চুয়াডাঙ্গা সোমবার , ৬ নভেম্বর ২০১৭
আজকের সর্বশেষ সবখবর

তিন দম্পতির আবেদন : আজ আদালতের রায়ে ঠিকানা পাবে শিশুটি

সমীকরণ প্রতিবেদন
নভেম্বর ৬, ২০১৭ ৯:৫১ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ফেলে যাওয়া সেই কন্যাসন্তানের দায়িত্ব নিতে তত্বাবধায়ক বরাবর

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রসবের পর পালিয়ে যাওয়া মা তার সন্তানকে লালন পালন না করলেও এগিয়ে এসেছে অনেকে। শিশুটিকে একনজর দেখলে যে কেউই মায়ায় পড়ে যেতে পারেন। আর সেই শিশুর দু’চোখ এখন তার সবচেয়ে নিরাপদ স্থান মায়ের কোল খুঁজছে। জন্মের পরই কোল হারানো সেই শিশু আজ প্রথমবারের মতো উঠতে পারে মায়ের কোলে। মাত্র ৫দিন বয়সী কন্যা শিশুটিকে লালনপালনের সুযোগ চেয়ে ইতিমধ্যে আদালতে আবেদন করেছেন ৩ দম্পত্তি। তাঁদের মধ্যে কে সেই সুযোগ পাবেন সে বিষয়ে আদালত আজ সোমবার সিদ্ধান্ত দেবেন বলে জানা গেছে।
গত বৃহস্পতিবার রাতে ফুটফুটে কন্যাসন্তান প্রসবের পর পরদিন শুক্রবার সকালে হাসপাতালের বেডে সন্তানকে রেখেই মা পালিয়ে যায়। এরপর থেকে নবজাতকের সুচিকিৎসাসহ নিরাপদ আশ্রয়ের জন্য হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স তৃষ্ণা মনির হেফাজতে রাখা হয়। বিষয়টি স্থানীয় পত্রপত্রিকায় গুরুত্বসহকারে প্রকাশ হলে সন্তান দত্তক নিতে চুয়াডাঙ্গাসহ আশপাশ জেলা থেকে প্রচুর মৌখিক আবেদন আসে। শেষ পর্যন্ত পিতা-মাতা হিসেবে শিশুটির দায়িত্ব নিতে হাসপাতাল তত্ত্বাবধায়ক বরাবর লিখিত আবেদন করেছেন পৌর শহরের আব্দুল আলীম দম্পত্তি, দক্ষিণ হাসপাতালপাড়ার মফিজুল ইসলাম-শান্তনা দম্পত্তি ও মেহেরপুরের আব্দুল জব্বার।
তিন জনের আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালতের স্মরনাপন্ন হতে বাধ্য হয় কর্তৃপক্ষ। সে লক্ষে আজ সোমবার সন্তানের দায়িত্ব কাকে দেওয়া হবে তা’র যাচাই-বাছাই শেষে শুনানি করা হবে। এদিকে আবেদন প্রার্থীরা শিশুটিকে তাদের নিজের সন্তানের মত করে মানুষ করবেন, প্রতিষ্ঠিত করে তুলবেন, বোঝা মনে করবেন না বলে জানান। এতেও শিশুটির ঠিকানা না মিললে সমাজসেবা অধিদপ্তরের মাধ্যমে নবজাতিকাকে শিশু সেভহোমে পাঠানো হবে। সেখান থেকেও নিঃসন্তান দম্পত্তি ওই শিশুকে দত্তক নিতে পারবে।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।