চুয়াডাঙ্গা বুধবার , ৭ ডিসেম্বর ২০১৬
আজকের সর্বশেষ সবখবর

দৈনিক সময়ের সমীকরণে প্রতিবেদন প্রকাশিত হওয়ায় কালীগঞ্জের সেই ইয়াবা আস্তানায় দলীয় সাইনবোর্ড!

সমীকরণ প্রতিবেদন
ডিসেম্বর ৭, ২০১৬ ১২:৩৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

Madok-Anwer-Picture

নিজস্ব প্রতিবেদক: সময়ের সমীকরণে প্রতিবেদন প্রকাশিত হওয়ায় ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের সেই ইয়াবা আস্তানায় রাতারাতি দলীয় সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে দিয়েছে মাদক ব্যবসায়ীরা। দলীয় সাইনবোর্ড ব্যবহার করে ইয়াবা সেবনের স্থানকে আওয়ামীলীগের কার্যালয় হিসেবে দেখানো হয়েছে। এ নিয়ে ত্রিলোচনপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগে ক্ষোভ বিরাজ করছে। এলাকাবাসির অভিযোগের প্রেক্ষিতে ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের মেম্বর আনোয়ার হোসেনের বির”দ্ধে দৈনিক পত্রিকায় তথ্য ভিত্তিক খবর প্রকাশিত হয়। তিনি বালিয়াডাঙ্গা গ্রামে জনৈক আব্দুল মোমিনের সার গোডাউন দখল করে ইয়াবা বিক্রি ও সেবনের আস্তানা গড়ে তোলেন। এ খবর বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক, আঞ্চলিক ও নিউজপোর্টালে প্রকাশিত হলে মাদক স¤্রাট আনোয়ার মেম্বর সাবধানে চলাচল করতে থাকে। সুচতুর আনোয়ার মেম্বর রাতারাতি বালিয়াডাঙ্গা বাজার থেকে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাইনবোর্ডটি খুলে গ্রামের মধ্যে অবস্থিত সেই ইয়াবা আস্তানায় বসিয়ে দেন। স্থানায়ী আওয়ামীলীগ নেতাদের ভাষ্য, তারা এই সাইনবোর্ডের বিষয়ে কিছুই জানেন না। এদিকে আনোয়ার মেম্বরের মাদক ব্যবসার খবর প্রকাশিত হলে পুলিশ ও বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা খোঁজ নিতে শুর” করেছে। প্রাথমিক ভাবে তারা এর সত্যতাও পেয়েছে। তারা আনোয়ার মেম্বরকে আটক করতে ফাঁদ পেতেছে বলে বিভিন্ন সুত্রে জানা গেছে। উল্লেখ্য ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা ও আশপাশ গ্রামে মাদকের ভয়াবহ বিস্তার ঘটেছে। বিকাল হলে জেলার বিভিন্ন গ্রাম থেকে ইয়াবায় আসক্ত ব্যক্তিরা ভীড় করছে ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নের বালিয়াডাঙ্গা বাজারে। এলাকাবাসি অভিযোগ, ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের মেম্বর আনোয়ার হোসেন নিজেই এই মাদক ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন। নিজে মেম্বর ও সরকারী দলের নেতা পরিচয় দিয়ে গড়ে তুলেছেন ইয়াবা খোরদের বিরাট স¤্রাজ্য। আনোয়ার মেম্বর নিজেই মটরসাইকেলে জেলার বিভিন্ন বাজারে তিনি ইয়াবা পৌছে দিয়ে থাকেন বলে অভিযোগ। ইয়াবায় আসক্তদের জন্য পুর্ব বালিয়াডাঙ্গা গ্রামে মৃত মসলম উদ্দীনের ছেলে আব্দুল মমিনের পুকুর পাড়ে দুইরকম বিশিষ্ট ঘর তোলা হয়েছে। পত্রিকায় খবর প্রকাশের পর সেখানে দলীয় সাইনবোর্ড তুলে বিষয়টি আড়াল করার চেষ্টা হচ্ছে।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।