চুয়াডাঙ্গা বৃহস্পতিবার , ৫ জানুয়ারি ২০১৭
আজকের সর্বশেষ সবখবর

নিজ বাড়ি জীবননগর আন্দুলবাড়িয়া থেকে প্রাইভেটকারযোগে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে লেভেল ক্রসিংয়ে বিপত্তি বিএনপি নেতা খোকন ও তার মেয়ে আশঙ্কামুক্ত হলেও নাতি রাফির মৃত্যু রেললাইনের অবৈধ লেভেল ক্রসিং আর প্রাইভেটকারের যান্ত্রিক ত্রুটি : হেলিকপ্টারযোগে বাবা ও মেয়ের ঢাকা গমন

সমীকরণ প্রতিবেদন
জানুয়ারি ৫, ২০১৭ ১২:০৭ অপরাহ্ণ
Link Copied!

Ahhmed Rafidনিজস্ব প্রতিবেদক/ জীবননগর অফিস: নানাবাড়ি থেকে পরিবারসহ ঢাকা যাওয়ার উদ্দেশ্যে প্রাইভেটকারযোগে রওনা দেয় শিশু রাফি। মা, বাবা, বোন, নানাকে নিয়ে কিছু পথ এগিয়েও গিয়েছিলো। বাঁধা হয়ে দাড়ালো রেললাইনের অবৈধ লেভেল ক্রসিং আর প্রাইভেটকারের যান্ত্রিক ত্রুটি। অবশেষে রাফিসহ অন্যদের রেখেই ঢাকায় পৌঁছেছে রাফির মা ও নানা। তবে প্রাইভেটকারে নয়। গতকাল দুপুরে হেলকপ্টারযোগে রাফির মা ও নানাকে ঢাকায় নেয়া হয়েছে।
গতকাল বুধবার সকাল ১০টার দিকে লেভেল ক্রসিংয়ের ওপর হঠাৎ রাফিদের পরিবারের বহণকারী প্রাইভেটকারটি বন্ধ হয়ে যায়। ইঞ্জিন বিকল হয়ে গাড়িটি বন্ধ হওয়ায়, পরবর্তিতে চেষ্টা করেও তা আর চলমান করা সম্ভব হয়নি। ততক্ষণে খুলনা থেকে ছেড়ে আসা 15894741_172789229865667_5235142930059920440_nসৈয়দপুরগামী রূপসা এক্সপ্রেস ট্রেনটি লেভেল ক্রসিংয়ের কাছে প্রায় পৌছে গেছে। রাফির নানা আনোয়ার হোসেন খোকন ও বাবা রেফাজ আহমেদ রিপন গাড়ি থেকে নেমে পরিবারের অন্যন্য সদস্যদের নিরাপদ রাখার চেষ্টা করেন। দ্রুতগামীর রূপসা এক্সপ্রেস ট্রেনটি লেভেল ক্রসিংয়ের ওপর থাকা প্রাইভেটকারটিকে ধাক্কা দেয়। দুমড়েমুচড়ে যায় তাদের বহনকারী প্রাইভেটকার। ঘটনাস্থলেই নিহত হয় চার বছর বয়সি শিশু রাফি ওরফে আহমেদ রাফিদ। আহত হন রাফির নানা আনোয়ার হোসেন খোকন খান (৫৪), মা অ্যানি আখতার (৩০)ও বোন রাফিয়া (৭)।
স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, গতকাল বুধবার সকাল ১০টার দিকে জীবননগর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আন্দুলবাড়িয়া ইউপির সাবেক সদস্য আনোয়ার হোসেন খোকন তাঁর মেয়ের পরিবার নিয়ে নিজগ্রাম থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দেন। তার সাথে ছিলেন, মেয়ে অ্যানি আখতার, জামাই রেফাজ আহমেদ রিপন, নাতি রাফি ও নাতনি রাফিয়া। গাড়ি চালাচ্ছিলেন মেয়ের স্বামী বিমান বাহিনীতে কর্মরত রেফাজ আহমেদ রিপন। dfgrআন্দুলবাড়িয়ার বাড়ি থেকে বের হওয়ার ১০ মিনিটের মধ্যেই গ্রামের বেলতলা লেভেল ক্রসিং পার হতে গিয়ে রেললাইনের ওপরেই ইঞ্জিন বিকল হয়ে বন্ধ হয়ে যায় প্রাইভেটকার। এ সময় খুলনা থেকে সৈয়দপুরগামী রূপসা এক্সপ্রেস ট্রেন বিকল হওয়া ওই প্রাইভেটকারটিকে ধাক্কা দিলে এই দুর্ঘটনা ঘটে। এতে বিএনপি নেতা খোকন খান ও তাঁর মেয়ে এ্যানি গুরুতর আহত হন। উদ্ধারকাজ চালানোর সময়ই মারা যায় খোকনের নাতি চার বছর বয়সি শিশু রাফি।
দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত বিএনপি নেতা আনোয়ার হোসেন খোকন ও তার মেয়ে অ্যানি আখতারকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়। সেখানে তাদের ভর্তি রেখে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। পরে খোকন ও অ্যানির অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেয়ার পরামর্শ দেন চিকিৎসক। দ্রুত তাদের ঢাকায় নেয়ার জন্য হেলিকপ্টার আনা হয়। বুধবার দুপুরে চুয়াডাঙ্গা টাউন ফুটবল মাঠে দুইটি হেলিকপ্টার এসে তাদের নিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হয়। ১০ মিনিটের ব্যবধানে পৃথক দুইটি হেলকপ্টারযোগে বাবা ও মেয়েকে আকাশপথে ঢাকা পিজি হাসপাতালে নেয়া হয়। চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে বিএনপি নেতা খোকন খানকে দেখতে জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাড. ওয়াহেদুজ্জামান বুলা, খন্দকার আব্দুল জব্বার সোনা, মজিবুল হক মালিক মজু, জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সরদার আলী হোসেন, অন্যতম সদস্য শরীফুজ্জামান শরীফসহ বিএনপি ও অংসংগঠনের নেতৃবৃন্দ।এর পরে চুয়াডাঙ্গা টাউন ফুটবল মাঠে বিএনপি নেতা খোকন খান ও তার মেয়ে অ্যানি আখতারকে ঢাকায় নেয়ার সময় ভীড় জমান স্থানীয় রাজনৈতিক, সামাজিক নেতৃবৃন্দসহ ব্যবসায়ী ও সকল পেশার মানুষ।
দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন খোকন ও তার মেয়ে অ্যানি আখতার বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। অ্যানির অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রাখা হয়েছে। খোকনের অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়েছে। তবে তিনি সম্পূর্ণ আশঙ্কামুক্ত নন বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।
জীবননগর থানার অফিসার ইনচার্জ এনামুল হক জানান, আন্দুলবাড়িয়া বেলতলা লেভেল ক্রসিং পার হতে গিয়ে রেললাইনের ওপর পাঁচজন যাত্রী নিয়ে প্রাইভেটকারটির ইঞ্জিন বিকল হয়ে যায়। এ সময় খুলনা থেকে আসা দ্রুতগতির রূপসা এক্সপ্রেস ট্রেনটি লাইনের ওপরে থাকা প্রাইভেটকারকে ধাক্কা দেয়। গুরুতর আহত আনোয়ার হোসেন খোকন ও তাঁর মেয়ে এ্যানিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে অ্যানির স্বামী রিপন ও তাঁদের মেয়ে রাফিয়া সুস্থ আছে।
এ বিষয়ে চুয়াডাঙ্গা স্টেশন মাস্টার আনোয়ার সাদাত জানিয়েছেন, আন্দুলবাড়িয়ার বেলতলা লেভেল ক্রসিংটি রেলওয়ে প্রকৌশল গেট নামে পরিচিত। ওই লেভেল ক্রসিংয়ে কোনো নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেই। কোন গেট ও গেটম্যান না থাকায় স্থানীয়রা নিজ দায়িত্বে পারাপার হতো বলে তিনি জানান।
এদিকে, গতকাল বুধবার বাদ মাগরিব নিহত রাফি ওরফে আহামেদ রাফিদের লাশ গ্রামের বাড়ী জীবননগরের মোক্তারপুর গ্রামের কবরস্থানে দাফন করা হয়। এর আগে মোক্তারপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ময়দানে তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় শরিক হন জীবননগর উপজেলা চেয়ারম্যান আবু মোঃ আব্দুল লতিফ অমল, পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর আলম, সাবেক চেয়ারম্যান গোলাম মোর্তুজা, উথলী ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান হাজী সাইদুর রহমান ধন্দু, উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, আন্দুলবাড়ীয়া ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আতিয়ার রহমান, সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান সোনা, সাংগঠনিক সম্পাদক আজিম খান, মাওলানা সাজেদুর রহমান, খলিলুর রহমানসহ ধর্মপ্রাণ মুসল্লী, সুধী-শিক্ষক, সাংবাদিক, ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক ও সকল পেশার মানুষ।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।