চুয়াডাঙ্গা মঙ্গলবার , ২১ এপ্রিল ২০২০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

জীবননগরে ধান ছত্রাকজনিত ব্লাস্টে আক্রান্ত

সমীকরণ প্রতিবেদন
এপ্রিল ২১, ২০২০ ১:২৮ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

Girl in a jacket

মিঠুন মাহমুদ:
বৈরি আবহাওয়ার কারণে জীবননগরে ধান ছত্রাকজনিত ব্লাস্ট রোগে আক্রান্ত হয়েছে। হেড ও নেক ব্লাস্ট রোগে আক্রান্ত হচ্ছে ধান। জীবননগর উপজেলার সীমান্ত ইউনিয়নের কয়া, ধান্যখোলা, গঙ্গাদাশপুরসহ উপজেলার মনোহরপুর গ্রামের বেশকিছু ধানের মাঠে ছড়িয়ে পড়েছে ব্লাস্ট রোগ। উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের হিসাবে উপজেলায় ১ হেক্টর ধানের জমিতে ব্লাস্ট রোগ দেখা দিয়েছে। ধানের ব্লাস্ট প্রতিরোধের জন্য কৃষকেরা কীটনাশক ব্যবহার করেও কোনো সুফল পাচ্ছেন না। এ মৌসুমে ধান চাষ করে ক্ষতির মুখে পড়তে হবে কৃষকদের। জীবননগর উপজেলায় আটটি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় এ মৌসুমে ৬ হাজার ১ শ হেক্টর জমিতে ধান চাষ হচ্ছে। গত বছরের তুলনায় প্রায় ৭ শ হেক্টর জমিতে কম ধানের আবাদ হচ্ছে।
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, গত বছর ধানের ফলন কম ও দাম কম হওয়ায় এ মৌসুমে কৃষকেরা অন্য ফসল বেশি চাষ করে ধান চাষ কম করছেন। এ বছর উপজেলায় ব্রি-ধান ৮১, ব্রি-ধান-৬৩ ও ব্রি-৫০ জাতের ধান লাগানোর কারণে ব্লাস্ট রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। জীবননগর উপজেলার কয়া, ধান্যখোলা, গঙ্গাদাশপুরসহ বিভিন্ন এলাকায় ধানে ব্লাস্ট রোগ ছড়িয়ে পড়েছে। প্রতিদিন নতুন নতুন ধানে ব্লাস্ট রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। আর বৈরি আবহাওয়ার কারণে ধানে ব্লাস্ট রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। ছত্রাকনাশক ব্যবহার করেও ব্লাস্ট থেকে রক্ষা করা সম্ভব হচ্ছে না। জীবননগর উপজেলার বিভিন্ন মাঠে ধানখেতে হঠাৎ করে ছত্রাকজনিত ব্লাস্ট রোগে আক্রান্ত হয়েছে। মাঠের পর মাঠ ধান নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। ধানের শীষ শুকিয়ে যাচ্ছে। ধানের কোনো ফল থাকছে না। দূর থেকে দেখলে মনে হবে ধান পেঁকে রয়েছে। কিন্তু ধান পাঁকার আগেই শুকিয়ে যাচ্ছে। ধানখেত ব্লাস্ট রোগে আক্রান্তের কারণে কৃষকদের এ বছর চরম ক্ষতির মুখে পড়তে হবে। ধানে হেড ও নেক ব্লাস্টে আক্রান্ত হচ্ছে। ধানের শীষ শুকিয়ে গেলেও গাছের রং সবুজ থাকছে।
এদিকে, কৃষকদের দাবি, কৃষি অফিস থেকে কোনো কর্মকর্তা মাঠে যান না এবং ধানের ব্লাস্ট রোগ প্রতিরোধের জন্য কী কীটনাশক ব্যবহার করবেন, সে ব্যাপারেও কৃষকদের কোনো পরামর্শ দেওয়া হয় না। যার ফলে কৃষকেরা এ বছর ধানচাষ করে ক্ষতির মুখে পড়তে হচ্ছে।
তবে জীবননগর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সহকারী কৃষি কর্মকর্তা আরিফ হোসেন বলেন, ‘আমরা ধানের জমি ঘুরে দেখেছি। অল্প কয়েক জায়গায় দানে ব্লাস্ট রোগে আক্রান্ত হয়েছে। ধানে ব্লাস্ট রোগের জন্য জীবননগর উপজেলা কৃষি অফিস থেকে প্রতিনিয়ত কৃষকদের মাঠ পর্যায়ে পরামর্শ প্রদান করা হচ্ছে। আবহাওয়া স্বাভাবিক হলেই ব্লাস্ট রোগের প্রকোপ অনেক অংশে কমে আসবে এবং নিয়মিত ওষুধ ব্যবহার করলে ব্লাস্ট প্রতিরোধ করা সম্ভব।

Girl in a jacket

দৈনিক সময়ের সমীকরণ সংবিধান, আইন ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য পাঠকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য অপসারণ করার ক্ষমতা রাখে।