দেশের প্রায় সাড়ে ৩ কোটি শিশুকে দেওয়া হবে টিকা

117

চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর ও ঝিনাইদহসহ সারা দেশে হাম-রুবেলা ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন
সমীকরণ প্রতিবেদক:
চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর ও ঝিনাইদহসহ সারা দেশে হাম-রুবেলা ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল শনিবার থেকে শুরু হওয়া এই হাম-রুবেলা টিকাদান কর্মসূচি ক্যাম্পেইন চলবে নতুন বছরের ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত ছয় সমাপ্তব্যাপী। হাম নির্মূল ও রুবেলা নিয়ন্ত্রণে এই ক্যাম্পেইন চলাকালে সারা দেশে ৯ মাস থেকে ১০ বছরের নিচের প্রায় ৩ কোটি ৪০ লাখ শিশুকে ১ ডোজ এমআর টিকা দেওয়া হবে।
চুয়াডাঙ্গা:
চুয়াডাঙ্গায় সপ্তাহব্যাপী হাম-রুবেলা ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ৯টায় চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল চত্বরে ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন করা হয়। চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি। জেলা সিভিল সার্জন ডা. এএসএম মারুফ হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আবু তারেক ও পৌর মেয়র ওবায়দুর রহমান চৌধুরী জিপু।
এই ক্যাম্পেইনের মধ্যে স্বাস্থ্য বিভাগীয় সহকারীদের চলমান কর্মবিরতীর কারণে প্রথম পর্যায়ে চার পৌরসভা এলাকার শিশুদের মাঝে হাম-রুবেলা টিকা প্রদান করা হচ্ছে। সপ্তাহব্যাপী আগামী ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত চলবে এই কর্মসূচি। এবার জেলায় ৯ মাস থেকে ১০ বছর বয়সী ২ লাখ ২৯ হাজার ৮২১ জন শিশুকে টিকা প্রদান করা হবে।
আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি থেকে সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি বলেন, হাম একটি ভাইরাসজনিত মারাত্মক সংক্রামক রোগ। এই রোগ সাধারণত একজন আক্রান্ত রোগীর সংস্পর্শে আসা অন্যদের মধ্যে হাঁচি, কাশির মাধ্যমে অতি দ্রুত ছড়ায়। শিশু ছাড়াও যে কোনো বয়সে হাম হতে পারে। আমরা ছোট বেলায় দেখেছি প্রায়ই শিশুরা এই রোগে আক্রান্ত হতো। তবে শিশুদের মাঝেই এই রোগের প্রকোপ বেশি। টিকাদানের মাধ্যমে আমরা দেশকে পোলিও মুক্ত করতে পেরেছি। টিকাদানের সাফল্যের কারণে প্রধানমন্ত্রী ভ্যাকসিন হিরো খেতাব পেয়েছেন। এখন দেশকে হাম-রুবেলা মুক্ত করতে হবে। টিকা নিলে স্বাস্থ্যের ওপর চাপ কমে, অসুখ কম হয়। দেশের ৯০ শতাংশ শিশুকে টিকার আওতায় আনতে পেরেছে সরকার। শিশুরা আমাদের প্রিয়জন, শিশুদের প্রতি আমাদের যত্নশীল হতে হবে। তাদের টিকা নিশ্চিত করার দায়িত্ব অভিভাবকদের। আমরা টিকা দেওয়ার মাধ্যমে শিশুদের মৃত্যু ঝুঁকি কমাতে পারি। হাম রোগ এবং এর জটিলতার হাত থেকে বাঁচার সর্বোৎকৃষ্ট উপায় হচ্ছে সঠিক সময়ে শিশুকে হামের টিকা দিয়ে সুরক্ষিত করা।
এছাড়াও তিনি আরো বলেন, স্বাস্থ্যা সহকারীরা কর্মবিরতী প্রত্যাহার করে এ কর্মসূূচি সফল করতে এগিয়ে আসবেন। তাঁরা উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে সমস্যা সমাধান করবে বলে আশা করি। এ কর্মসূচি যেন সফলভাবে সম্পন্ন হতে পারে সেদিকে সকলকে সতর্ক থাকতে হবে।
চুয়াডাঙ্গা সিভিল সার্জন ডা. এএসএম মারুফ হাসান জানান, ১২ ডিসেম্বর থেকে ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত জেলার ৩ হাজার ৬৮৯টি কেন্দ্রে শিশুদের এ টিকা দেয়া হবে। এ বছর হাম-রুবেলা টিকাদান ক্যাম্পেইনে জেলার ২ লাখ ২৯ হাজার ৮২১ শিশুকে টিকা দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মধ্যে ৯ মাস থেকে ৫ বছর বয়সী শিশুর সংখ্যা ৯১ হাজার ৬৩২ এবং ৫ থেকে ১০ বছর বয়সী শিশুর সংখ্যা ১ লাখ ৩৮ হাজার ১৯৮। এসব শিশুকে ৩ হাজার ৬৮৯টি কেন্দ্রের মাধ্যমে টিকা দেওয়া হবে। যার মধ্যে আউটরিচ কেন্দ্র ৩ হাজার ৬৭২টি, স্থাায়ী কেন্দ্র ৮টি, ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্র ১টি এবং ফলোআপ কেন্দ্র ৮টি। এ কর্মসূচি বাস্তবায়নের জন্য ১১ হাজার ১৬ জন স্বেচ্ছাসেবক, ৩৩৬ জন টিকাদান কর্মী এবং ১৩৫ জন প্রথম সারির তত্বাবধায়ক নিয়োজিত থাকবেন। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার (আরএমও) ডা. সাজিদ হাসান, শিশু বিশেষজ্ঞ ডা. মাহবুবুর রহমান মিলন, গাইনি কনসালট্যান্ট ডা. আকলিমা খাতুন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সার্ভিলেন্স অ্যান্ড ইম্যুনাইজেশন মেডিকেল অফিসার ডা. তাফসির আহমেদ চৌধুরীসহ জেলা স্বাস্থ্যবিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।
আলমডাঙ্গা:

