চুয়াডাঙ্গা সোমবার , ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

দক্ষিণ আফ্রিকায় অপহরণ আতঙ্কে বাংলাদেশীরা

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
সেপ্টেম্বর ১২, ২০২২ ৯:৫৯ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

Girl in a jacket

সমীকরণ প্রতিবেদন: দক্ষিণ আফ্রিকায় বসবাসকারী প্রবাসী বাংলাদেশীদের দিন কাটছে এখন অপহরণ আতঙ্কের মধ্যে। সর্বশেষ গত ৮ সেপ্টেম্বর দু’জন অপহৃত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এরমধ্যে কুইন্স শহরের ইন্ডিওয়ে থেকে আল আমীন এবং কিংভেলি শহর থেকে নাসির উদ্দিন নামের দুই বাংলাদেশীকে দুর্বৃত্তরা তুলে নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। নাসিরের বাড়ি নরসিংদীতে এবং আল আমীনের বাড়ি মুন্সীগঞ্জ বলে জানা গেছে। অপহরণের ঘটনার তিন দিন অতিবাহিত হওয়ার পরও দুই যুবককে উদ্ধার করতে পারেনি স্থানীয় প্রশাসন। তবে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাথে বাংলাদেশ হাইকমিশন দফায় দফায় বৈঠক করছে।

অপহৃত পরিবারের ভুক্তভোগীরা বলছেন, শুধু আল আমীন আর নাসির উদ্দিন নন, দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে প্রায়ই প্রবাসী বাংলাদেশী ব্যবসায়ীদের কেউ না কেউ অপহরণের শিকার হচ্ছেন। এ বিষয়ে দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে দক্ষিণ আফ্রিকা সরকারের সাথে দ্রুত বৈঠক করে অপহৃতদের উদ্ধার ও জড়িত দুর্বৃত্তদের আইনের আওতায় আনা পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য জোর দাবি জানিয়েছেন অপহৃতদের স্বজনসহ সংশ্লিষ্টরা।

দক্ষিণ আফ্রিকায় বসবাসকারী বাংলাদেশীদের অভিযোগ, ব্যবসায়ীদের অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবি নিয়মিত ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে, যার কারণে অধিকাংশ প্রবাসী ব্যবসায়ীকে থাকতে হচ্ছে অপহরণ আতঙ্কে। তাদের মধ্যে কেউ কেউ অপহরণকারীদের হাত থেকে বাঁচার জন্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সোচ্চার হচ্ছেন। দক্ষিণ আফ্রিকায় অপহৃত ব্যবসায়ীদের উদ্ধারে স্থানীয় প্রশাসনের সাথে কাজ করছেন বাংলাদেশী শফিকুল ইসলাম। তার মতে, দেশটিতে প্রতি সপ্তাহে তিন-চারটি অপহরণের ঘটনা ঘটছে বলে আমরা জানতে পারছি। বাস্তব চিত্র আরো ভয়াবহ। মূলত কয়েকটি দেশের সমন্বয়ে মাফিয়া চক্র এসব অপহরণের ঘটনা ঘটাচ্ছে বলে আমরা জানতে পারছি। এর সাথে বাংলাদেশীদের জড়িত থাকার কথা মাঝে মধ্যে উঠছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

দক্ষিণ আফ্রিকায় বাংলাদেশ হাইকমিশনের থার্ড সেক্রেটারি কামরুল আলম অপহরণ সম্পর্কিত এক প্রশ্নের উত্তরে জানান, কেপটাউনে অপহৃত আক্তার প্রধানকে উদ্ধারে স্থানীয় প্রশাসন বেশ আন্তরিক। তারপরও ঘটনাগুলো নিয়ে আমরা দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাথে কাজ করে যাচ্ছি। ঘটনা ঘটার সাথে সাথে আমরা বিষয়টি অবহিত করছি।

Girl in a jacket

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।