চুয়াডাঙ্গা শুক্রবার , ২৫ নভেম্বর ২০১৬
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ঝিনাইদহে নৌ কর্মকর্তার ঘুষিতে পুলিশের এসআই আহত

সমীকরণ প্রতিবেদন
নভেম্বর ২৫, ২০১৬ ৩:২৭ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

SDF

ঝিনাইদহ অফিস: ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে আসামি ধরাকে কেন্দ্র করে সুরোত আলী নামে এক নৌবাহিনীর অফিসারের কিল ঘুষিতে জখম হয়েছে পুলিশের এসআই গোবিন্দ কুমার। কালীগঞ্জ উপজেলার তত্বিপুর বাজারে বুধবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। লাঞ্ছিত এসআই গোবিন্দের চোখ-মুখে জখম হওয়ায় তাকে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে চট্টগ্রাম নৌ-বাহিনীতে কর্মরত চিফ পেটি অফিসার সুরোত আলীকে আটক করেছে পুলিশ। সুরত আলী মালিয়াট গ্রামের ওয়াজেদ আলীর ছেলে। এ ঘটনায় পুলিশ রবিউল ইসলাম নামে আরো একজনকে আটক করেছে। আহত এসআই কালীগঞ্জ উপজেলার মালিয়াট ইউনিয়নের তত্বিপুর পুলিশ ফাঁড়ির তদন্ত কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্বে রয়েছেন। খবর পেয়ে কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল পুলিশ তত্বিপুর ফাঁড়িতে যান। এরপর রাত ১০টার দিয়ে আটক সুরত আলী ও রবিউলকে কালীগঞ্জ থানায় নিয়ে আসেন। এ ব্যাপারে কালীগঞ্জ থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই ইমরান আলম জানান, বুধবার রাতে এসআই গোবিন্দ কুমার ওয়ারেন্টভুক্ত এক আসামি ধরেন। এ সময় সুরত আলী ও স্থানীয় আওয়ামী লীগের সমর্থকরা পুলিশকে আসামি ছেড়ে দিতে বলেন। আসামী ছাড়া নিয়ে পুলিশের সঙ্গে তর্ক শুরুর এক পর্যায়ে সুরোত আলী এসআই গোবিন্দের চোখে মুখে ঘুষি মারেন। এতে তিনি আহত হন। আটক নৌবাহিনীর কর্মকর্তা সুরোত আলীর ভাগ্নে হাসেম আলী বলেন, ‘আমার মামা প্রায় এক সপ্তাহ হলো ছুটিতে বাড়িতে এসেছেন। বুধবার বিকেলে ফাঁড়ি ইনচার্জ গোবিন্দ বাবু তত্বিপুর বাজারে এসে আসামি ধরার সময় অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। গালি দেবার সময় মামার সঙ্গে এসআই গোবিন্দ কুমারের বাগবিতন্ডা হয়। পুলিশ মামাকেও অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করতে করতে মারতে তেড়ে আসে। এ সময় মামা গোবিন্দকে ধাক্কা দিলে পাশে থাকা একটি বাইসাইকেলের উপর পড়ে চোখের পাশে কেটে যায়।’

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।