চুয়াডাঙ্গা মঙ্গলবার , ২ আগস্ট ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

জুলাই মাসে নির্যাতনের শিকার ২৯৫ জন নারী-কন্যা

সমীকরণ প্রতিবেদনঃ
আগস্ট ২, ২০২২ ১১:২৫ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

সমীকরণ প্রতিবেদন: চলতি বছরের জুলাই মাসে সারা দেশে ২৯৫ জন নারী ও কন্যাশিশু নির্যাতনের শিকার হয়েছে বলে একটি প্রতিবেদনে জানিয়েছে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ। বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মালেকা বানু স্বাক্ষরিত গতকাল সোমবার গণমাধ্যমে পাঠানো একটি প্রতিবেদনে তথ্য জানানো হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদ অনুসারে ২০২২ সালের জুলাই মাসে মোট ২৯৫ জন নারী ও কন্যা নির্যাতনের শিকার হয়েছে। এর মধ্যে ধর্ষণের শিকার হয়েছে ৪৮ জন কন্যাসহ ৭৩ জন। তার মধ্যে ১০ জন কন্যা ও ৯ জন নারীসহ ১৯ জন দলবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছে, একজন কন্যা ও দুইজন নারীকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে এবং একজন কন্যা ধর্ষণের পর আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। এছাড়াও ৯ জন কন্যাসহ ১৩ জনকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে।
এছাড়াও ১১ জন যৌন নিপীড়নের শিকার হয়েছে, এর মধ্যে আটজন কন্যা। ৯ জন উত্ত্যক্তকরণের শিকার হয়েছে এর মধ্যে আটজন কন্যা। নারী ও কন্যা পাচারের ঘটনা ঘটেছে ছয়টি। এর মধ্যে চারজন কন্যা। এসিডদগ্ধের শিকার হয়েছে একজন এবং তিনজন অগ্নিদগ্ধের শিকার হয়েছে। যৌতুকের কারণে নির্যাতনের শিকার হয়েছে ১৬ জন। এর মধ্যে পাঁচজনকে যৌতুকের কারণে হত্যা করা হয়েছে। শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছে মোট ১৮ জন এর মধ্যে সাতজন কন্যা। পারিবারিক সহিংসতার শিকার হয়েছে ছয়জন। গৃহকর্মী নির্যাতনের শিকার হয়েছে দুইজন এর মধ্যে একজনকে হত্যা করা হয়েছে। এ ছাড়াও বিভিন্ন কারণে ৯ জন কন্যাসহ ৪২ জনকে হত্যা করা হয়েছে এবং একজন কন্যাসহ দুইজনকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। আটজন কন্যাসহ ২৭ জনের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। ছয়জন কন্যাসহ ১৭ জনের আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে দুইজন কন্যাসহ চারজন আত্মহত্যার প্ররোচনার শিকার হয়েছে। আটজন কন্যাসহ ৯ জন অপহরণের ঘটনার শিকার হয়েছে। এছাড়াও একজন কন্যাকে অপহরণের চেষ্টা করা হয়েছে। চারজন কন্যাসহ সাইবার অপরাধের শিকার হয়েছে ছয়জন। বাল্যবিয়ের ঘটনা ঘটেছে ১০টি। বাল্যবিয়ের ঘটনা প্রতিরোধ করা হয়েছে ৯টি। এছাড়া তিনজন কন্যাসহ আটজন বিভিন্নভাবে নির্যাতনের শিকার হয়েছে। উল্লেখ্য, ১৩টি দৈনিক জাতীয় পত্রিকায় প্রকাশিত ঘটনার পেপার ক্লিপিংয়ের সংরক্ষিত তথ্যের ভিত্তিতে জুলাইয়ের নারী ও কন্যাশিশু নির্যাতনের সংখ্যা প্রকাশ করা হয়।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।