ঝিনাইদহে আওয়ামী লীগ কর্মীকে কুপিয়ে জখম

ঝিনাইদহ অফিস:
ঝিনাইদহে ছব্দুল্লাহ (৫৮) নামের এক আওয়ামী লীগ কর্মীকে কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষরা। ঘটনাটি ঘটেছে সদর উপজেলার সুড়োপাড়া গ্রামে। এ ঘটনায় আহত আওয়ামী লীগ কর্মী ছব্দুল্লাহ’র ছেলে পলাশ বাদী হয়ে ৮ জনের নাম উল্লেখ করে এজাহার দাখিল করেছে। মামলার আসামিরা হলেন, সদর উপজেলার সুড়োপাড়া গ্রামের মনিরুল ইসলাম ওরফে জমিদার (৪০), উজ্জ্বল (৩৮), রফিকুল (৪০), লিটন (৩৫) সুজন (২৫), আশিক (২৭), মামুন (৪০), রাশেদ (৪৩) ও হিরাডাঙ্গা গ্রামের ফিরোজ হোসেন (৫৫) এবং অজ্ঞাতনামা আরো ৭/৮ জন।
মামলার বাদী পলাশ বলেন, ‘পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আজ (গতকাল) সকালে আমার পিতা নিজ বাড়িতে দাঁড়িয়ে ছিলেন। এসময় হঠাত মামলার আসামিরা মনিরুল ইসলাম ওরফে জমিদারের নেতৃত্বে আমার পিতাকে হত্যার উদ্দেশ্য ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে মারাত্মকভাবে জখম করে পালিয়ে যায়। এসময় স্থানীয়রা আমার বাবাকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। তার শারিরীক অবস্থার অবনতি হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন।
এ বিষয়ে ঝিনাইদহ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ মোহাম্মদ সোহেল রানা বলেন, ‘এ ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’