চুয়াডাঙ্গা বৃহস্পতিবার , ১২ মে ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ঠিকাদার কামাল হোসেন হত্যাকাণ্ড: ১১ জনকে আসামি করে মামলা, চারজন আটক

আলমডাঙ্গা অফিস:
মে ১২, ২০২২ ৩:০১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার জেহালা ইউনিয়নের সাবেক বিএনপি নেতা ও বিশিষ্ট ঠিকাদার কামাল হোসেন হত্যাকাণ্ডের চার এজাহারনামীয় আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাড়ি থেকে নিয়ে গেছে র‌্যাব। তবে মামলার প্রধান আসামিসহ ৭ আসামি রয়েছেন পলাতক। গত মঙ্গলবার রাতে তাদেরকে ঝিনাইদহ র‌্যাব-৬ ক্যাম্পে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ অব্যাহত রাখা হয়েছে।

আলমডাঙ্গা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুল আলিম জানান, গত মঙ্গলবার নিহতের স্ত্রী সেলিনা আক্তার বাদী হয়ে ১১ জনকে আসামি করে আলমডাঙ্গা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। আটককৃতরা সকলেই এজাহারভুক্ত আসামি। জানা যায়, র‌্যাব অভিযান চালিয়ে গত মঙ্গলবার রাতে আলমডাঙ্গা পৌর এলাকা থেকে হারদী গ্রামের ওবাইদুল ইসলাম খানের ছেলে সাজ্জাদুল ইসলাম স্বপন (৪৭), মুন্সিগঞ্জের মৃত আলাউদ্দীনের ছেলে রফিক, মৃত আলফাজের ছেলে বিমান ও তোফাজ্জেল হোসেনের ছেলে তরিকুল ইসলামকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে। গত মঙ্গলবার নিহত কামাল হোসেনের স্ত্রী সেলিনা আক্তার বাদী হয়ে ১১ জনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এজাহারে উল্লেখিত অন্য আসামিরা হলেন- প্রধান আসামি মুন্সিগঞ্জের মৃত মোতাহার হোসেনের ঘরজামাই ও বামানগর গ্রামের কাশেম আলীর ছেলে স্বাধীন, মুন্সিগঞ্জের মৃত সিদ্দিক মিয়ার দুই ছেলে সালাউদ্দীন ও আব্দুস সাত্তার, মৃত মোতাহার আলীর স্ত্রী ইসমাতারা বিউটি, মৃত ঈমান আলীর মেয়ে সাইমা নিগার ও মৃত ঈমান আলীর ছেলে তোফাজ্জেল হোসেন মিয়া।

প্রসঙ্গত, আলমডাঙ্গার জেহালার বিশিষ্ট ঠিকাদার ব্যবসায়ী কামাল হোসেনকে (৬৪) পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। জমি নিয়ে বিরোধে তাকে গত সোমবার দিনগত রাত ১১টার দিকে এ হত্যাকাণ্ড ঘটে। একই গ্রামের ঘরজামাই স্বাধীন নামের এক ব্যক্তি তাকে হত্যা করেছেন বলে পারিবারিকভাবে দাবি করা হয়েছে।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।