চুয়াডাঙ্গা বুধবার , ২ মার্চ ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

দুদকের মামলায় আসলাম চৌধুরী বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ স্থগিত

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
মার্চ ২, ২০২২ ৮:২০ অপরাহ্ণ
Link Copied!

চট্টগ্রাম: দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) ৩২৫ কোটি ৭৬ লাখ ৩০ হাজার ৯৫৫ টাকা আত্মসাতের অভিযোগের মামলায় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আসলাম চৌধুরী, তার স্ত্রী এবং দুই ভাইয়ের বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ স্থগিত করেছেন আদালত। বুধবার (২ মার্চ ) দুপুরে চট্টগ্রামের বিভাগীয় বিশেষ জজ মুনসি আবদুল মজিদের আদালত এ আদেশ দেন। এর আগে গত ৬ জানুয়ারি একই আদালত চার জনের বিরুদ্ধে বিচার শুরুর আদেশ দিয়েছিলেন। অন্য আসামিরা হলেন- আসলাম চৌধুরী স্ত্রী জামিলা নাজনীন মাওলা ও আসলামের ভাই জসিম উদ্দিন চৌধুরী ও আমজাদ হোসেন চৌধুরী।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৬ সালের ১৬ জুলাই বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আসলাম চৌধুরী, তার স্ত্রী রাইজিং স্টিল মিল লিমিটেডের চেয়ারম্যান জামিলা নাজনীন মাওলা ও ছোট ভাই প্রতিষ্ঠানের এমডি আমজাদ হোসেন চৌধুরী, পরিচালক মো. জসিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে ৩২৫ কোটি ৭৬ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে মামলা করে দুদক চট্টগ্রাম সমন্বিত জেলা কার্যালয়-১। তৎকালীন দুদকের উপ পরিচালক মানিক লাল বাদী হয়ে ডবলমুরিং থানায় মামলাটি দায়ের করেন। পরস্পর যোগসাজশ ও ক্ষমতার অপব্যবহার করে অসৎ উদ্দেশ্যে এবি ব্যাংকের আগ্রাবাদ শাখা থেকে ৩টি ঋণের বিপরীতে ৩২৫ কোটি ৭৬ লাখ ৩০ হাজার ৯৫৫ টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলে প্রাথমিক তদন্তে প্রমাণিত হয়। তাই তাদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৪০৯, ৪২০ ও ১০৯ ধারা এবং ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় মামলা দায়ের করা হয়।

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) বিশেষ পিপি কাজী ছানোয়ার আহমেদ লাভলু বাংলানিউজকে বলেন, টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দুদকের মামলায় আসলাম চৌধুরী ও তার স্ত্রী এবং দুই ভাইয়ের বিরুদ্ধে আজ বুধবার (২ মার্চ) সাক্ষীর জন্য দিন ধার্য ছিল। কিন্তু চার্জ গঠনের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে পিটিশন দায়ের করায়, আজ সাক্ষ্যগ্রহণ হয়নি। আগামী ৫ মে সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য দিন ধার্য করেছেন আদালত।

তিনি বলেন, আদালতে আজ আসলাম চৌধুরী ও আমজাদ হোসেন চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন। আমজাদ হোসেন চৌধুরীর জামিন আবেদন করা হলে আদালত আগামী ২১ মার্চ শুনানির জন্য দিন ধার্য করেন।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।