দামুড়হুদার লোকনাপুরে অটোরিক্সা উল্টে এক গার্মেন্টস ব্যবসায়ী আহত : চিকিৎসা নিতে এসে সদর হাসপাতালের সেচ্ছাসেবকের সাথে বাকবিতন্ডা

345

নিজস্ব প্রতিবেদক: দামুড়হুদা লোকনাথপুরে ব্যাটারীচালিত অটোরিক্সা উল্টে জাহাঙ্গীর আলম জীবন (৩৫) নামের এক গার্মেন্টস ব্যবসায়ী আহত হয়েছে। সে ডুগডুগি মাদ্রাসাপাড়ার জালাল উদ্দীনের ছেলে। এদিকে আহত জীবনকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দিতে নিয়ে এসে এক সেচ্ছাসেবকের সাথে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়ে রোগীর লোকজন।
জানা যায়, গতকাল শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে দর্শনা থেকে ব্যাক্তিগত কাজ শেষে অটোযোগে বাড়ি ফিরছিল জীবন। যাত্রীবাহী অটোটি দামুড়হুদা লোকনাথপুর নামকস্থানে এসে পৌছুলে বীপরিত দিক থেকে আসা একটি ট্রাককে সাইড দিতে গিয়ে সড়কের পাশে উল্টে যায়। এ দূর্ঘটনায় অটো চালক ও অন্যান্য যাত্রীরা তেমন আঘাত না পেলেও জীবনের বাম পায়ে মারাত্মক আঘাত লাগে। তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। হাসপাতালের জরুরী বিভাগে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক কিছু ঔষধ ও প্রয়োজনীয় মালামাল কিনে নিয়ে আসতে বলে রোগীর লোকজনকে। এ সময় হাসপাতালে কর্মরত সেচ্ছাসেবক মিকা রোগীর সাথে আসা লোকজনের কাছ থেকে ৮০০ টাকা নিয়ে চিকিৎসকের লিখে দেওয়া ঔষধ মুহূর্তের মধ্যে সরবরাহ করে। এতে রোগীর লোকজনের সন্দেহ হয় ‘এতদ্রুত ঔষধগুলো সরবরাহ করা হলো কী ভাবে। হাসপাতালে বা নিজের কাছে না থাকলে তো এতদ্রুত ঔষধগুলো সরবরাহ করা সম্ভব নয়’ এ নিয়ে হাসপাতালের সেচ্ছাসেবক মিকার সাথে বাকবিতন্ডা সৃষ্টি হয় রোগীর লোকজনদের। এক পর্যায়ে তাদের দেওয়া ৮০০ টাকা ফিরিয়ে দিতে হয় মিকাকে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত আহত গার্মেন্টস ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর আলম জীবনকে হাসপাতালের সার্জারী ওয়ার্ডে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তার বাম পায়ে মারাত্মক আঘাত লেগেছে।
রোগীর স্বজনরা জানায়, অটোযোগে বাড়ি ফেরার পথে সে দুর্ঘটনায় আহত হয়েছে। তার বাম পায়ে আঘাত লেগেছে। সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এসে ঔষধ কেনা নিয়ে এক সেচ্ছাসেবকের সাথে বাকবিতন্ডা হয়; তবে তা মিমাংসা হয়ে গেছে। এখন সে এই হাসপাতালেই চিকিৎসা নিচ্ছে।