চুয়াডাঙ্গা সোমবার , ৩ অক্টোবর ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

দামুড়হুদায় নিজ ঘর থেকে বৃদ্ধর মরদেহ উদ্ধার

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
অক্টোবর ৩, ২০২২ ৯:০৭ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

মাহাবুবুর রহমান মনি/ মোজাম্মেল শিশির: চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় সব্বত আলউ (৮৫) নামের এক বৃদ্ধর মরদেহ উদ্ধার করেছে দামুড়হুদা মডেল থানা পুলিশ। গতকাল রোববার সকাল ১০টার সব্বত আলীর বাড়ীর একটি পরিত্যাক্ত ঘর থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহত সব্বত আলী দামুড়হুদা উপজেলার জুড়ানপুর ইউনিয়নের রামনগর গ্রামের ক্লাবপাড়ার মৃত বসির উদ্দীনের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ‘গত শনিবার বিকেল থেকে সব্বত আলউ নিখোঁজ ছিলেন। পরিবারের সদস্যরা অনেক খোঁজাখুজি করেও তার সন্ধান মিলাতে পারেনি। তবে গতকাল সকালে নিহত সব্বত আলীর ছোট ছেল মজনুর রহমানের বউ শিরিনা খাতুন বাড়ীর পরিত্যক্ত মাটির ঘরে তার শ্বশুর সব্বত আলীর মরদেহ দেখতে পায়। এসময় সে চিৎকার করলে প্রতিবেশিরা ছুটে এসে ঘরের মধ্যে সব্বত আলীর মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে। পরে খবর পেয়ে পরে দামুড়হুদা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ফেরদৌস ওয়াহিদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। সুরতহাল প্রতিবেদন শেষে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়। নিহত সব্বত আলীর গলায় ও পেটে আঘাতের চিহ্ন ছিল। ঘরের মেঝেতে রক্তের দাগও পায় পুলিশ।

প্রতিবেশী মনোয়ারা খাতুন নামের এক নারী বলেন, ‘সব্বত আলীর ছোট ছেলে মজনুর স্ত্রী শিরিনা সকালে তার শ্বশুর মারা যাচ্ছে, সকলে তাড়াতাড়ি আসো বলে চিৎকার চেঁচামেচি করে। এসময় আমি আরো প্রতিবেশীদেরকে ডাকি। পরে সবাই মিলে একসঙ্গে ঘরের মধ্যে প্রবেশ করি এবং ধরাধরি করে সব্বত আলীকে বাইরে নিয়ে আসি। বাইরে আনার পরে দেখি নিহতের জামা কাপড়ে অনেক রক্ত, আমার কাপড়েও সেই রক্ত লেগে গেছে।’

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আনিসুজ্জামান লালন বলেন, ‘বেলা ১১টার দিকে খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করি। তার পেটে ও গলায় আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। ঘরের মেঝেতে রক্তের দাগও পাওয়া গেছে। তবে এটি হত্যাকাণ্ড কি না তা এখনি নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত করে বলা সম্ভব হবে।’

এরিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নিহত সব্বত আলীর মরদেহ চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের মর্গের হিমঘরে রাখা হয়েছে। আজ ময়নাতদন্ত হবে বলে জানা গেছে।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।