নাসিরপুরে নিহতদের চারজনই শিশু

227

সমীকরণ ডেস্ক: খ- বিখ- দেহের অংশগুলো এতোটাই বিকৃত হয়ে গেছে যে তাদের লিঙ্গ পরিচয় নিশ্চিত করতে পারেননি ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসকরা। মৌলভীবাজারের সিভিল সার্জন ডা. সত্যকাম চক্রবর্তী জানান, নিহতদের মধ্যে দুজন নারী ও একজন পুরুষ। শুক্রবার বিকালে সাতজনের লাশের ময়নাতদন্ত হয়। সদর উপজেলার খলিলপুর ইউনিয়নের নাসিরপুরে বাগান ঘেরা একটি একতলা টিনশেড বাড়ি জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে বুধবার ভোর থেকে ঘিরে রাখার পর সেদিন সন্ধ্যায় শুরু হয় সোয়াটের ‘অপারেশন হিট ব্যাক’। অভিযান শেষ করে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সাত থেকে আটজনের ছিন্নভিন্ন লাশ পাওয়ার কথা জানান পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম। সিভিল সার্জন সাংবাদিকদের বলেন, চারটি শিশুর মধ্যে একজনের বয়স এক বছরের কম। বাকিদের বয়স দুই বছর, সাত বছর ও ১০ বছরের মত। দুই নারীর মধ্যে একজনের বয়স ২০ এর কাছাকাছি এবং অন্যজনের ৩০ এর মত বলে চিকিৎসকদের ধারণা। আর পুরুষটির বয়স আনুমানিক ৩৫ বছর। মৌলভীবাজার জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা পলাশ রায় সাংবাদিকদের জানান, পচন ধরা টুকরো টুকরো দেহখ-গুলোতে স্প্রিন্টারের মত ধাতব টুকরো পাওয়া গেছে। শরীরের বিভিন্ন অংশ বিস্ফোরণে উড়ে গেছে। ডিএনএ পরীক্ষার জন্য লাশগুলোর নমুনা সংগ্রহ করেছেন তারা।