জেলা শিল্পকলা একাডেমি সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক জিয়াউদ্দীন আহমেদ

571

চুয়াডাঙ্গাতে অচিরেই একটি অত্যাধুনিক কালচারাল কমপ্লেক্স নির্মাণ করা হবে
নিজস্ব প্রতিবেদক: জেলা শিল্পকলা একাডেমি সম্মাননা ২০১৬ ও ২০১৭ প্রদান করা হয়েছে। চুয়াডাঙ্গা জেলায় শিল্প-সংস্কৃতির ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ ২০১৬ ও ২০১৭ দুই বছর মিলে জেলার ১০জন গুণী ব্যক্তিকে এই সম্মাননা প্রদান করা হয়। এ উপলক্ষে গতকাল সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় চুয়াডাঙ্গা জেলা শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গনের শ্রীমন্ত টাউন হলে সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠান হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে গুণীজনদেরকে সম্মাননা প্রদান করেন জেলা প্রশাসক ও জেলা শিল্পকলা একাডেমির সভাপতি জিয়াউদ্দীন আহমেদ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন- একটি জাতির সাংস্কৃতিক পরিচয়ই তার আসল পরিচয়। বাঙালি জাতির হাজার বছরের যে পথচলা, স্মৃতি-শ্রুতি-স্বপ্ন-সংগ্রাম সব মিলিয়েই আমাদের সংস্কৃতি, আমাদের সাংস্কৃতিক পরিচয়। জানা অজানা শত শত গুণীজনের অসামান্য অবদানে আমার আজ বর্তমান প্রেক্ষাপটে দাঁড়িয়ে আছি। তাই তাদের শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করা ও স্বীকৃতি দেওয়া জাতির কর্তব্য। এসময় তিনি আরো বলেন, চুয়াডাঙ্গাতে কোনো ভালো অডিটোরিয়াম নেই। তাছাড়া বর্তমান সরকার একটি করে কালচারাল কমপ্লেক্স করার কথা ভাবছে। গত ডিসি সম্মেলনে আমি সংস্কৃতি মন্ত্রী ও সচিব মহোদয়কে চুয়াডাঙ্গার কথা বলেছি। তারা আমাকে বলেছেন চুয়াডাঙ্গায় জায়গা দিলে কালচারাল কমপ্লেক্স নির্মাণ করা হবে। চুয়াডাঙ্গাতে অচিরেই একটি অত্যাধুনিক কালচারাল কমপ্লেক্স নির্মাণ করা হবে।
জেলা কালচারাল অফিসার জসীম উদ্দীনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. কলিমুল্লাহ, চুয়াডাঙ্গা সরকারি আদর্শ মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর নওরোজ মোহাম্মদ সাঈদ, চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার মেয়র ওবাইদুর রহমান চৌধুরি জিপু। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক মুন্সি জাহাঙ্গীর আলম মান্নান।
জেলা শিল্পকলা একাডেমি সম্মাননা-২০১৬ প্রাপ্ত ৫ গুণী জন হলেন- নাট্যশিল্পে হারুন অর রশিদ, কন্ঠসংঙ্গীতে আলী আশরাফ, যন্ত্রসংগীতে সুশীল কুমার কর্মকার, লোক সংস্কৃতিতে মনিরুজ্জামান ধীরু বাউল, নৃত্যকলায় নুঝাত পারভীন এবং জেলা শিল্পকলা একাডেমি সম্মাননা-২০১৭ প্রাপ্ত ৫ গুণীজন হলেন- আবৃত্তি শিল্পে বিশিষ্ট আবৃত্তিকার ও উপস্থাপক চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের বাংলা বিভাগের সহকারি অধ্যাপক মুন্সি আবু সাইফ, নাট্যকলায় আনোয়ার হোসেন, কন্ঠসঙ্গীতে কিয়ামত আলী বিশ্বাস, যাত্রাশিল্পে খোন্দকার সাহেদুজ্জামান (খোকন), যন্ত্র সংঙ্গীতে জামাল উদ্দীন। গুণীজনদেরকে সম্মাননা স্মারক স্বরূপ জেলা শিল্পকলা একাডেমির উত্তরীয়, শিল্পকলার মনোগ্রাম খচিত একটি মেডেল, একটি সার্টিফিকেট ও নগদ ১০ হাজার টাকার চেক তুলে দেন জেলা প্রশাসক জিয়াউদ্দীন আহমেদ। পরে জেলা শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়। উল্লেখ্য, সংস্কৃত মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির উদ্যোগে ২০১৩ সাল থেকে এই পদক প্রদান করা হচ্ছে।