২৩, ২০২১ ৮:৫২ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

সমীকরণ প্রতিবেদন:
চট্টগ্রাম নগরের জেএম সেন হলে হামলার ঘটনায় যুবছাত্র অধিকার পরিষদের নেতা-কর্মীসহ ৭ জনের একদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। এছাড়া তিনজনের বয়স ১৯ বছরের কম হওয়ায় রিমান্ড আবেদন করেনি পুলিশ। গতকাল শুক্রবার চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শফি উদ্দিনের আদালত এ আদেশ দেন। বিষয়টি বাংলাদেশ জার্নালকে নিশ্চিত করেন কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নেজাম উদ্দীন।
এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে চট্টগ্রামের সাতকনিয়া ও নগরীর বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে যুব–ছাত্র অধিকার পরিষদের নেতাকর্মীসহ ১০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে কোতোয়ালী থানা পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তিরা হলেন- যুব অধিকার পরিষদ চট্টগ্রাম মহানগরের আহ্বায়ক মো. নাছির (২৫), সদস্য সচিব মিজানুর রহমান (৩৭), বায়েজিদ থানা শাখার আহ্বায়ক মো. রাসেল (২৬) এবং ইয়ার মোহাম্মদ (১৮), মো. মিজান (১৮), গিয়াস উদ্দিন, ইয়াসিন আরাফাত (১৯), হাবিবুল্লাহ মিজান (২১), মো. ইমন (২১) ও ইমরান হোসেন। এর মধ্যে রিমান্ড মঞ্জুর হয়েছে চট্টগ্রাম মহানগর শাখার আহ্বায়ক মো. নাছির, সদস্য সচিব মিজানুর রহমান, বায়েজিদ থানার আহ্বায়ক মো. রাসেল, কর্মী ইয়াসিন আরাফাত, হাবিবুল্লাহ মিজান, ইমন ও ইমরান হোসেনের।
ওসি নেজাম উদ্দিন বলেন, আমরা আদালতে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করেছিলাম। আদালত শুনানি শেষে ৭ জনের একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। তিনি বলেন, যুব অধিকার পরিষদের ওই নেতাদের ‘পরিকল্পনাতেই’ ১৫ অক্টোবর পূজাম-পে হামলা হয়। হামলার পর ঘটনাস্থলের সিসি ক্যামেরার ভিডিও এবং স্থিরচিত্র দেখে তাদের চিহ্নিত করা হয়। সব মিলিয়ে ওই ঘটনায় মোট ১০০ জনকে এ পর্যন্ত গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
সূত্র জানায়, জেএম সেন হলের পূজাম-পে হামলার চেষ্টার পর বিভিন্ন ছবি এবং সিসিক্যামেরার ফুটেজ বিশ্লেষণ করতে গিয়ে বাংলাদেশ যুব অধিকার পরিষদের নেতাদের সামনে থেকে নেতৃত্ব দেয়ার বিষয়টি ধরা পড়ে। এই ঘটনার পরে আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদেও উঠে আসে, চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় পূজাম-পে হামলার সাথে ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরের সংগঠনের নেতাকর্মীদের সক্রিয়ভাবে অংশ নেয়ার তথ্য। যদিও নুরুল হক নুরের দাবি, চট্টগ্রামের পূজাম-পে হামলার অভিযোগে যে দুই নেতাকে গ্রেপ্তার করা, হয়েছে তারা ভাঙচুরের সঙ্গে জড়িত নয়। এটি রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক কর্মকা-। গতকাল রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে চট্টগ্রামে পূজাম-পে হামলার অভিযোগে সংগঠনটির নেতাকর্মী আটকের প্রতিবাদে কর্মসূচি থেকে এ দাবি করেন তিনি।
উল্লেখ্য, গত ১৬ অক্টোবর দুপুরে নগরের আন্দরকিল্লা জেএম সেন হল পূজাম-পে হামলা, ফটকের ব্যানার ছিঁড়ে ফেলা ও ম-পে ঢিল ছোড়ার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় গত শনিবার পুলিশ বাদী হয়ে কোতোয়ালি থানায় ৮৪ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করে। মামলায় অজ্ঞাতনামা আসামি করা হয়েছে ৫০০ জনকে।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।