আলমডাঙ্গা পৌরসভার উদ্যোগে সপ্তাহব্যাপী হাম-রুবেলা ক্যাম্পেইন উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল শনিবার সকাল ১০টায় আলমডাঙ্গা পৌরসভা চত্বরে এই ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন করেন পৌর মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসান কাদির গনু। এসময় তিনি বলেন, ‘পৌরসভার প্রতিটি নাগরিকের নাগরিক সুবিধা দেওয়া আমাদের দায়িত্ব। সরকার দেশের প্রতিটি শিশুকে হারুবেলা টিকা দিতে বদ্ধ পরিকর। আপনারা এই টিকাদান সপ্তাহের মধ্যে স্বাস্থ্যকর্মীদের থেকে নিজের শিশু সন্তানকে টিকা দিন। এবার আলমডাঙ্গায় পৌর এলাকার ১০ হাজার ১’শ ৪৭ শিশুকে হাম-রুবেলা টিকাদানের ক্যাম্পেইন শুরু হয়েছে। এ টিকাদান কর্মসূচি চলবে আগামী ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন আলমডাঙ্গা পৌর প্যানেল মেয়র-১ সদর উদ্দিন ভোলা, ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলালউদ্দীন, জহুরুল ইসলাম স্বপন, আব্দুল গাফ্ফার প্রমুখ।
মেহেরপুর:

মেহেরপুর পৌরসভার উদ্যোগে হাম-রুবেলা ক্যাম্পেইন ২০২০ উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল শনিবার সকাল ৯টায় মেহেরপুর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল চত্বরে এই ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন করা হয়। জেলা সিভিল সার্জন ডা. মো. নাসির উদ্দিন হাম-রুবেলা ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন মেহেরপুর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা. মো. রফিকুল ইসলাম, আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) ডা. মো. মোখলেছুর রহমান, পৌরসভার প্যানেল মেয়র শাহিনুর রহমান রিটন, ইপিআই সুপার আব্দুস সালাম প্রমূখ। মেহেরপুর পৌর এলাকায় এবারের ক্যাম্পেইনে ৯ হাজার ৪’শ ৭৮ জন শিশুকে হাম-রুবেলার টিকা দেওয়া হবে।
ঝিনাইদহ:

ঝিনাইদহে সপ্তাহব্যাপী হাম-রুবেলা ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল শনিবার সকাল ৯টায় ঝিনাইদহ পৌরসভা চত্বরে এ ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ। ঝিনাইদহ পৌরসভার প্যানেল মেয়র-২ জাহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. সেলিনা বেগম, সদর হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা. হারুন-অর-রশিদ। এসময় আরও উপিস্থিত ছিলেন, ঝিনাইদহ পৌরসভার কাউন্সিলর মাহবুবুর রহমান শেখর, সাইফুল ইসলাম মধু। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন পৌরসভার সচিব মুস্তাক আহম্মেদ। পরে শিশুদেরকে হাম-রুবেলার টিকা দেওয়া হয়। স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, গতকাল থেকে শুরু হওয়া এ ক্যাম্পেইন চলবে আগামী ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত। এবারের ক্যাম্পেইনে জেলার ৬ উপজেলার ৯ মাস থেকে ১০ বছরের কম বয়সী ৩ লাখ ৫৬ হাজার ৩’শ ২০ জন শিশুকে হাম-রুবেলার টিকা দেওয়া হবে।