চুয়াডাঙ্গা বুধবার , ২০ জানুয়ারি ২০২১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

দেশে আরও ২০ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৭০২

সমীকরণ প্রতিবেদন
জানুয়ারি ২০, ২০২১ ৯:২২ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

চুয়াডাঙ্গায় গত সাত দিনে করোনায় একজনও আক্রান্ত হয়নি
সমীকরণ প্রতিবেদন:
গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে দেশে মারা গেছেন আরও ২০ জন। এ সময় নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ৭০২ জন। গতকাল মঙ্গলবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে সুস্থ হয়েছেন ৬৮২ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের বিভিন্ন পরীক্ষাকেন্দ্রে ১৫ হাজার ৯৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। দেশে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে বাংলাদেশে মোট মারা গেছেন ৭ হাজার ৯৪২ জন। মোট সংক্রমিত হয়েছেন ৫ লাখ ২৯ হাজার ৩১ জন। করোনায় সংক্রমিত লোকজনের মধ্যে এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছে মোট ৪ লাখ ৭৩ হাজার ৮৫৫ জন। বাংলাদেশে গত বছরের ৮ মার্চ প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হন। এরপর ১৮ মার্চ করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ে। ক্রমেই মহামারি আকারে সংক্রমণ বিশ্বের প্রায় সব দেশে ছড়িয়ে পড়ে। শুরুর দিকে রোগী শনাক্তের হার কম ছিল। গত বছরের মে মাসের মাঝামাঝি থেকে সংক্রমণ বাড়তে শুরু করে। ওই মাসের শেষের দিক থেকে রোগী শনাক্তের হার ২০ শতাংশের ওপরে চলে যায়, যা আগস্টের তৃতীয় সপ্তাহ পর্যন্ত বজায় ছিল। এরপর থেকে নতুন রোগীর পাশাপাশি শনাক্তের হারও কমতে শুরু করেছিল। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, সারা দেশে করোনা রোগীদের জন্য নির্ধারিত শয্যা রয়েছে ১০ হাজার ৩৮১টি। এসব শয্যায় গত রোববার রোগী ভর্তি ছিলেন ২ হাজার ১২ জন। আর আইসিইউ শয্যা নির্ধারিত রয়েছে ৫৯৮টি। তাতে রোগী ভর্তি ছিলেন ২১০ জন। দেশের মোট চিকিৎসাধীন রোগীর মাত্র ৪ দশমিক ৬৮ শতাংশ হাসপাতালে সেবা নিচ্ছেন। দেশের চিকিৎসাধীন রোগীর বড় অংশ বাড়িতে থেকেই সুস্থ হচ্ছেন।
চুয়াডাঙ্গা:
চুয়াডাঙ্গায় গত সাত দিনে নতুন কেউ করোনা শনাক্ত হয়নি। জেলায় সর্বশেষ গত বুধবার (১৩ জানুয়ারি) করোনা শনাক্ত এক জনের মৃত্যু হয়। এখন পর্যন্ত জেলায় মোট করোনা শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৬৫৭ জন। গতকাল মঙ্গলবার রাত আটটায় জেলা সিভিল সার্জন অফিস এ তথ্য নিশ্চিত করে। গতকাল জেলায় নতুন কেউ সুস্থ হয়নি। এখন পর্যন্ত জেলায় মোট সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৫৪৪ জন।
গত সোববার জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ করোনা পরীক্ষার জন্য ১৫টি নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য প্রেরণ করে। গতকাল উক্ত ১৫টি নমুনার ফলাফলই নেগিটিভ আসে। গতকাল জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ করোনা পরীক্ষার জন্য সদর উপজেলা থেকে ১৫টি, আলমডাঙ্গা থেকে ২টি, দামুড়হুদা থেকে ১টি ও জীবননগর থেকে ১টি নমুনাসহ মোট ১৯টি নমুনা সংগ্রহ করে কুষ্টিয়া পিসিআর ল্যাবে প্রেরণ করেছে।
চুয়াডাঙ্গা সিভিল সার্জন অফিসের সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী জেলা থেকে এ পর্যন্ত মোট নমুনা সংগ্রহ ৭ হাজার ৬৬৪টি, প্রাপ্ত ফলাফল ৭ হাজার ৪৪৪টি, পজিটিভ ১ হাজার ৬৫৭টি, নেগেটিভ ৫ হাজার ৭৮৭টি। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত জেলায় হোম আইসোলেশনে ছিলেন ৯ জন ও প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশনে ছিলেন ৩ জন।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।