চুয়াডাঙ্গা রবিবার , ১১ সেপ্টেম্বর ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

জেলা পরিষদে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেলেন মেহেরপুরে সালাম, ঝিনাইদহে কনক ও চুয়াডাঙ্গায় মনজু

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
সেপ্টেম্বর ১১, ২০২২ ৪:৫৫ অপরাহ্ণ
Link Copied!

Girl in a jacket

নিজস্ব প্রতিবেদক: চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর ও ঝিনাইদহসহ দেশের ৬১ জেলায় আসন্ন জেলা পরিষদ নির্বাচনে উপলক্ষে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ তাদের দলীয় প্রার্থীদের নামের চূড়ান্ত তালিকা ঘোষণা করেছে। এরমধ্যে সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের আসন্ন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন জেলা পরিষদের সাবেক প্রশাসক ও দামুড়হুদা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহফুজুর রহমান মনজু।

এদিকে, মেহেরপুর জেলা পরিষদের নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহসভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম। এছাড়া ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও ঝিনাইদহ জেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান কনক কান্তি দাস আবারও দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন। গতকাল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সংসদীয় ও স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের যৌথসভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। গতকাল শনিবার বিকেল ৪টায় গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারি বাসভবন গণভবনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সংসদীয় ও স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের এই যৌথসভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন মনোনয়ন বোর্ডের সভাপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর ও ঝিনাইদহসহ দেশের ৬১টি জেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিতদের নাম প্রকাশ করা হয়। পরে রাত পৌনে ৯টায় চুয়াডাঙ্গায় মাহফুজুর রহমান মঞ্জু ও মেহেরপুরে অ্যাড. আব্দুস সালাম ও ঝিনাইদহে কনক কান্তি দাসসহ ৬১ জেলার দলীয় প্রার্থীদের নাম চূড়ান্তভাবে ঘোষণা করা হয়। এর আগে চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদ নির্বাচনে চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের ৭ জন নেতা দলীয় মনোনয়নের জন্য কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কাছে আবেদন করেন। যারা দলীয় মনোনয়ন চেয়েছিলেন তারা হলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আজাদুল ইসলাম আজাদ, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন, জেলা পরিষদের বর্তমান প্রশাসক শেখ শামসুল আবেদিন খোকন, জেলা পরিষদের সাবেক প্রশাসক মাহ্ফুজুর রহমান মঞ্জু, জেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক প্রফেসর ডা. মাহবুব মেহেদী, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড.আবদুল মালেক প্রমুখ।

অপরদিকে, মেহেরপুর জেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়ে আবেদন করেন ৮ জন নেতা। যারা দলীয় মনোনয়ন চেয়েছিলেন তারা হলেন- মেহেরপুর-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদিন, বর্তমান প্রশাসক গোলাম রসুল, সাবেক প্রশাসক ও মেহেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি অ্যাভোকেট মিয়াজান আলী, সহসভাপতি আব্দুল মান্নান, কেন্দ্রীয় যুবমহিলা লীগের সদস্য শামীম আরা হিরা, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক অ্যাভোকেট ইব্রাহীম শাহীন, জেলা কৃষকলীগের সভাপতি মাহাবুবল হক শান্তি এবং বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহসভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য অ্যাড. আব্দুস সালাম।

এদিকে, ঝিনাইদহ জেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়ে আবেদন করেন ৮ জন নেতা। যারা দলীয় মনোনয়ন চেয়েছিলেন তারা হলেন-বর্তমান জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক কনক কান্তি দাস, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আজিজুর রহমান, শৈলকুপা উপজেলা পরিষদের সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি, বীর মুক্তিযুদ্ধা অধ্যাপক আবেদ আলী, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি, সাংবাদিক তৈয়ব আলী জোর্য়াদ্দার, সৃজনী ফাউন্ডেশন এর প্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী পরিচালক, বঙ্গবন্ধু সৈনিকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান ড. এম. হারুন অর রশীদ, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলের সাবেক সভাপতি, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মকবুল হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক ছাত্রনেতা অশোক ধর এবং জেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক ও ঝিনাইদহ জজ কোটের পিপি আডভোকেট ইসমাইল হোসেন।

Girl in a jacket

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।