চুয়াডাঙ্গা শনিবার , ২৭ আগস্ট ২০১৬
আজকের সর্বশেষ সবখবর

জীবননগরে বিদ্যুত বিভ্রাটে পৌরবাসীর নির্ঘুম রাত : কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন

সমীকরণ প্রতিবেদন
আগস্ট ২৭, ২০১৬ ১:০৪ অপরাহ্ণ
Link Copied!

জীবননগর অফিস: জীবননগরে বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইনে বড় কোন সমস্যা না থাকলেও উপজেলা ও পৌরবাসীকে প্রতিদিন বিদ্যুত বিভ্রাটের কারণে গড়ে ১০ঘন্টা অন্ধকারে দিন কাটাতে হচ্ছে। গত এক সপ্তাহ থেকে জীবননগর পল্লীবিদ্যুতের তেলেসমাপিতে আধা ঘন্টা পর পর দিনে কমপক্ষে ৮বার বিদ্যুতের আসা-যাওয়ায় অসহনীয় হয়ে উঠেছে জনজীবন। বিদ্যুতের এই পরিস্থিতিতে প্রচন্ড গরমে অতিষ্ঠ জীবননগরবাসী বাড়ির বারান্দায় ও রাস্তায় পায়চারী করে নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছেন। শুধু তাই নই প্রচন্ড এই খরতাপে হাঁপিয়ে উঠছে সাধারন মানুষসহ পশু-পাখি। পল্লী বিদ্যুতের গ্রাহকেরা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে তাদের মাসিক বিল নিয়মিত পরিশোধ করেও নিরবিচ্ছিন্নভাবে বিদ্যুত সরবরাহ থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। দিনের বেলা কয়েক ঘন্টা বিদ্যুত পাওয়া গেলেও সন্ধ্যা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত পুরোদমে চলছে লোডশেডিং। ঘনঘন লোডশেডিং ও বিদ্যুত বিপর্যয়ে দিনেরাতে ১০ ঘন্টায় অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে সাধারন মানুষ। ফলে জীবননগর উপজেলা ও পৌরবাসী  যেকোন সময়ে ক্ষোভে ফুঁসে উঠতে পারেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক গ্রাহক অভিযোগ করে বলেন এই তীব্র গরমে পল্লী বিদ্যুতের অসহনীয় লোডশেডিংয়ে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে সাধারন মানুষ। বিদ্যুতের এই ভেলকিবাজির প্রতিকারে বারবার স্থানীয় পল্লীবিদ্যুত কর্তৃপক্ষের কাছে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করেও কোন সদুত্তর পাওয়া যায় না। আর যখন পাওয়া যায় তখন কর্তৃপক্ষের লোকজন গ্রাহকের সমস্যা সমাধানের বদলে তাদের সাথে দূর্ব্যবহার করেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। একদিকে বিদ্যুত বিভ্রাট আর ভ্যাপসা গরম, অন্যদিকে পল্লীবিদ্যুত কর্তৃপক্ষের দূর্ব্যবহারে গ্রাহকের নাভিশ্বাষ। বিদ্যুতের এই অবস্থা নিয়ে গত রোজার মাসে জীবননগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার পল্লীবিদ্যুত সমিতি কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বললে বেশ কয়েকদিন বিদ্যুত সরবরাহ ভালোই ছিল। কিন্তু আবারও শুরু হয়েছে সেই অসহনীয় বিদ্যুতের লোডশেডিং। তাই এলাকার সাধারন মানুষ পল্লীবিদ্যুতের এই ভেলকিবাজির হাত থেকে রেহাই পেতে উর্দ্ধতন কর্তপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন করেছেন।

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।