টাকা তুলতে খাটিয়া টেনে মাকে নিয়ে ব্যাংকে মেয়ে!

154

বিষ্ময় প্রতিবেদন
ব্যাংকের নিয়ম বলে কথা। তবে নিয়ম রক্ষা করতে এগিয়ে এমন মর্মান্তিক দৃশের সাক্ষী হতে হবে কে জানতো। পেনশনের টাকা তুলতে শতায়ু শয্যাশায়ী মাকে খাটিয়াসহ ব্যাংকে টেনে নিয়ে গেলেন মেয়ে। ভারতের ওডিশার নৌপাড়া এলাকায় মর্মস্পর্শী এ ঘটনা ঘটেছে। জানা গেছে, পেনশন তুলতে ব্যাংক ম্যানেজার অ্যাকাউন্টের মালিক শতায়ু এই নারীর সশরীরে হাজিরা চেয়েছিলেন। মেয়ের কাকুতি-মিনতি সত্ত্বেও ম্যানেজারের মন গলেনি। তাই অগত্যা শতায়ু মাকে খাটিয়ায় চাপিয়ে টানতে টানতে ব্যাংকে হাজির করলেন মেয়ে। ঘটনার ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিন্দার ঝড় ওঠে। তবে অভিযোগ অস্বীকার করে জেলা কালেক্টর দাবি, ম্যানেজার পরদিন ওই মহিলার বাড়িতে গিয়ে ভেরিফাই করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু অপেক্ষা করতে চাননি ওই মহিলা। এ খবর দিয়েছে হিন্দুস্থান টাইমস।
করোনায় লকডাউন পরিস্থিতিতে দরিদ্র মহিলাদের অ্যাকাউন্টে প্রতি মাসে পাঁচশো টাকা করে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সেই টাকা তুলতে গিয়েই যত বিপত্তি। ভিডিওতে দেখা যায়, ৬০ বছরের পুঞ্জমতী দেই তার শতায়ু মায়ের খাটিয়া টানতে টানতে নিয়ে যাচ্ছেন। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ৯ জুন উতকল গ্রামীণ ব্যাংকের স্থানীয় শাখায় গিয়েছিলেন পুঞ্জমতী। সেখানে তার মায়ের অ্যাকাউন্ট রয়েছে। দেড় হাজার টাকা তুলতে গিয়ে বিপত্তি বাঁধে। ব্যাংক ম্যানেজার জানান, যার অ্যাকাউন্ট তাকেই আসতে হবে। নয়তো টাকা মিলবে না। এরপরই মাকে টানতে টানতে ব্যাংকে নিয়ে আসেন পুঞ্জমতী দেবী। অভিযোগ অস্বীকার করে প্রশাসনের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, একা ম্যানেজার ব্যাংকটি চালান। তার পক্ষে সেদিনই বাড়ি গিয়ে ভেরিফিকেশন করা সম্ভব ছিল না। পরদিন যাবেন বলেছিলেন। কিন্তু পুঞ্জমতীর তর সয়নি।