চুয়াডাঙ্গা শনিবার , ৫ মার্চ ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ঝিনাইদহে শিক্ষক দম্পত্তির ওপর হামলার অভিযোগ

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
মার্চ ৫, ২০২২ ৯:০৪ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ঝিনাইদহ অফিস:

ঝিনাইদহ সদর উপজেলার সাধুহাটি ইউনিয়নের বারোমাইল নামক স্থানে নাছিমা খাতুন ও তাঁর স্বামী এটিএম শফিকুজ্জামান টুলু নামে দুই শিক্ষককে পিটিয়ে আহত করা হয়েছে। শিক্ষক নাছিমার গায়ের ওড়না ছিড়ে শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করা হয় এবং তাঁর স্বামী শফিকুজ্জামান টুলুকে পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ পার্শ্ববর্তী জমির মালিক মোহন খা ও আপন খাকে আটক করেছে। এ ঘটনায় সাধুহাটি বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষক নাছিমা খাতুন বাদী হয়ে এ ঘটনায় গতকাল শুক্রবার দুপুরে ঝিনাইদহ সদর থানায় এজাহার দিয়েছেন।

থানায় দায়েরকৃত মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, গতকাল শুক্রবার সকালে সাধুহাটি বারোমাইল এলাকার নিজের জমিতে কাজ করতে  গেলে এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী পোতাহাটি গ্রামের জয়নাল খার ছেলে মোহন, আপন খা’র নেতৃত্বে বদর খা ও জয়নাল দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে শিক্ষক দম্পত্তির ওপর হামলা চালায়। এ ঘটনায় তাঁরা দু’জনই আহত হন। খবর পেয়ে ডাকবাংংলা পুলিশ ফাঁড়ির তদন্ত কর্মকর্তা এসআই বিল্লাল গনি শিক্ষক দম্পত্তি নাছিমা ও তাঁর স্বামী শফিকুজ্জামান টুলুকে উদ্ধার করেন। এসময় ঘটনাস্থল থেকে মোহন খা ও আপন খাকে আটক করে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ৩১ নম্বর সাধুহাটি মৌজার ৬৩২৪ দাগে এই শিক্ষক দম্পত্তি ৯ শতক জমি ক্রয় করেন। জমিটি ঝিনাইদহ-চুয়াডাঙ্গা সড়কের পাশে হওয়ায় পোতাহাটি গ্রামের জয়নাল ও বদর খার শকুনি দৃষ্টি পড়ে। তাঁরা এই জমি দখলের জন্য সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হয়। শিক্ষক নাছিমা আইনি সমাধানের জন্য ঝিনাইদহ বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে মামলা করেন, যার পিটিশন নম্বর ৫২৭/২১। বিজ্ঞ আদালতের বিচারক সালমা সেলিম কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করে শিক্ষক দম্পত্তির পক্ষে রায় দেন এবং জমিতে কাজ করার দিদের্শনা জারি করেন। আদালতের নির্দেশে মামলা চলকালীন সময়ে জমির দখল সত্ত্ব ও ম্যাপ তৈরি করেন ঝিনাইদহ এসিল্যান্ড অফিসের সার্ভেয়ার নজরুল ইসলাম। আদালতের নির্দেশনা পেয়ে ঝিনাইদহ সদর থানার এসআই মখলেছুর রহমান বিষয়টি সমাধানের জন্য সদর থানায় উভয় পক্ষকে ডেকে প্রতি জয়নাল ও বদর খার সন্তানদের জমির ওপর না যেতে নির্দেশ দেয়। অথচ বিজ্ঞ আদালত ও পুলিশের নির্দেশনা পেয়ে শিক্ষক গতকাল দম্পত্তি শুক্রবার সকালে নিজ জমিতে কাজ করতে গেলে হামলার শিকার হন। এদিকে জমির হাল রেকর্ড, দখল, দলিল ও আরএস খতিয়ান সন্দেহাতীতভাবে শিক্ষক দম্পত্তির পক্ষে থাকলেও পোতাহাটি গ্রামের জয়নাল ও বদর খা জোরপূর্বক জমিটি দখলের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ করেন শিক্ষক নাছিমা বেগম। ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি শেখ মো. সোহেল রানা জানান, এ বিষয়ে শিক্ষক নাছিমা খাতুন সদর থানায় অভিযোগ দিয়েছেন। পুলিশ তদন্ত করে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে তিনি জানান।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।