চুয়াডাঙ্গা মঙ্গলবার , ১ আগস্ট ২০১৭
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ঝিনাইদহ ভেটেরিনারি কলেজের মহিলা হোষ্টেল কর্মচারীর চেক জালিয়াতি! : ব্যাংকের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে টাকা উত্তোলনকারি সনাক্ত

সমীকরণ প্রতিবেদন
আগস্ট ১, ২০১৭ ৬:৫২ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ঝিনাইদহ অফিস: ইউসিবি ব্যাংক ঝিনাইদহ থেকে  সরকারি ভেটেরিনারি কলেজের মহিলা হোষ্টেলের কর্মচারী বুলবুলির টাকা জালিয়াতি করে উত্তোলন করেছেন একই কলেজের অফিস সহায়ক তহমিনা আক্তার ময়না। চেক নাম্বার ১০৪৪২৮১ ,জালিয়াতি  ১৪,০০০/-(চোদ্দ হাজার) টাকা।
বুলবুলি লিখিত অভিযোগ করেন, কলেজের মহিলা হোষ্টেলের অফিস সহায়ক তহমিনা আক্তার ২৫/০৭/২০১৭ইং তারিখে তার চেক চুরি করে, তার স্বাক্ষর এবং আরেক সহকারী শামীমা আক্তার লতার স্বাক্ষর জালিয়াতি করে ইউসিবি ব্যাংক ঝিনাইদহ শাখার থেকে ১৪,০০০/-(চোদ্দ হাজার) টাকা উত্তোলন করেছে। তিনি আরো বলেন, তহমিনা আক্তার শামীমা আক্তার লতাকে ফাসানোর জন্যই আমার চেকের অপর পেজে তার স্বাক্ষর দিয়ে টাকা উঠায়েছে।
ইউসিবি ব্যাংক ঝিনাইদহ শাখার ম্যানেজার মোঃ আব্দুল কাদের বলেন, ২৫ তারিখে দুপুর ২টার সময় তহমিনা দুইটা চেক নিয়ে আসে। একটা তার নিজ নামে এবং অপরটি বুলবুলির নামের চেক, কিন্তু অপর পেজে শামীমা আক্তারের নাম লেখা স্বাক্ষর। পরে দুইটা চেক হতেই টাকা উত্তোলন করেন। পরের দিন বুলবুলি তার চেক নিয়ে টাকা উঠাতে ব্যাংকে এসে চেক জমা দেয়। ব্যাংক কর্মকর্তা তাকে বলেন এই চেকে ২৫ তারিখে টাকা উত্তোলন হয়েছে। একথা শুনা মাত্রই মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ে বুলবুলির। সে দিশেহারা হয়ে আমার কাছে ছুটে যায়। তখন আমি বিষয়টি আমলে নিয়ে ব্যাংকের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে টাকা উত্তোলন কারিকে সনাক্ত করি।
টেলিফোনে তহমিনাকে জিজ্ঞাস করলে সে বিষয়টি অস্বীকার করে। পরে তহমিনার ভাই সোহাগকে ব্যাংকে ডাকলে তারা দুজনই ব্যাংকে আসে। অতপর ম্যানেজারের কাছে ঘটনার স্বীকার করে লিখিত ভাবে ক্ষমা চেয়ে নেয়।
এবিষয়ে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ডাক্তার অমলেন্দু ঘোষ ঘটনা সত্যতা স্বীকার করে বলেন বিষয়টি আমরা আমলে নিয়েছি। যাচাই-বাচাই করে আইন আনুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।