দর্শনায় প্রবাসীর স্ত্রীকে অস্ত্রের মুখে ধর্ষণচেষ্টা!

163

সমীকরণ প্রতিবেদক:
দর্শনা পৌর এলাকার দক্ষিণ চাঁদপুরে প্রবাসীর স্ত্রীকে দেশীয় অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ উঠেছে প্রতিবেশী হাবলুর বিরুদ্ধে। গতকাল বুধবার রাত সাড়ে আটটার দিকে এ ধর্ষণচেষ্টার ঘটনাটি ঘটে। দর্শনা তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছে।
জানা গেছে, দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা পৌর এলাকার দক্ষিণ চাঁদপুরের বকুলতলাপাড়ার ভ্যানচালক মনির হোসেনের ছেলে রুবেল হোসেন বছর দুয়েক আগে ভাগ্যের চাকা ঘোরাতে প্রবাসে যান। স্বামী বিদেশ যাওয়ার পর থেকে প্রবাসী রুবেলের স্ত্রী আট বছরের এক সন্তান নিয়ে শ্বশুর-শাশুড়ির সঙ্গেই থাকেন। গতকাল রাত সাড়ে আটটার দিকে প্রতিবেশী মাদকসেবী হাবলু তাঁকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন বলে অভিযোগ করেছেন প্রবাসী রুবেলের স্ত্রী।
এ ঘটনায় রুবেলের স্ত্রী অভিযোগ করে এ প্রতিবেদককে বলেন, তিনি প্রতিদিনের ন্যায় শ্বশুর-শাশুড়ির সঙ্গে বসে টেলিভিশন দেখছিলেন। এমন সময় স্বামী রুবেল বিদেশ থেকে মোবাইলে ফোন দিলে ফোনে কথা বলার জন্য পাশের ঘরে যান তিনি। এ সময় আগে থেকে ওত পেতে থাকা প্রতিবেশী মাদকসেবী হাবলু দেশীয় অস্ত্র ধারালো দা নিয়ে রুবেলের স্ত্রীর ঘরে ঢোকেন এবং অস্ত্রের মুখে তাঁকে জিম্মি করে অনৈতিক প্রস্তাব দেন। প্রস্তাবে রাজি না হলে হাবলু তাঁকে ধর্ষণচেষ্টা করলে রুবেলের স্ত্রী চিৎকার শুরু করেন। এ সময় ছেলের বউয়ের হঠাৎ চিৎকারে পাশের ঘর থেকে টিভি বন্ধ করে ছুটে আসেন প্রবাসী রুবেলের মা-বাবাসহ পরিবারের সদস্যরা। সবার উপস্থিতি টের পেয়ে হাবলু পালিয়ে যান। এরপর প্রবাসী রুবেলের পরিবারের সদস্যরা হাবলুর বাড়িতে এ ঘটনার কথা জানাতে যান। এ সময় হাবলু আবারও তাঁদের দা দিয়ে মারতে তেড়ে আসেন। পরে তাঁরা ঘটনাটি পুলিশকে জানান।
এ বিষয়ে দামুড়হুদা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুকুমার বিশ্বাসের সঙ্গে কথা বললে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ‘ঘটনাটি আমি শুনেছি। ঘটনাস্থলে দর্শনা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের উপপরিদর্শক (এসআই) শফিকুল ইসলামকে পাঠিয়েছি। অপরাধীকে আটকে জোর অভিযান অব্যাহত রয়েছে।’