চুয়াডাঙ্গা শনিবার , ২২ অক্টোবর ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

দাঁত সাদা করার ঘরোয়া উপায়

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
অক্টোবর ২২, ২০২২ ৯:৪০ অপরাহ্ণ
Link Copied!

Girl in a jacket

স্বাস্থ্য প্রতিবেদন: দাঁত সাদা হলে তা যেমন দেখতে ভালোলাগে তেমনই আপনার আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দিতে পারে কয়েক গুণ। চিকিৎসকের কাছে গিয়ে দাঁত সাদা করিয়ে নেওয়া সম্ভব। তবে এটি পেতে পারেন ঘরে বসেও। কিছু ঘরোয়া উপায় মেনে চললে দাঁতের হলদেটে ভাব দূর হবে। তার আগে জেনে নিন দাঁত হলদেটে হয় কেন? জিনগত কারণ- অনেক সময় দেখবেন একই পরিবারের প্রায় সব সদস্যের দাঁতের রং একইরকম। এটি মূলত জিনগত কারণে হয়ে থাকে। মা-বাবা কারও দাঁত হলদেটে হলে সন্তানেরও তেমনটা হতে পারে। কারও দাঁতে আবার একধিক শেড দেখা যায়। লালচে হলুদ বা খয়েরি রঙের দাগও থাকতে পারে। ডেনটিন: দাঁতের এনামেল পাতলা হয়ে গেলে দাঁত হলুদ হতে পারে। আমাদের দাঁতে এনামেলের নিচে এক ধরনের উপাদান থাকে যার রঙ গাঢ় হলুদ থেকে খয়েরিও হতে পারে। এই উপাদানই হলো ডেনটিন। এ কারণেও দাঁত দেখতে সামান্য হলদে মনে হতে পারে। খাবার: বয়সের সঙ্গে সঙ্গে অনেক সময় দাঁত হলদেটে হয়ে যায়। এর বড় কারণ হলো, আপনি যা খাচ্ছেন তার প্রভাব পড়ে দাঁতেও। বিভ্নি ধরনের পানীয় ও খাবারে থাকা অ্যাসিড প্রভাব ফেলে এনামেলের ওপর। যে কারণে দাঁত সাদা থেকে হলুদ হয়ে যায়। ধূমপান: ধূমপান সব সময়ের জন্যই ক্ষতিকর অভ্যাস। আপনার যদি ধূমপান করার অভ্যাস থাকে তাহলে তার প্রভাব পড়বে দাঁতেও। নিয়মিত ধূমপান করলে দাঁত হলুদ হতে সময় লাগবে না। তাই হলদেটে দাঁত ও অন্যান্য সমস্যা থেকে বাঁচতে ধূমপান থেকে দূরে থাকুন। যা মেনে চলতে হবে- ১.ঠিকভাবে দাঁত ব্রাশ করতে হবে। দিনে দুইবার দাঁত মাজুন। এতে দাঁতের হলদেভাব কমে আসবে। ২.দাঁতের হলদে ভাব সহজে দূর না হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে পারেন। চাইলে দাঁতে হোয়াইটেনিং ট্রিটমেন্ট করতে পারেন। ৩.দাঁত পরিষ্কার রাখুন। দাঁতের অযত্ন করবেন না। ৪.সব ধরনের ক্ষতিকর পানীয় এড়িয়ে চলুন। এতে দাঁত ক্ষতির হাত থেকে বেড়ে যাবে। ৫. ধূমপানের অভ্যাস থাকলে তা বাদ দিন। দাঁত সাদা করার ঘরোয়া ১টি উপায়- প্রথমে এক চামচ বেকিং সোডা নিন। এরপর তার সঙ্গে মেশান দুই চা চামচ পানি। একটি পেস্টের মতো তৈরি করুন। টুথব্রাশে সেই পেস্ট নিয়ে মিনিট দুয়েক দাঁত মাজুন। বেকিং সোডার ব্যবহারে দাঁত খুব সহজেই সাদা হবে। দাঁতের দাগ-ছোপ দূর হবে। এতে দাঁতের গোড়াও মজবুত হয়।

Girl in a jacket

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।