চুয়াডাঙ্গা বুধবার , ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭
আজকের সর্বশেষ সবখবর

নিহতের এক ছেলে ও দুই মেয়ের দায়িত্ব নিলেন জাতীয় সংসদের হুইপ ছেলুন জোয়ার্দ্দার এমপি

সমীকরণ প্রতিবেদন
সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৭ ৫:২০ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

আলমডাঙ্গার হাঁপানিয়ায় সংঘর্ষে নিহত জয়নালের দাফন সম্পন্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক: আলমডাঙ্গা উপজেলার হাঁপানিয়ার ইউপি সদস্য ইন্তাদুল হকের গুলিতে নিহত জয়নাল আবেদীনের জানাযা শেষে দাফন সম্পন্ন হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টায় গ্রামের ঈদগাহ ময়দানে অনুষ্ঠিত জানাযায় জাতীয় সংসদের হুইপ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাবেক পৌর মেয়র রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন, সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সি আলমগীর হান্নান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর ও আলমডাঙ্গা সার্কেল) তরিকুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য সাবেক আলমডাঙ্গা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন, যুবলীগ নেতা নঈম হাসান জোয়ার্দ্দার, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোহাইমেন হাসান জোয়ার্দ্দার অনিকসহ প্রমুখ অংশ নেন।
হুইপ সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ নামধারী একদল সন্ত্রাসী শান্ত চুয়াডাঙ্গাকে অশান্ত করছে। তৎকালীন সময়ে তারা এলাকায় সন্ত্রাসী কর্মকা- চালিয়েছে, এখনও থেমে নেই। সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পক্ষ থেকে তাদেরকে ভালো হওয়ার সুযোগ দেয়া হয়েছিল। কিন্তু তারা আবার এলাকায় সন্ত্রাসী কর্মকা- করে জান-মালের ক্ষতি করছে এবং মানুষের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি করছে। তাদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। তিনি নিহত জয়নাল আবেদীনের সন্তানদের দায়িত্ব নেবেন বলে এ সময় প্রতিশ্রুতি দেন। জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাবেক পৌর মেয়র রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ যাদের মধ্যে নেই কেবল তারাই প্রকাশ্যে দিবালোকে এভাবে মানুষ খুন করতে পারে। তাদের কাছ থেকে ভালো ফল আশা করা যায় না, কারণ তারা আওয়ামী লীগ করে না। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর ও আলমডাঙ্গা সার্কেল) তরিকুল ইসলাম বলেন, মামলাটি তদন্ত করে প্রকৃত আসামীদের গ্রেফতার করা হবে। অপরাধী যেই হোক তাকে শাস্তি পেতেই হবে।
জানাযা শেষে স্থানীয় কবরস্থানে নিহত জয়নালের দাফন সম্পন্ন করা হয় এবং আগামী বৃহস্পতিবার চিৎলা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের উদ্যোগে জয়নালের আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে বলে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এদিকে জয়নালের মৃত্যুতে তার পরিবারে চলছে শোকের মাতম। তিনি এক ছেলে ও দুই মেয়ের জনক ছিলেন।
উল্লেখ্য, ঈদের দিন হাঁপানিয়া গ্রামে ঈদের জামাতে উসকানিমূলক ও রাজনৈতিক বক্তব্যে দেয়ার প্রতিবাদ করায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত এক ইউপি সদস্য ইন্তাদুল ও তার লোকজনের ধারালো অস্ত্রের আঘাত, বোমা ও গুলিতে অপর পক্ষের ২১ জনসহ উভয় পক্ষের ২৩ আহত হন। এ ঘটনায় আলমডাঙ্গা উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য দেলোয়ার হোসেন বাদী হয়ে আলমডাঙ্গা থানায় হত্যা ও চেষ্টা বিস্ফোরক আইনে একটি মামলা করেছেন। ওই মামলায় চিৎলা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জিল্লুর রহমানসহ ২৮ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত অর্ধশতাধিক ব্যক্তিকে আসামী করা হয়েছে। এরমধ্যে ৮ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।