নতুন সিনেমা নেই প্রেক্ষাগৃহে

171

বিনোদন প্রতিবেদন
একটা সময় নতুন বছরের প্রথম শুক্রবার সিনেমা মুক্তি দেয়ার জন্য প্রযোজক ও নির্মাতাদের মধ্যে এক ধরনের প্রতিযোগিতা লক্ষ্য করা যেতো। বছরের প্রথম সিনেমা মুক্তি নিয়ে প্রচার-প্রচারণাও ছিল চোখে পড়ার মতো। অথচ এখন তা একেবারে নেই বললেই চলে। নতুন বছরের আটদিন এরইমধ্যে কেটে গেছে। মাঝে এক শুক্রবার চলে গেলেও নতুন কোনো সিনেমা প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়নি। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক পরিবেশক সমিতির অফিস সেক্রেটারি সোমেন বাবু বলেন, জানুয়ারি মাসের পাঁচ শুক্রবারের মধ্যে তিন শুক্রবারই ছবিশূন্য। এটা বিশাল হতাশার খবর। বছরের প্রথম শুক্রবারে একটি ভালো সিনেমা প্রেক্ষাগৃহে দরকার হয়, অথচ কোনো সিনেমা মুক্তি পায়নি। আসছে শুক্রবার ‘জয়নগরের জমিদার’ নামে একটি সিনেমা মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে। এদিকে ১৭ই জানুয়ারি ‘কাঠবিড়ালি’ সিনেমাটি মুক্তি পাবে। তবে এটি গত বছর একটি সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছিল। সেই হিসেবে এ বছরের সিনেমা এটি না। আর ২৪শে জানুয়ারি শাপলা মিডিয়া ভারত থেকে আমদানি করা ‘হুল্লোড়’ নামে একটি সিনেমা মুক্তির জন্য তারিখ নিয়েছে। আর মাসের শেষ শুক্রবার অর্থাৎ ৩১শে জানুয়ারি কোনো সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে না। এখন পর্যন্ত এই তারিখটি ফাঁকা রয়েছে বলে তিনি জানান। তাই ধারণা করা হচ্ছে ফেব্রুয়ারি মাসের আগে কোনো ভালো বাজেটের সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে না। প্রযোজক পরিবেশক সমিতির সাবেক আহ্বায়ক ও প্রযোজক নাসির উদ্দিন দিলু বলেন, সম্প্রতি জানলাম এখন সারা দেশে মাত্র ৭০টি সিনেমা হল রয়েছে। আগে সারা দেশে ১২০০ সিনেমা হল ছিল। আস্তে আস্তে সিঙ্গেল সিনেমা হলগুলো দেশের বিভিন্ন জায়গায় বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। বছরের প্রখম শুক্রবার এবার নতুন সিনেমা মুক্তি পায়নি। এটা অবশ্যই হতাশার খবর। ভালো বাজেটের সিনেমা প্রতি মাসে দু-তিনটি মুক্তি না পেলে তো সিনেমা হল আরো বন্ধ হয়ে যাবে। প্রযোজক মোহাম্মদ হোসেন বলেন, সুন্দর কাহিনীর পাশাপাশি ভালো বাজেটের সিনেমা খুব প্রয়োজন। সেই সঙ্গে সিনেমা দেখার জন্য দরকার উপযুক্ত পরিবেশ। দেশের অনেক জায়গায় সিনেমা হল গত দুই বছরে বন্ধ হয়ে গেছে। আমার নিজের সনি সিনেমা হল এখন স্টার সিনেপ্লেক্সের সঙ্গে চুক্তিতে গিয়ে ‘সনি-স্টার সিনেপ্লেক্স’ করা হচ্ছে। শিগগিরই এর উদ্বোধন হবে। চলচ্চিত্রের বাজার চাঙ্গা করতে আরো সিনেপ্লেক্স দেশে প্রয়োজন। সিনেপ্লেক্স বাড়লে সিনেমা হলের পরিবেশ, হল থেকে প্রযোজকের টাকা ফেরতসহ অন্যান্য বিষয়গুলোও ঠিক থাকবে। আমার বিশ্বাস, দর্শকও উন্নত পরিবেশের সিনেমা হলে এখন সিনেমা দেখতে আগ্রহী। এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ভালোবাসা দিবসের জন্য তিনটি সিনেমার প্রস্তুতি চলছে। এ বছর ১৪ই ফেব্রুয়ারি শুক্রবার। ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে রায়হান রাফির ‘পরাণ’, নাদের চৌধুরীর ‘জ্বীন’ ও রবিন খানের ‘মন দেব মন নেব’ নামে তিনটি সিনেমা মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে। এগুলোর মধ্যে ‘পরাণ’ ছবিতে অভিনয় করেছেন বিদ্যা সিনহা মিম, শরিফুল রাজ ও ইয়াশ রোহান। সজল, পূজা চেরি, রোশান ও মুনকে দেখা যাবে ‘জ্বীন’ ছবিতে এবং ‘মন দেব মন নেব’ ছবিতে অভিনয় করেছেন মাহিয়া মাহি ও শিবলী নওমান। জানুয়ারিতে না হলেও আসছে ফেব্রুয়ারিতে ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে মুক্তি পেতে যাওয়া সিনেমাগুলো প্রেক্ষাগৃহে ভালো ব্যবসা করবে বলে ধারণা করছেন চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা।