চুয়াডাঙ্গা সোমবার , ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬
আজকের সর্বশেষ সবখবর

দর্শনায় নারী কেলেঙ্কারীর ঘটনায় লম্পট রাজুর শাস্তির দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল মাথাভাঙ্গা পত্রিকায় আগুন: আজ প্রেসক্লাবের সামনে সর্বস্তরের মানুষের মানববন্ধন

সমীকরণ প্রতিবেদন
সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৬ ২:১৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

14368911_357939311262563_5796175393995672570_n

নিজস্ব প্রতিবেদক: চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনায় নারী কেলেঙ্কারীর ঘটনায় দৈনিক মাথাভাঙ্গা পত্রিকার দর্শনা ব্যুরো প্রধান ও প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক বহুল আলোচিত কথিত সাংবাদিক রাজুর শাস্তির দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল এবং সমাবেশ করেছে দর্শনাবাসী। গতকাল বিকাল ৫ টার দিকে কেরুজ বাজার মাঠে এলাকার কয়েক শত সর্বস্তরের মানুষ একত্রিত হয়ে সাংবাদিক রাজুর শাস্তির দাবীতে বিভিন্ন স্লোগান সহকারে এই বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। বিক্ষোভ মিছিলটি দর্শনা শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে রেলবাজার বটতলায় এসে শেষ হয় এবং সেখানে এক প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বক্তারা বলেন, সাংবাদিকরা জাতির বিবেক, তাদের কলমের লেখনিতে ফুটে ওঠে সমাজের দর্পণ। দেশ ও জাতির নানা সংকটময় মূূহুর্তে সংবাদ পত্র ও সাংবাদিকেরাই জাতিকে ন্যায় ও সত্যের পথে চলতে সাহস যুগিয়েছে। আর তাই সাংবাদিকদের কাছে সমাজের প্রত্যাশা অনেক। আবার চরিত্রহীন হলুদ সাংবাদিকদের মানুষ ঘৃণাভরে প্রত্যাখান করে। সম্প্র্রতি নারী কেলেঙ্কারীর ঘটনায় প্রমানিত হয়েছে রাজু সংবাদিকতার কলঙ্ক, এক চরিত্রহীন লম্পট। যা দর্শনাবাসীর মুখে মুখে। এই ন্যাক্কারজনক ঘটনায় রাজু সংশ্লিষ্ট পত্রিকা ও দর্শনা প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় আমরা দিক্কার জানায় দর্শনার প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের ও মাথাভাঙ্গার সম্পাদককে। সাংবাদিক রাজু একাধিক নারী কেলেঙ্কারীর হোতা। আপনার সঠিক ও পক্ষপাতহীন তদন্ত করুন। তাহলেই বেরিয়ে আসবে রাজুর অনেক অপকর্ম। সমাবেশ শেষে বিক্ষোভকারীরা মাথাভাঙ্গা পত্রিকায় আগুন দিয়ে দর্শনাবাসীকে এই পত্রিকাটি বর্জনের আহবান জানান। সেইসাথে নারী কেলেঙ্কারীর ঘটনায় লম্পট রাজুর শাস্তির দাবীতে আজ সোমবার সকাল ১০ টায় দর্শনা প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করবেন বলে ঘোষনা দেন।
এদিকে ঘটনাটিকে ষড়যন্ত্রমূলক আখ্যা দিয়ে অন্যখাতে প্রবাহিত করার জন্য কতিপয় দূর্নীতিবাজ সাংবাদিকদের সহযোগিতায় লম্পট রাজু প্রবাসী স্ত্রী শাপলাকে দিয়ে সুশিল সমাজের শিক্ষিত যুবকদের বিরুদ্ধে আদালতে মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে বলে সমাবেশ থেকে দাবী করা হয়। আদালত সঠিক তদন্ত করলে বেরিয়ে আসবে রাজুর অপকর্ম, এমনটাই দাবী দর্শনাবাসীর।
উল্লেখ্য, কোরবানী ঈদের আগের দিন বিকাল ৫ টার দিকে অসামাজিক কাজে লিপ্ত থাকা অবস্থায় বেরসিক জনতা রাজু ও প্রবাসী বন্ধুর স্ত্রী শাপলাকে হাতে নাতে আটক করে এবং রাজুকে গণধোলাই দেয়। এ সময় উৎসুক জনতা মোবাইল ফোনে গণধোলাইয়ের ছবি ভিডিও করে। মুহুর্তের মধ্য এ খবর ছড়িয়ে পড়লে শতশত নারি পুরুষের ভিড় জমে ওই বাড়িতে। এসময় রাজু নিজের দোষ স্বীকার করে উত্তেজিত জনতার পা ধরে ক্ষমা চায়। উত্তেজিত জনতা লম্পট রাজুর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে বিক্ষোভ করে। খবর পেয়ে দর্শনা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা করে। অবস্থা বেগতিক দেখা দিলে পরে কয়েকজন সাংবাদিকসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গের উপস্থিতিতে রাজুকে উদ্ধার করে।
দর্শনা শান্তিপাড়ার প্রবাসী লিটনের স্ত্রী দু’ সন্তানের জননী শাপলা। প্রায় বছর চারেক আগে সাংবাদিক রাজু শাপলার সাথে ধর্মবোন পাতিয়ে পরকীয়ার সম্পর্ক গড়ে তোলে। এখানে রাজু বছর দুয়েক ধরে বিভিন্ন সময় রাতযাপন করলে পরকীয়ার বিষয়টি মহল্লবাসীর নজরে পড়ে। মহল্লাবাসী তাদের এ ধরনের অনৈতিক কর্মকান্ড দেখে শান্তিপাড়া থেকে প্রবাসী লিটনের স্ত্রী শাপলাকে তাড়িয়ে দেয়। পরে রাজু মাস ছয়েক আগে ধর্মবোন পরিচয়ে কেরুজ প্রাইমারী স্কুলপাড়ার একটি বাড়ি ভাড়া করে সেখানে রাখে। মহল্লাবাসী জানায়, এখানেও বিভিন্ন সময় স্বামী-স্ত্রীর মত দিন-রাত যাপন করলে মহল্লাবাসীর চোখে পড়ে। অনৈতিক কার্যকলাপের ফলে মাস তিনেক আগে মহল্লাবাসীর সহযোগিতায় বাড়ির মালিক শাপলাকে তাড়িয়ে দেয়। এরপর রাজু প্রবাসীর স্ত্রী শাপলাকে আপন ভাবি পরিচয় দিয়ে দর্শনা বাসষ্ট্যান্ড এলাকার ভুট্টাক্রয় কেন্দ্রের পিছনে একটি বাড়িতে ভাড়াটে হিসাবে স্বামী-স্ত্রীর মত থাকে। কিন্তু বিধিবাম এ ভাড়া বাড়িতে তিন মাস ১০ দিনের মাথায় প্রবাসী লিটনের স্ত্রী শাপলার সাথে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়ে। সাংবাদিক রাজুর শাস্তির দাবীতে আজ সোমবার সকাল ১০ টায় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হবে। বিক্ষুব্ধ দর্শনাবাসী আজকের এই মানববন্ধনে সর্বস্তরের সচেতন নাগরিককে অংশ গ্রহনের আহবান জানিয়েছেন।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।