চুয়াডাঙ্গা বুধবার , ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৬
আজকের সর্বশেষ সবখবর

জীবননগর পল্লী বিদ্যুতের অসহনীয় লোডশেডিংয়ে অতিষ্ঠ সাধারন মানুষ

সমীকরণ প্রতিবেদন
সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৬ ১:২৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

rftrtt4জীবননগর অফিস: জীবননগর পল্লী বিদ্যুতের অসহনীয় লোডসেটিংয়ে  সাধারন মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে । জানা গেছে গত রোজার মাস থেকে জীবননগর পল্লী বিদ্যুৎ প্রায় লোডসেটিং দেখা দিত মাঝে মাঝে এলাকার সাধারন মানুষ পল্লী বিদ্যুতের এই লুকোচুরি খেলা করায় তাদের উপর অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে।  মাঝে দৈনিক সময়ের সমীকরণ পত্রিকায় পল্লীবিদ্যুতের এ ভেলকিবাজী লোডশেডিংয়ের সংবাদ প্রকাশ হওয়ায় জীবননগর উপজেলার সুযোগ্য নির্বাহী অফিসার নুরুল হাফিজের একান্ত প্রচেষ্ঠায় লোডসেটিং সাময়িক ভাবে  বন্ধ হয়েছিল । তখন বিদ্যুৎ যেত কিন্তু ৫-৭মিনিট পরেই আবার চালু হয়ে যেতে । কিন্তু এখন প্রতিনিয়িত কোন সময় সীমা নিধারন না করেয়  পল্লী বিদ্যুতের ভেলকিবাজী লোডসেটিং  এটি যেন তারা ইচ্ছা করেই করেন বলে মনে করছেন সাধারন মানুষ।
এদিকে একাধিক মানুষ অভিযোগ করে বলেন জীবননগর উপজেলার বিশেষ বিশেষ ব্যাক্তিগন গরমের জন্য বিকল্প বিদ্যুৎ হিসাবে আই পি এস  ব্যবহার করে থাকে যার ফলে সাধারন মানুষের দুর্ভোগের কথা কেউ চিন্তা করে না আবার যাওবা চিন্তা করেন সেটি বেশির ভাগ লোক দেখানোর মত ঘটনা ঘটে । এদিকে ভয়াবহ এই লোডসেডিংয়ে সাধারন মানুষের পাশাপাশি চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে দুরদুরন্ত থেকে জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্ল্রেক্্ের চিকিৎসা নিতে আশা রোগিরা । বর্তমান ডিজিটাল সময় হওয়া সত্তেও বিদ্যুতের এই লোডসেডিংয়ে বেশির ভাগ অফিসে কাজ করতে অসহনীয় দুভোরে মুখোমুখি হতে হচ্ছে । বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধান মন্ত্রী বাংলাদেশের বিদ্যুৎ বিভাগে উন্নতি করা সত্তেও এখন পর্যন্ত জীবননগর পৌর শহর সহ গোটা উপজেলা বাসী বিদ্যুতের সেই সুবিধা থেকে বঞ্জিত হচ্ছে । অথচ পাশ্ববর্তী জেলার মহেশপুর পৌর সভায় সারা দিনে লোডশেডিং মাত্র ১ঘন্টা থাকলেও জীবননগর পৌর সভায় লোডশেডিং দিনে ৩ঘন্টা এবং সন্ধার সময় মাগরিবের নামাজ থেকে শুরু করে রাত ১০টা পর্যন্ত চলে লোডশেডিং।
একটি সুত্রে জানা গেছে, দেশে প্রতি বছরে পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের কিছু গুনধর কর্মকর্তাকে বিদ্যুৎ লোডশেডিং দেওয়ার উপরে পুরস্কার ঘোষনা করেন তা হলে জীবননগর পল্লী বিদ্যুতের ওই গুনধর কর্মকর্তা এ বছর পুরস্কার নেওয়ার জন্য কি এ ধরনের জঘন্যতম লোডসেডিং এর মত ঘটনা ঘটাচ্ছে এমটিই ধারনা জীবননগর উপজেলাবাসীর। শুধু অফিস, হাসপাতালই নয় এই লোডশেডিংয়ের ভয়াবহ প্রবাহের হাত থেকে রেহায় পাচ্ছে না স্কুল কলেজের ছাত্র /ছাত্রীরা ও বর্তমান এই ভেপসা গরমে ভয়াবহ লোডসেডিংয়ে লেখাপড়ার মান অনেক পিছিয়ে পড়েছে।এদিকে বিভিন্ন ফেসবুকে এলাকার সাধারন মানুষ জীবননগর পল্লী বিদ্যুতের এই লোডসেডিংয়ের হাত থেকে রেহায় পেতে ইতো মধ্যেই একটি মানব বন্ধনের ডাক দিয়েছে। এদিকে এলাকার একাধিক ব্যাক্তি  আরও অভিযোগ করে  বলেন লোডসেডিংয়ের ব্যপারে পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে ফোন দিলে অনেক সময় অফিসের নাম্বারে ফোন ধরে না আবার কোন কোন সময় ফোন ধরলেও বা তাদের নিকট বিষয়টি জানতে চাইলে গ্রাহকদের উপরে  ক্ষিপ্ত হয়ে খারাপ আচারন করে থাকে । সাধারন মানুষ যেন তাদের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছে। উল্লেখ্য বিগত ১৬বছর যাবৎ জীবননগর ঈদের দিন কোন লোডশেডিং হয়নি কিন্তু বর্তমান জীবননগর পল্লী বিদ্যুতের কর্মকর্তা মামুন সাহেব আসা মাত্রই ঈদের দিন লোডশেডিং দিয়েছিলেন এতে করেই জীবননগরবাসীর বুঝতে বাকি নেই যে এ বছর  লোডশেডিংয়ের পুরস্কারটি তিনিই নিয়ে আসছেন। এদিকে পল্লী বিদ্যুত অফিসের কর্মকর্তাদের এ হেন কান্ড দেখে সাধারন মানুষ হতবাক হয়ে পড়েছে। তাই  ভয়াবহ এ লোডশেডিংয় এর হাত থেকে রক্ষা পেতে এলাকাবাসী ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের আশুহস্তক্ষেপ কামনা করছেন ।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।