চুয়াডাঙ্গা বুধবার , ১৯ অক্টোবর ২০১৬

জীবননগর ডিগ্রি কলেজে অর্নাস দ্বিতীয় বর্ষের ইনকোর্স পরীক্ষায় অতিরিক্তি সেশন চার্জ আদায়ের প্রতিবাদে ছাত্র/ছাত্রীদের পরীক্ষা বর্জন

সমীকরণ প্রতিবেদন
অক্টোবর ১৯, ২০১৬ ১:০২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

sr4

জাহিদ বাবু জীবননগর থেকে: জীবননগর ডিগ্রি কলেজে অর্নাস দ্বিতীয় বর্ষের ইনকোর্স পরীক্ষার জন্য অতিরিক্ত সেশন চার্জ বেশি নেওয়ার প্রতিবাদে রাষ্ট্রবিজ্ঞান ও বাংলা বিভাগের ছাত্র/ছাত্রীরা পরীক্ষা বর্জন করেছে। জানা গেছে জীবননগর ডিগ্রি কলেজ আগে থেকেই মানবিক, বিজ্ঞান, কারিগরি শাখা, উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে পরিচালিত হয়ে আসছে। গত দুই বছর যাবৎ এই কলেজে বাংলা এবং রাষ্ট্রবিজ্ঞান এ দুটি বিষয়ে অর্নাস চালু হয়েছে। এই দুটি বিষয়ের ছাত্র/ছাত্রীদের নিকট থেকে আদায় করা হচ্ছে অতিরিক্ত ৪হাজার ৮শ ১০টাকা সেশন চার্জ। যা পার্শ¦বতী কলেজের চেয়ে দিগুন। এদিকে অতিরিক্ত সেশন চার্জ হ্রাসের জন্য ছাত্র/ছাত্রীরা শিক্ষকদের সাথে কথা বললে শিক্ষকেরা তা মেনে না নেওয়ায় অবশেষে ছাত্র/ছাত্রীরা ইনকোর্স পরীক্ষা বর্জন করে। এবিষয়ে ছাত্র/ছাত্রীদের সাথে কথা বললে তারা বলেন আমাদের কলেজে বেতনসহ অন্যান্য সব কিছু পার্শ¦বতী কলেজের সাথে মিল আছে। শুধুমাত্র সেশন চার্জ এই কলেজে বেশি। তাই আমরা স্যারদের সাথে এ সেশন চার্জ কমানোর জন্য দাবি জানালে তাঁরা বলেন এই চার্জ আমরা কমাতে পারবো না। এটি গর্ভানিং বডির সাথে আলোচনা ছাড়া কিছু করতে পারবো না। এখন তোমরা সেশন চার্জ, পরীক্ষার ফি, মাসিক বেতন দিয়ে দাও। আর তোমরা অধ্যক্ষ বরাবর একটি আবেদন কর। এটি গর্ভানিং বডির সাথে আলোচনার সময় তোলা হবে। এদিকে ছাত্র/ছাত্রীরা আরও বলে আমরা স্যারদের কাছে দাবি করেছিলাম যে পরীক্ষার ফি এবং মাসিক বেতন দিয়ে পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ দেওয়া হোক। কিন্তু কোন সুযোগ দেওয়া হয়নি। সে কারনে আমরা পরীক্ষা বর্জন করি। একটি সুত্রে জানা গেছে গতকাল দৈনিক সময়ের সমীকরণে জীবননগর ডিগ্রি কলেজের বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে সত্য সংবাদ প্রকাশ হওয়ায় এলাকার সুধি মহল ও অভিভাবক মহল সাধুবাদ জানালেও কলেজের কতিপয় শিক্ষক প্রকাশিত সংবাদে ক্ষুব্ধ হয়েছেন। এদিকে জীবননগর ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আলী আকতারের সাথে কথা বললে তিনি বলেন আমি শুনেছি অনার্স বিভাগের ছাত্র/ছাত্রীরা সেশন চার্জ কমানোর জন্য ইনকোর্স পরীক্ষা বর্জন করেছে। এটা আসলে আমাদের কোন কিছু করার নেই, গর্ভানিং বডির বোর্ডের অনুমতি ছাড়া আমরা কিছু করতে পারবো না ।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।