চুয়াডাঙ্গা শনিবার , ৩০ ডিসেম্বর ২০১৭
আজকের সর্বশেষ সবখবর

নদ-নদীর সুরক্ষা ও ইসলাম

সমীকরণ প্রতিবেদন
ডিসেম্বর ৩০, ২০১৭ ৩:৪০ অপরাহ্ণ
Link Copied!

র্ধম ডস্কে: নদীমাতৃক বাংলাদশেে মানুষরে জীবন সর্ম্পূণভাবে পানরি ওপর নর্ভিরশীল। নদ-নদীর পানকিে কন্দ্রে করইে গড়ে উঠছেে এদশেরে মানুষরে জীবনধারা। কন্তিু ভয়াবহ অস্তত্বি সংকটে আমাদরে দশেরে নদ-নদীগুলো। পলি জমে প্রায় ৯৫টি নদী বলিুপ্তরি পথ।ে এতে ভূ-প্রাকৃতকি ভারসাম্যরে ওপর বড় ধরনরে বর্পিযয় নমেে আসার আশঙ্কা করছনে বশিষেজ্ঞরা। নদ-নদী শুকয়িে যাওয়ায় শুকনো মৌসুমে দশেরে বভিন্নি এলাকায় ভূর্গভস্থ পানরি স্তর অনকে নচিে নমেে গছে।ে প্রয়োজন-েঅপ্রয়োজনে সচে ও পানীয় জলরে জন্য ভূর্গভস্থরে পানি তোলায় র্আসনেকিে ভয়াবহভাবে আক্রান্ত হচ্ছে দশেরে বভিন্নি এলাকার মানুষ। নদীগুলো শুকয়িে যাওয়ায় বড় ধরনরে বর্পিযয় নমেে এসছেে দশেরে মৎস্য সম্পদ ও নৌপরবিহন।ে
নদ-নদী মূলত আল্লাহ সৃষ্ট মহান নয়িামত। এই নয়িামতরে মাধ্যমে কবেল মানবজাতকিইে নয়, গোটা বশ্বিজাহানকে টকিয়িে রখেছেনে মহান আল্লাহ। একদনি একটি মুর্হূতরে জন্যও যদি পৃথবিীর বুক থকেে নদ-নদী আর সাগর উঠয়িে নয়ো যায়, মুর্হূতরে মাঝইে নঃিশষে হয়ে যাবে সব কছিু। অহতেুক সৃষ্টি করা হয়নি এসব নদ-নদী। এ প্রসঙ্গে পবত্রি কোরানে এরশাদ হচ্ছ,ে ‘এবং তনিি পৃথবিীতে সুদৃঢ় র্পবত স্থাপন করছেনে। যাতে পৃথবিী তোমাদরে নয়িে আন্দোলতি না হয় এবং স্থাপন করছেনে নদ-নদী ও পথ, যাতে তোমরা তোমাদরে গন্তব্যস্থলে পৌঁছাতে পার। আরো ইরশাদ হয়ছে,ে ‘তনিইি আল্লাহ, যনিি আকাশম-লী ও পৃথবিী সৃষ্টি করছেনে, যনিি আকাশ থকেে পানি র্বষণ করে তা দয়িে তোমাদরে জীবকিার জন্য ফলমূল উৎপাদন করনে, যনিি নৌযানকে তোমাদরে অধীন করে দয়িছেনে যাতে তার বধিানে তা সমুদ্রে বচিরণ করে এবং তনিি তোমাদরে কল্যাণে নয়িোজতি করছেনে নদীগুলো। অন্যত্র ইরশাদ হচ্ছ,ে তনিি পৃথবিীকে বস্তিৃৃত করছেনে এবং তার মধ্য থকেে র্পবত ও নদ-নদী সৃষ্টি করছেনে। তাই আমাদরে উচতি কবেল মানবকি চাহদিা বা প্রয়োজন থকেে নয়, একজন খাঁটি মুসলমান হসিবেে প্রত্যকেটি নদ-নদীর সুষ্ঠু সংরক্ষণে ভূমকিা পালন করা। কোনোভাবে যনে আল্লাহসৃষ্ট এসব নদ-নদীর গতরিোধ না হয় কংিবা কোনো কারণইে যনে মৃত্যুবরণ না করতে হয় নদ-নদীগুলোক।ে এ ব্যাপারে সক্রয়ি ভূমকিা পালন করা আমাদরে ইমানি দায়ত্বি। মনে রাখতে হব,ে নদ-নদীগুলো আমাদরে অযাচতি র্কমকা-রে ফলে হারয়িে গলেে এর ভয়াবহ পরণিতি কন্তিু আমাদরেই ভোগ করতে হব।ে

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।